X
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

কোহলির ‘২০০’, আইপিএলে আর কারও নেই

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪৭

রেকর্ডের পর রেকর্ড গড়ে চলেছেন বিরাট কোহলি। এক কীর্তি লিখে নিজেই আবার নতুন কীর্তিতে মুছে দিচ্ছেন। আজ (সোমবার) যেমন আরেকটি কীর্তি গড়তে যাচ্ছেন র‌য়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু অধিনায়ক। আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের মুখোমুখি হচ্ছে বেঙ্গালুরু। দুবাইয়ের ম্যাচটিতে টস করতে নামলেই প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে এক ক্লাবের হয়ে আইপিএলে ২০০ ম্যাচ খেলার মাইলফলক স্পর্শ করতে যাচ্ছেন কোহলি।

২০০৮ সালে আইপিএল ক্রিকেট বিশ্বে পরিচিতি হওয়ার শুরু থেকে কুড়ি ওভারের প্রতিযোগিতার সঙ্গে আছেন কোহলি। এবং সেটা বেঙ্গালুরুর খেলোয়াড় হিসেবে। এবার হচ্ছে ১৪তম আসর। অর্থাৎ ১৪টি বছর একই ফ্র্যাঞ্চাইজির ছায়াতলে কাটিয়ে দিচ্ছেন কোহলি। আর খেলতে খেলতে বেঙ্গালুরুর জার্সিতে ২০০তম ম্যাচে নামতে যাচ্ছেন তিনি। নির্দিষ্ট একটি দলের হয়ে আর কারও নেই এই কীর্তি।

আইপিএল ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে এক দলের হয়ে ২০০ ম্যাচ খেলতে যাওয়ার আগেই ফ্র্যাঞ্চাইজিটির অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন কোহলি। এবারের আইপিএল শেষেই বেঙ্গালুরুর নেতৃত্ব ছাড়ছেন দিনকয়েক আগে জাতীয় দল ভারতেরও টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছাড়া এই ব্যাটসম্যান।

বেঙ্গালুরুর নেতৃত্ব ছাড়লেও ক্যারিয়ারের ইতি টানার আগপর্যন্ত এই ফ্র্যাঞ্চাইজিতেই খেলা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছার কথা শুনিয়েছেন কোহলি। বেঙ্গালুরুর জার্সিতে এখন পর্যন্ত খেলা ১৯৯ ম্যাচের ১৯১ ইনিংসে ৩৭.৯৭ গড়ে ১৩০.৪১ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ৬ হাজার ৭৬ রান। আছে ৫ সেঞ্চুরি ও ৪০ হাফসেঞ্চুরি। আর এই ভ্রমণে ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৬ সালে খেলেছেন আইপিএল ফাইনাল।

এক দলের হয়ে ২০০ ম্যাচ খেলতে যাওয়া কোহলি থেকে অন্যদের দূরত্ব অনেকটা। চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে ১৮২ ম্যাচ খেলা মহেন্দ্র সিং ধোনি আছেন দ্বিতীয় স্থানে। ১৭২ ম্যাচ নিয়ে তৃতীয় স্থানে চেন্নাই সুপার কিংসের সুরেশ রায়না। সব মিলিয়ে সর্বোচ্চ আইপিএলের ম্যাচ সংখ্যায় অবশ্য কোহলির অবস্থান পাঁচ নম্বরে। সবচেয়ে বেশি ২১২ ম্যাচ নিয়ে শীর্ষে ধোনি। এরপর রয়েছেন যথাক্রমে রোহিত শর্মা (২০৭), দিনেশ কার্তিক (২০৩) ও রায়না (২০১)।

/কেআর/

সম্পর্কিত

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

পাকিস্তানকে ১৫২ রানের লক্ষ্য দিয়েছে ভারত

পাকিস্তানকে ১৫২ রানের লক্ষ্য দিয়েছে ভারত

ম্যানইউকে গোল বন্যায় ভাসালো লিভারপুল

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০০:১৪

এইতো দিন চারেক আগের কথা। চ্যাম্পিয়নস লিগে আতালান্তার বিপক্ষে পিছিয়ে থেকেও ৩-২ গোলের দারুণ জয় পেয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। রোনালদোর এই ইউনাইটেড এবার বিধ্বস্ত হলো নিজেদের মাঠেই! মোহামেদ সালাহর হ্যাটট্রিকে ৫-০ গোলে ম্যানইউকে উড়িয়ে দিয়েছে লিভারপুল। 

