X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

তালেবান শাসনে নিজেদের যেভাবে মানিয়ে নিচ্ছে আফগানরা

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৩০

উত্তর আফগানিস্তানের মাজার-ই-শরিফের বলখ এয়ারফিল্ড। সেখানে নামছে রুশ নির্মিত  একটি এমআই-১৭ হেলিকপ্টার। তালেবান যোদ্ধারা বেশ উৎফুল্ল ভঙ্গিতে সেটির ছবি তুলছেন। হেলিকপ্টারটির আরোহীদের মধ্যে আছেন ঊর্ধ্বতন তালেবান কর্মকর্তারা। তবে ককপিটে চালকের আসনে বসে আছেন তাদের সাবেক শত্রু আফগান বিমান বাহিনীর পাইলট।

মৌলভী আবদুল্লাহ মনসুর হচ্ছেন এই এয়ারফিল্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত তালেবান অধিনায়ক। সেখানে তার অধীনে এখন যেসব বিমান ও সামরিক সরঞ্জাম, তিনি সেগুলো বিবিসি-র সাংবাদিক সেকান্দার কেরমানিকে ঘুরিয়ে দেখাচ্ছিলেন। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বাহিনী আফগানিস্তানের সাবেক সরকারকে এগুলো উপহার দিয়েছিল। এর মধ্যে আছে যুদ্ধ বিমান, আছে হামলা চালানোর মতো সামরিক হেলিকপ্টার।

আফগানিস্তানের সাবেক সরকারের আমলে এসব বিমান ও হেলিকপ্টার দিয়েই তালেবানের বিরুদ্ধে হামলা চালানো হতো। কিন্তু এখন যুদ্ধ যেহেতু শেষ। তাই এগুলো এখন কী কাজে ব্যবহৃত হবে তা স্পষ্ট নয়।আবদুল্লাহ মনসুর অবশ্য বলছেন, ‘ভবিষ্যতে যদি দরকার হয়, এগুলো আমাদের হাতে আছে।‌‌’

২০২১ সালের ১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নিতে সমর্থ হয় তালেবান। এর কিছুদিন আগে থেকেই যখন দলটি আফগানিস্তানজুড়ে তাদের অগ্রাভিযান অব্যাহত রেখেছিল, তখন আফগান বিমান বাহিনীর কয়েক ডজন পাইলট প্রাণভয়ে বিমান নিয়ে পালিয়ে যান। তবে অনেকেই আফগানিস্তানে থেকে যান। এখন তারা তালেবান নেতৃত্বের অধীনেই কাজ করছে। তাদেরকে ক্ষমা করে দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিবিসি মৌলভী মনসুরের কাছে জানতে চেয়েছিল, যে শত্রুর বিরুদ্ধে তিনি একটা সময় লড়াই করেছেন, এখন তার সঙ্গেই কাজ করতে তার কেমন লাগছে। উত্তরে তিনি বলেন, ‘‌আমাদের মনে সবসময় এই বিশ্বাস ছিল যে জয় আমাদের হবেই এবং আমরা আমাদের দেশকে মুক্ত করবো। কিন্তু আমরা এটাও জানতাম যে একদিন সকালে আমাদের একসঙ্গে বসতে হবে এবং সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। কারণ তারাও তো আমাদের দেশেরই মানুষ।’

মৌলভী মনসুরের পাশে বসে আছেন হেলিকপ্টার পাইলট গুল রহমান। তিনি জবাব দিচ্ছিলেন বেশ সতর্কতার সঙ্গে। জানালেন, যখন তিনি তালেবানের সাধারণ ক্ষমার ঘোষণা শুনলেন, তখন আর  কাজে ফিরতে তার ভয় করেনি। তবে আফগানিস্তানে ক্ষমতার এমন পালাবদল অবশ্যম্ভাবী ছিল বলে মনে করেন তিনি।

গুল রহমানের ভাষায়, ‌‘আমাদের কখনোই মনে হয়নি চিরকাল আমাদের এমন আলাদা পথে চলতে হবে। আমরা রাজনীতিটা রাজনীতিকদের কাছেই ছেড়ে দিতে চাই এবং দেশের উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করতে চাই।’

তরুণ তালেবান যোদ্ধারা এয়ারফিল্ডের হ্যাঙ্গারের আশেপাশে জটলা করছিল। তারা কৌতুহলের সঙ্গে দেখছিল দুইটি এমডি-৫৩০ হেলিকপ্টার। একজন তালেব যখন একজন মেকানিককে তার যোগ্যতা সম্পর্কে প্রশ্ন করছিল, তখন সেখানে একটা চাপা উত্তেজনা টের পাওয়া গেলো।

অভিযোগের সুরে এই তালেব বলছিলেন, ‘তুমি এই চাকুরি পেয়েছো তোমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক এবং যোগাযোগের কারণে, তোমার যোগ্যতার কারণে নয়।’ তবে এ রকম কথাবার্তা সত্ত্বেও সেখানে একটা সৌহার্দ্যের পরিবেশই আছে বলে মনে হয়েছে।

আফগানিস্তানের পুরোনো শাসনামল থেকে নতুন শাসনামলে উত্তরণের ব্যাপারটি সব জায়গায় অবশ্য এতোটা মসৃণভাবে ঘটছে না। দেশটি এখন অর্থনৈতিক সংকটের মুখে। তাদের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ জব্দ করে রাখা হয়েছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সিদ্ধান্ত নিচ্ছে কিভাবে তালেবানকে বাদ দিয়ে আফগানদের সাহায্য করা যায়।

আফগানিস্তানে ব্যাংক থেকে নগদ অর্থ উত্তোলনের সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছে। ব্যাংকগুলোর সামনে লম্বা লাইন। বিভিন্ন শহরে এখন পুরোনো জিনিসপত্রের বাজার গড়ে উঠেছে। সেখানে আফগানরা মরিয়া হয়ে সংসারের পুরোনো জিনিসপত্র বিক্রি করছে, যাতে অন্তত খাদ্য কেনার টাকা পাওয়া যায়।

শাগুফতা নামের এক নারী রাস্তার ধারে বসেছিলেন। ঘর থেকে বিক্রির জন্য আনা পুরোনো কাপড়-চোপড় হাতড়াচ্ছিলেন। অশ্রুসজল চোখে তিনি বললেন, ‘এখন বেঁচে থাকাটাই যেন এক ধরনের অপমান, আমরা ধীরে ধীরে মারা যাচ্ছি।’

শাগুফতার শরীর বেশ দুর্বল, কারণ সকালে তিনি নাস্তা করেননি। আগের রাতেও কোনও খাবার জোটেনি। বললেন, ‌‘খাবার যা ছিল, তা বাচ্চাদের দিয়েছি। এখন আমি তাদের ভালো কাপড়-চোপড়গুলোও বিক্রি করে দিচ্ছি। কোনও বিয়ের অনুষ্ঠানে ওরা যেসব পোশাক পরে যেতো, যদি ভালো দাম পাই তাহলে সেই অর্থ দিয়ে তেল, চাল ও আটা কিনবো।’ শাগুফতার গল্প আফগানিস্তানে যে গভীর বৈষম্য, সেটাকেই যেন তুলে ধরছে।

এই নারী বলেন, ‘ইসলামিক আমিরাত ভালো। কারণ এখন চুরি বন্ধ। কোনও অপরাধ আর  ঘটছে না। কিন্তু আমাদের সমস্যা একটাই। আমাদের কোনও কাজ নেই, আমাদের হাতে কোন টাকা নেই।’ সূত্র: বিবিসি বাংলা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৩৩

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে ভারত। বুধবার অগ্নি-৫ নামের সারফেস টু সারফেস এই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা চালানো হয়। এটি পাঁচ হাজার কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে সুনিপুণভাবে আঘাত হানতে সক্ষম। এটির সফল পরীক্ষাকে চীনের বিরুদ্ধে ভারতের একটি শক্তিশালী বার্তা হিসেবে দেখা হচ্ছে।