এই জয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৯ ম্যাচে ষষ্ঠ জয়ে ২০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে লিভারপুল। সমান ম্যাচে তৃতীয় হারে আগের ১৪ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে আছে ম্যানইউ।

দুই অর্ধেই আধিপত্য ছিল লিভারপুলের। প্রথমার্ধে বিজয়ীরা বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণ শাণিয়ে ৪ গোলে এগিয়ে গেছে। ম্যাচ ঘড়ির ৫ মিনিটে নেবি কেইতা প্রথম গোল করেন। প্রতি আক্রমণ থেকে মোহামেদ সালাহর অ্যাসিস্টেই নিঁখুতভাবে ফিনিশিং করেন গিনির মিডফিল্ডার।

১৩ মিনিটে আলেকজেন্ডার আরনল্ডের নিচু ক্রসে দিয়েগো জোতা ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেন। এরপরের সময়টা শুধুই সালাহময়। ৩৮ মিনিটে ফিরমিনোর সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে তৃতীয় ও নিজের প্রথম গোলটি করেন মিশরীয় তারকা। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ের চতুর্থ মিনিটে চতুর্থ গোলটি পায় লিভারপুল। দিয়েগো জোতার অ্যাসিস্টে সালাহ সহজেই লক্ষ্যভেদ করেন। বিরতির আগে স্বাগতিকদের এমন অসহায় দৃশ্য দেখে অনেক সমর্থকই মাঠ ছাড়তে শুরু করেন। 

লিভারপুলের দোর্দণ্ড প্রতাপ অব্যাহত থাকে বিরতির পরেও। ৫০ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন সালাহ। মধ্য মাঠে পল পগবা বলের পজিশন হারিয়েছিলেন। হেন্ডারসন বল পেয়েই দিয়ে দেন সালাহকে। মিশরীয় এই ফরোয়ার্ড নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করতে সময় নেননি।

ইউনাইটেডের দুর্দশা আরও বাড়ে ৬০ মিনিটে। কেইতার সঙ্গে চ্যালেঞ্জে লাল কার্ড দেখেন পল পগবা। ভিডিও দেখে এই মিডফিল্ডারকে মার্চিং অর্ডার দেন রেফারি। যদিও এরপর আর কোনও গোল হজম করতে হয়নি স্বাগতিকদের। তবে ৮৩ মিনিটে কাভানির ফ্লিক ক্রসবারে লেগে প্রতিহত হলে ইউনাইটেডের এক গোল শোধ দেওয়া হয়নি। তাতে ৫ গোলের মালা পরেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে রেড ডেভিলদের।

/টিএ/এফআইআর/

সম্পর্কিত

ক্লাসিকোয় বার্সেলোনাকে হারিয়ে শীর্ষে উঠলো রিয়াল 

ক্লাসিকোয় বার্সেলোনাকে হারিয়ে শীর্ষে উঠলো রিয়াল 

বিশ্বকাপ উত্তাপের মাঝেই এল ক্লাসিকো মহারণ

বিশ্বকাপ উত্তাপের মাঝেই এল ক্লাসিকো মহারণ

আর নয় খণ্ডকালীন, আসছে স্থায়ী ফুটবল কোচ: কাজী নাবিল

আর নয় খণ্ডকালীন, আসছে স্থায়ী ফুটবল কোচ: কাজী নাবিল

প্রবাসী জুলকারনাইনকে নিয়েই উজবেকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশ দল

প্রবাসী জুলকারনাইনকে নিয়েই উজবেকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশ দল

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০০:২৭

তারকা ঠাসা দল ভারতের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিটও! আর সুপার টুয়েলভে সেই দলটিকেই কিনা একপেশে ম্যাচে ১০ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান।

দুবাইয়ে ১৫২ রানের লক্ষ্য ছুঁড়েও পাকিস্তানকে পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি বিরাট কোহলির দল। বরং অধিনায়ক বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের ১৫২ রানের অপ্রতিরোধ্য ওপেনিং জুটি বুমরাহ-সামিদের শাসন করেছে শুধু। বাবর ৫২ বলে ৬৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। তাতে ছিল ৪টি চার ও ২টি ছয়। সঙ্গী রিজওয়ানতো আরও বেশি আগ্রাসী ছিলেন। ৫৫ বলে ৭৯ রান করেন ৬টি চার ও ৩টি ছয়ে। দুই ওপেনার মিলে জয় নিশ্চিত করেন ১৭.৫ ওভারে। 