উড়িষ্যা উপকূলের এপিজে আবদুল কালাম দ্বীপ থেকে সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটে আন্তঃমহাদেশীয় এই ব্যালিস্টিক মিসাইলটি উৎক্ষেপণ করা হয়।

ক্ষেপণাস্ত্রটি একটি তিন-পর্যায়ের কঠিন জ্বালানি ইঞ্জিন ব্যবহার করে। এটি খুব উচ্চ মাত্রায় নির্ভুলভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে। এমনকি চীনের মূল ভূখণ্ডেও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

চীন ছাড়াও অগ্নি-৫ এশিয়ার বিভিন্ন দেশ এবং ইউরোপ ও আফ্রিকার কিছু অংশেও পৌঁছাতে সক্ষম। এটি ১০৫ টন পে-লোড বহন করতে পারে এবং এর ওজন প্রায় ৫০ টন।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স, ইসরায়েল এবং উত্তর কোরিয়ার পরে ভারত অষ্টম দেশ যার আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতা রয়েছে। সূত্র: জি নিউজ।

/এমপি/

সম্পর্কিত

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

সুদানে কার্যক্রম স্থগিত করলো বিশ্ব ব্যাংক

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৯

সুদানে সামরিক অভ্যুত্থানের ঘটনায় বুধবার দেশটিতে কার্যক্রম স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। অর্থাৎ দেশটির বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে আপাতত বিশ্ব ব্যাংকের অর্থ সহায়তা পাচ্ছে না দেশটির জান্তা সরকার। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

আফ্রিকা অঞ্চলের দেশগুলোর জোট আফ্রিকান ইউনিয়নও এদিন সুদানের সদস্যপদ স্থগিত করেছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, সুদানে নির্বাচনকেন্দ্রিক একটি অন্তর্বর্তীকালীন কর্তৃপক্ষ পুনঃপ্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ বহাল থাকবে।

সোমবার সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখলের পরপরই সংকট উত্তরণে সুদানের সামরিক ও বেসামরিক প্রতিনিধিদের অবিলম্বে সংলাপে বসার তাগিদ দিয়েছিল আফ্রিকান ইউনিয়ন। এর দুই দিনের মাথায় বুধবার দেশটির সদস্যপদ বাতিলের ঘোষণা দেয় সংস্থাটি।

সুদানকে আগের অবস্থানে ফেরাতে আঞ্চলিক সহযোগী দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)-এর পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল। অভ্যুত্থানের পরপরই সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে অবিলম্বে বেসামরিক সরকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। তবে সুদানের অভ্যুত্থানের নেতা জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহানের দাবি, গৃহযুদ্ধ এড়াতেই সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করেছে।

২০১৯ সালে দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে সরিয়ে দেওয়ার পর ক্ষমতা ভাগাভাগির দুর্বল একটি চুক্তিতে উপনীত হয় সামরিক বাহিনী ও বেসামরিক গোষ্ঠীগুলো। ওই চুক্তির আলোকেই গত দুই বছর ধরে দেশটি পরিচালিত হয়ে আসছিল। গত সেপ্টেম্বরে ব্যর্থ এক অভ্যুত্থান চেষ্টা চালায় ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট বশিরের অনুগত সেনারা। ওই ঘট্নায় সরকারের সামরিক ও বেসামরিক অংশগুলো বিভক্ত হয়ে পড়ে। উভয়  পক্ষের মধ্যে আস্থার সংকট দেখা দেয়। এর মধ্যেই ২৫ অক্টোবর সোমবার ভোরে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সুদানে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে চিকিৎসক ও তেলকর্মীরা

সুদানে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে চিকিৎসক ও তেলকর্মীরা

সুদানের সদস্যপদ স্থগিত করলো আফ্রিকান ইউনিয়ন

সুদানের সদস্যপদ স্থগিত করলো আফ্রিকান ইউনিয়ন

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৪

চীনের নতুন স্থল সীমান্ত আইন নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে ভারত। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘নতুন আইন প্রণয়নের বিষয়ে চীনের একতরফা সিদ্ধান্ত বর্তমান দ্বিপাক্ষিক সীমান্ত ব্যবস্থাপনায় প্রভাব ফেলতে পারে। সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয়ে যা আমাদের উদ্বেগের কারণ।’