রাজনৈতিক বৈরিতায় দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশের মুখোমুখি হওয়া হয় না দ্বিপাক্ষিক সিরিজে। তাই আকর্ষণের কেন্দ্রে ছিলেন দুই দলের অধিনায়ক বাবর আজম ও বিরাট কোহলি। কারণ দুজনেরই ধারাবাহিকতা বিস্ময়কর! তাদের মাঝে শেষ পর্যন্ত নায়কের বেশে মাঠ ছাড়লেন পাকিস্তান অধিনায়ক। 

অথচ ভারতকে ১৫১ রানের পুঁজি পাইয়ে দিতে কোহলির অবদান কম ছিল না। উত্তেজনা ছড়ানো ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নামা দলটি চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়তে পারে ভারতীয় অধিনায়কের কারণেই।! 

অতীত পরিসংখ্যান বলছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আগের ৫ ম্যাচের ৫টিতেই ভারতের কাছে হেরেছে পাকিস্তান। ভারত টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামলে মনে হচ্ছিল, এবার বুঝি ভাগ্য বদলের মিশনে নেমেছে বাবর আজমরা। তিন ওভারের মাঝে দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে সেই বার্তাই দেন পেসার শাহীন আফ্রিদি। 

সেই ধাক্কা সূর্য কুমার যাদবও সামাল দিতে পারেননি! হাসান আলী তাকে বিদায় দিলে পাওয়ার প্লেতেই ৩ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে তারা। 

ভারতের পরিস্থিতি তখন এমন যে, মোক্ষম সময়েই রানের চাকা সচল ছিল না। কঠিন এই পরিস্থিতি থেকে দলকে উদ্ধার করেছেন মূলত ঋষভ পান্ত ও বিরাট কোহলি। এ দুজনের ৫৩ রানের জুটি সচল করে স্কোরবোর্ড। ৩০ বলে ৩৯ রান করা পান্তকে বিদায় দিয়ে জুটি ভাঙেন শাদাব খান। তার পরেও রাশ হাতছাড়া হতে দেননি কোহলি। রবীন্দ্র জাদেজাকে সঙ্গে নিয়ে গড়েন ৪১ রানের জুটি। 

জাদেজা ফিরলেও দায়িত্বের সঙ্গে দলের পুঁজি সমৃদ্ধ করেছেন কোহলি। বিদায় নেওয়ার আগে ৪৯ বলে ৫৭ রানের ইনিংস খেলেছেন। যাতে ছিল ৫টি চার ও একটি ছয়।  শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটে ভারত করতে পারে ১৫১ রান। 

৩১ রানের বিনিময়ে তিনটি উইকেট নেন শাহীন। ম্যাচসেরাও দিনি। ৪৪ রানে  দুটি নেন হাসান আলী। একটি করে নিয়েছেন হারিস রউফ।

/এফআইআর/

সম্পর্কিত

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৬

ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দুটি ক্যাচ মিস করেছেন লিটন দাস। আর তাতেই ম্যাচ চলে যায় শ্রীলঙ্কার পক্ষে। যদিও এই দুই ক্যাচ মিসের জন্য লিটনকে দায় দিচ্ছেন না মুশফিকুর রহিম।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) শারজায় শুরুতে দারুণ ফিল্ডিং করেছিলেন লিটন। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ সময়ে এসে দুই ক্যাচ মিস করে খলনায়ক বনে যান তিনি। 

ইনিংসের ১৩তম ওভারে আফিফ হোসেনের হাতে বল তুলে দেন মাহমুদউল্লাহ। নিজের তৃতীয় বলে স্কয়ার লেগে উড়িয়ে মারতে গিয়ে লিটন হাতে ক্যাচ তুলে দেন। কিন্তু সেটি ধরতে তো পারেননি, উল্টো বাউন্ডারি দিয়ে দেন লিটন।  ১৪ রানে জীবন পাওয়া রাজাপাকসে থামেন ৩১ বলে ৫৩ রান করে। শুধু রাজাপাকসের নন, ক্যাচ মিস করেছেন চারিথ আসালাঙ্কারও। মোস্তাফিজের বলে ৬৩ রানে আসালাঙ্কার ডিপ কভারে ক্যাচ ছাড়েন লিটন। ক্যাচটি ধরতে পারলে হয়তো ম্যাচটি নিজেদের করে নিতো পারতো বাংলাদেশ। ৬৩ রানে জীবন পাওয়া আসালাঙ্কাকে শেষ পর্যন্ত ৮০ রানে অপরাজিত থাকেন।
 