২৩ অক্টোবর চীনের ন্যাশনাল পিপল’স কংগ্রেসের স্থায়ী কমিটি নতুন স্থল সীমান্ত আইন অনুমোদন দিয়েছে। বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, চীনের সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষার উদ্দেশ্যে আগামী ১ জানুয়ারি থেকে ওই নতুন আইন কার্যকর হবে।

নতুন আইন অনুযায়ী চীনের স্থল সীমান্তের নিরাপত্তার পক্ষে ক্ষতিকর এমন কোনও পদক্ষেপের ইঙ্গিত পেলে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে সংঘাতে পথে হাঁটবে পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ)। পাশাপাশি, সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে পরিকাঠামো, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এছাড়া প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে সীমান্ত সমস্যার দীর্ঘস্থায়ী সমাধানের নির্দেশিকা রয়েছে ওই আইনে।

ভারত, ভূটানসহ কয়েকটি দেশের সঙ্গে স্থলসীমান্ত চূড়ান্ত হয়নি চীনের। পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (এলএসি)-য় চীনা বাহিনীর আগ্রাসী আচরণের স্মৃতি এখনও ভারতীয়দের মনে টাটকা। এই পরিস্থিতিতে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বের নতু পদক্ষেপের ‘লক্ষ্য’ নয়াদিল্লি বলেই মনে করছেন ভারতের সামরিক বিশ্লেষক এবং কূটনীতিবিদদের একাংশ।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নিয়ন্ত্রণরেখায় শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে চীনের সঙ্গে সহমতের ভিত্তিতে একাধিক দিপাক্ষিক চুক্তি প্রোটোকল এবং ব্যবস্থাপনা হয়েছে। নয়াদিল্লির আশা, বেইজিংয়ের নতু আইন প্রণয়নের একতরফা পদক্ষেপ সেগুলোর পরিপন্থী হয়ে উঠবে না। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

/এএ/

সম্পর্কিত

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

চীনের হাইপারসোনিক অস্ত্রের পরীক্ষা উদ্বেগজনক: যুক্তরাষ্ট্র

চীনের হাইপারসোনিক অস্ত্রের পরীক্ষা উদ্বেগজনক: যুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৮

ইউক্রেনে তুরস্কের সামরিক ড্রোন সরবরাহের ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে রাশিয়া। বুধবার রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ নিজ দেশের এই উদ্বেগের কথা জানান। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুর্কি সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।

মস্কোয় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ নিয়ে কথা বলেন দিমিত্রি পেসকভ। তিনি বলেন, তুরস্কের সঙ্গে রাশিয়ার বাস্তবিকই বিশেষ ও ভালো সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু আঙ্কারা কর্তৃক ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীকে এই ধরনের সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহের ফলে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে। এ বিষয়ে মস্কোর উদ্বেগ রয়েছে।

এদিকে ২৭ অক্টোবর ডোনবাস এলাকায় রুশ চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে অভিযানে তুরস্কের তৈরি এই ড্রোন ব্যবহার করে কিয়েভ। এদিন ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বায়রাকতার টিবি-২ নামের অত্যাধুনিক এই ড্রোন ব্যবহারের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়। একই দিন ইউক্রেনে তুরস্কের এই ড্রোন সরবরাহ নিয়ে নিজেদের উদ্বেগের কথা জানায় রাশিয়া।

/এমপি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

পাকিস্তানে টিএলপি’র মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলি

পাকিস্তানে টিএলপি’র মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলি

সুদানে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে চিকিৎসক ও তেলকর্মীরা

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩০

সুদানে সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে যোগ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানির শ্রমিক ও চিকিৎসকরা। বুধবার তারা এই ঘোষণা দেন। তাদের অভিযোগ, এই অভ্যুত্থানের মাধ্যমে দেশটির পরিকল্পিত গণতান্ত্রিক হস্তান্তর ঠেকিয়ে দেওয়া হয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

সোমবার সশস্ত্রবাহিনী প্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহান ক্ষমতা দখলের পর থেকে রাজপথে বিক্ষোভে অংশ নিচ্ছেন হাজারো মানুষ। নিরাপত্তাবাহিনীর সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

রাজধানী খার্তুমে কয়েকটি কমিটির একটি গোষ্ঠী আরও কয়েকটি বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের পরিকল্পনা করছে। শনিবার মার্চ অব মিলিয়নস নামে কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

বুধবার রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি সুডাপেট-এর শ্রমিকরা উৎখাত হওয়া সরকারের সমর্থনে রাজপথে নেমেছেন। অ্যাক্টিভিস্টদের জোট সুদানিজ প্রফেশনালস অ্যাসোসিয়েশনের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গণ অসহযোগিতা কর্মসূচিতে যোগদানের সিদ্ধান্ত আমরা নিয়েছি। গণতান্ত্রিক ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবি অর্জনের আগ পর্যন্ত আমরা জনগণের সিদ্ধান্ত সমর্থনে এতে যোগদান করব।

দেশটির চিকিৎসকরাও জানিয়েছেন তারা ধর্মঘট পালন করবেন। চিকিৎসকদের বিভিন্ন ইউনিয়নের জোট ইউনিফাইড ডক্টর্স অফিস জানিয়েছে, প্রতিশ্রুতি অনুসারে এবং আমাদের পূর্ব ঘোষণা মতো আমরা সুদানজুড়ে সাধারণ ধর্মঘট পালন করবো অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে। আমরা নিজেদের প্রতিশ্রুতি সময় অনুসারে পালন করছি।

২০১৯ সালে বশির সরকারের পতনে সামনের সারির চালিকাশক্তি ছিল চিকিৎসকদের এই ইউনিয়ন। অন্যান্য প্রভাবশালী গোষ্ঠীর মধ্যে ছিল তেল শ্রমিক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মীরা। এই তিন শক্তি দেশটির অর্থনীতিকে স্থবির করে দিতে পারে।

/এএ/

সম্পর্কিত

সুদানে কার্যক্রম স্থগিত করলো বিশ্ব ব্যাংক

সুদানে কার্যক্রম স্থগিত করলো বিশ্ব ব্যাংক

সুদানের সদস্যপদ স্থগিত করলো আফ্রিকান ইউনিয়ন

সুদানের সদস্যপদ স্থগিত করলো আফ্রিকান ইউনিয়ন

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আসিয়ানের নতুন কৌশলগত চুক্তি

আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

পাকিস্তানে টিএলপি’র মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলি

পাকিস্তানে টিএলপি’র মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলি

চীনের সঙ্গে অস্ত্র প্রতিযোগিতা চায় না তাইওয়ান

চীনের সঙ্গে অস্ত্র প্রতিযোগিতা চায় না তাইওয়ান

যে কারণে পিছু হটলেন এরদোয়ান

যে কারণে পিছু হটলেন এরদোয়ান

সর্বশেষ

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

‘চেষ্টা করছি, কিন্তু আমাদের দ্বারা হচ্ছে না’ 

‘চেষ্টা করছি, কিন্তু আমাদের দ্বারা হচ্ছে না’ 

প্রেমিকাকে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা করে মনির: র‌্যাব

প্রেমিকাকে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা করে মনির: র‌্যাব

‘চোখ খুইল্লা লা’ স্লোগান দিয়ে নৌকার গণসংযোগে হামলার অভিযোগ

‘চোখ খুইল্লা লা’ স্লোগান দিয়ে নৌকার গণসংযোগে হামলার অভিযোগ

পুলিশ সুপারকে ডিআইজি পরিচয়ে ফোন দিয়ে ধরা

পুলিশ সুপারকে ডিআইজি পরিচয়ে ফোন দিয়ে ধরা

© 2021 Bangla Tribune