মুশফিকুর রহিম দুটো ক্যাচকে টার্নিং পয়েন্ট বললেও হারের দায় কারও ওপর দিচ্ছেন না, ‘আমি মনে করি দায় দেওয়ার কিছু নাই। একটা ম্যাচ খেললে ছোটখাটো ভুল থাকে, অনেক কিছু আবার ইতিবাচক থাকে। আমার কাছে মনে হয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল দুটি ক্যাচ। লিটন খুবই ভালো ফিল্ডার, সাধারণত আমার কাছে এলে ভিন্ন বিষয় ছিল, আমি হয়তো ওরকম মানের ফিল্ডার না। কিন্তু লিটন দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার। ওই সময় চাপের মুহূর্ত ছিল, গুরুত্বপূর্ণ সময় ছিল। দুটো বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ব্যাট করছিল। একটা জুটি হয়ে গিয়েছিল, আমাদের ব্রেক থ্রো দরকার ছিল।'

মুশফিক নির্দিষ্ট কাউকে দায় দিতে নারাজ। তার মতে, ছোটখাটো কিছু ভুলেই ম্যাচ হারতে হয়েছে, ‘ওরা পাওয়ার প্লের ছয় ওভার খুব ভালো ব্যবহার করেছে। সাকিবের ওই ওভারে মোমেন্টাম এসেছিল। সব মিলিয়ে বলবো দায় ঠিক না। আমরা ছোটখাটো কিছু ভুল করেছি। সেজন্য আমরা আসলে জিততে পারিনি।’ 

/আরআই/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

ক্লাসিকোয় বার্সেলোনাকে হারিয়ে শীর্ষে উঠলো রিয়াল 

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৩

মেসি-রামোস নেই তাতে কী? এল ক্লাসিকোর উত্তেজনায় এটুকুও ভাটা পড়েনি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝেও ফুটবলপিপাসুদের দৃষ্টি ছিল এই ম্যাচের দিকে। রবিবার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইয়ে জয়ী হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রতিপক্ষের মাঠে গিয়ে তিন পয়েন্ট ছিনিয়ে নিয়েছে আনচেলত্তির দল। দুই অর্ধে দুই গোলের সুবাদে রিয়াল ২-১ গোলে বার্সেলোনাকে হারিয়ে লা লিগায় পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে।

ন্যু ক্যাম্পে ৯ ম্যাচে ষষ্ঠ জয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ২০ পয়েন্ট নিয়ে গোল গড়ে সবার ওপরে আছে। সমান ম্যাচে বার্সেলোনা তৃতীয় হারে আগের ১৫ পয়েন্ট নিয়ে আছে সপ্তম স্থানে।

হাইভোল্টেজ ম্যাচে দুই দল বল দখলে প্রায় সমানে সমান ছিল। ম্যাচের ২১ মিনিটে রিয়াল মাদ্রিদের ভিনিসিয়ুস বক্সে পড়ে গেলে পেনাল্টির আবেদন জানায় তারা। রেফারি তাতে কর্ণপাত করেননি।

চার মিনিট পর সুযোগ আসে বার্সেলোনার। কিন্তু দিপাইয়ের অ্যাসিস্টে দেস্ত গোলকিপার কোর্তোয়াকে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি। ৩২ মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে রিয়াল মাদ্রিদ লিড নেয় অবশেষে। রদ্রিগোর দারুণ পাসে ডেভিড আলাবা বুলেট গতির শটে লক্ষ্যভেদ করে দলকে এগিয়ে নেন। এক গোলে পিছিয়ে থেকে বার্সেলোনা ম্যাচে ফেরার সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি।

বিশেষ করে বিরতির পর কৌতিনহো-দেস্তরা লক্ষ্যভেদ করতে পারলে অন্তত এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ার সুযোগ ছিল। ৪৮ মিনিটে কৌতিনহোর শট প্রতিহত করেন মিলিতাও। পরের মিনিটে ফাতির শট গোলকিপার কোর্তোয়া প্রতিহত করে দলকে ম্যাচে রাখেন।

৫৮ মিনিটে বার্সেলোনারও পেনাল্টি দাবি অগ্রাহ্য করেন রেফারি। চার মিনিট পর করিম বেনজেমা ম্যাচে ভালো সুযোগ পেয়ে নষ্ট করেন। ফ্রান্সের এই তারকার শট গোলকিপার টের স্টেগেন শরীর দিয়ে রুখে দেন। ৭৩ মিনিটে দেস্ত সুযোগ পেয়েও সমতায় ফেরাতে পারেননি দলকে। তবে যোগ করা সময়ে দেখা দেয় নাটকীয় মুহূর্তের। চতুর্থ মিনিটে রিয়াল মাদ্রিদ এগিয়ে যায় আবারও। লুকাস ভাসকেস ৬ গজ দূরত্ব থেকে গোলকিপার টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন।

ম্যাচের উত্তেজনা কিন্তু তখনও বাকী! ফাতির জায়গায় আগুয়েরো নেমেই বার্সেলোনার জার্সিতে প্রথম গোলের দেখা পেলেন। যোগ করা সময়ের সপ্তম মিনিটে দেস্তের ক্রসে আগুয়েরো জাল খুঁজে নেন। তবে এক গোল শোধ দেওয়া হলেও বার্সেলোনার হার এড়ানো যায়নি। নিজেদের মাঠে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে রোনাল্ড কোম্যানের দলকে।

/টিএ/এফআইআর/

সম্পর্কিত

ম্যানইউকে গোল বন্যায় ভাসালো লিভারপুল

ম্যানইউকে গোল বন্যায় ভাসালো লিভারপুল

বিশ্বকাপ উত্তাপের মাঝেই এল ক্লাসিকো মহারণ

বিশ্বকাপ উত্তাপের মাঝেই এল ক্লাসিকো মহারণ

আর নয় খণ্ডকালীন, আসছে স্থায়ী ফুটবল কোচ: কাজী নাবিল

আর নয় খণ্ডকালীন, আসছে স্থায়ী ফুটবল কোচ: কাজী নাবিল

প্রবাসী জুলকারনাইনকে নিয়েই উজবেকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশ দল

প্রবাসী জুলকারনাইনকে নিয়েই উজবেকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশ দল

সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিক

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২২:১৮

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হারের পর বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে সমালোচনায় মুখর ছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সমালোচনা আসে সমর্থকদের কাছ থেকেও। সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করার দিনে মাহমুদউল্লাহ আক্ষেপ নিয়ে কথা বলেছিলেন। রবিবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হারের পর সমালোচনাকারীদের আয়নায় মুখ দেখতে বললেন মুশফিকুর রহিম!

রবিবার শারজাতে আগে ব্যাট করে নাঈম ও মুশফিকের হাফসেঞ্চুরিতে ১৭১ রান করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু বাজে অধিনায়কত্ব ও বাজে ফিল্ডিংয়ের খেসারত দিয়ে ৭ বল আগেই ম্যাচ হেরে গেছে বাংলাদেশ। এদিন ৩৭ বলে ৫৭ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলা মুশফিক সংবাদ সম্মেলনে এসে কথা বলেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে বাইরের সমালোচনার কথা মনে করিয়ে দিতেই ঝাঁজালো কণ্ঠে উত্তর দিলেন তিনি, ‘এরকম কথা তো সব সময় হয়েই থাকবে। এখন একজন খেলোয়াড় হিসেবে আপনি যখন ভাল করবেন, সবাই তালি দিবে, যখন খারাপ করবেন গালি দিবে। এটা তো স্বাভাবিক তাই না? আর এটা আমার প্রথম বছর না। গত ১৬ বছর ধরে খেলছি। আমার কাছে স্বাভাবিক লাগে। আর যারা এরকম কথা বলে, তাদের নিজেদের মুখ একটু আয়নায় দেখা উচিত। কারণ তারা বাংলাদেশের হয়ে খেলে না, খেলি আমরা।’

ক্ষুব্ধ মুশফিক আরও বলেছেন, ‘শুধু আমি না, যারা খেলছেন ২০০০ সালে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর থেকে, সবাই ইনপুট দেওয়ার চেষ্টা করে। কোনওদিন হয়, কোনওদিন হয় না। যেটা বলবো আমরা দেশকে প্রতিনিধিত্ব করি এবং এই গর্ব নিয়েই মাঠে যাই, ভালো করার চেষ্টা করি।’

/আরআই/এফআইআর/

সম্পর্কিত

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

ভারতকে হারিয়ে ভাগ্য বদলালো পাকিস্তান

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

তবু লিটনের দায় দেখছেন না মুশফিক

quiz
সর্বশেষসর্বাধিক
© 2021 Bangla Tribune