X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের কর্মীর হয়রানি থেকে বাঁচতে আবেদন 

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০৫

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের প্রবাসীকল্যাণ শাখার হিসাব সহকারী সুব্রত কুমার বনিকের (৪৫) হয়রানি থেকে বাঁচতে আবেদন করেছেন প্রতিবেশীরা। তার বিরুদ্ধে গত ২০ বছর ধরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিয়ে প্রতিবেশীদের হয়রানির কথা বলা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন সময় মোবাইলকোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে প্রতিবেশীদের জেল-জরিমানা করার হুমকি দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে সরকারি ওই কর্মীর বিরুদ্ধে। 

এ অবস্থায় হয়রানি থেকে বাঁচতে সুব্রতর বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, ইউএনওসহ বিভিন্ন দফতরে ওই এলাকার ১৫ জন ব্যক্তির স্বাক্ষরিত একটি আবেদন জমা দিয়েছেন স্থানীয় মো. বিল্লাল হোসেন খান।

সুব্রত কুমার বনিক শরীয়তপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের নিরালা আবাসিক এলাকার মৃত মিহির কুমার বনিকের বড় ছেলে।

নিরালা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা ও আবেদন সূত্রে জানা যায়, ৬০ নম্বর পালং মৌজার ৯৫০ দাগের পূর্বপাশে বিল্লাল হোসেন খানের জমি। ওই জমির ভেতর নিজের সম্পত্তি আছে দাবি করেন সুব্রত কুমার বনিক। পরে অভিযোগ করলে তৎকালীন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল ফজল মাস্টার, সহকারী ভূমি কর্মকর্তা হাকিম মুন্সীসহ স্থানীয় ২০-২৫ জনের সালিশে জমির মীমাংসা করা হয়। তাদের সীমানায় পিলারও স্থাপন করা হয়। 

এছাড়া ১৯ বছর আগে ৯৫০ দাগে ওই এলাকার কানাই লাল বনিকের দশ শতক জমি কেনেন সুশীল অধিকারী নামের এক ব্যক্তি। জমি কেনার ছয় মাস পর সেই জমির ওপর চিকন্দি আদালতে পি.এম.সন করার পায়তারা করেন সুব্রত। তাও স্থানীয় সালিশ বৈঠকে মীমাংসা করে চুক্তিপত্র করা হয়।

স্থানীয় সুশীল অধিকারী, আমির খাঁ, আনিছউদ্দিন ব্যাপারী জমি কেনার ২০ বছর পরেও সুব্রতর বাঁধা ও হুমকির কারণে বসতঘর সংস্কার করতে পারছেন না। অন্তত ১৫ বার জমি মাপার পরেও সুব্রত প্রশাসনিক প্রভাব খাটানোর কারণে জনপ্রতিনিধি ও সালিশদাররা মীমাংসায় ব্যর্থ হন।

এরপর গত ১০ আগস্ট সুব্রতর হয়রানি থেকে বাঁচতে শরীয়তপুর পৌরসভায় একটি আবেদন করেন সুশীল অধিকারী। পরে ১৭ আগস্ট শরীয়তপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র বাচ্চু ব্যাপারী, কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর হোসেন ব্যাপারী, সালিশদার বাদল ব্যাপারী, পরিতোষ বনিক, জাহাঙ্গীর শেখ, মাস্টার জাহাঙ্গীর সরদার, বিল্লাল খান, সুব্রতর ভাই চঞ্চল বনিক, হিমেল বনিকসহ ৫০-৬০জন ও দুই জন আমিন জমি মেপে যার যার জমি বুঝিয়ে দেন, যা সুব্রত মেনে নেন। সবার সিদ্ধান্তে সুব্রতসহ প্রত্যেকে তাদের সীমানায় প্রাচীর তৈরি করছেন। 

তবে সবার সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে বিল্লাল হোসেন খানের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বরাবর ফের অভিযোগ করেন সুব্রত। 

বিল্লাল হোসেন খান, সুব্রতর চাচাতো ভাই পরিতোষ বনিকসহ ভুক্তভোগীরা বলেন, আমরা সুব্রতর বাঁধা ও হুমকির শিকার হচ্ছি। তুচ্ছ বিষয়ে আমাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করেন তিনি। শুধু তাই নয় তিনি ডিসি অফিসে চাকরি করছেন, তাই মোবাইলকোর্ট দিয়ে জেল-জরিমানা করাবেন বলেও হুমকি দিচ্ছেন সুব্রত। ২২ সেপ্টেম্বর দরখাস্ত দেওয়ার পরও কোনও প্রতিকার পাইনি। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

তবে সুব্রত কুমার বনিকের দাবি, আমি কাউকে মোবাইলকোর্ট দিয়ে জেল-জরিমানা করানোর হুমকি দেইনি, এটা মিথ্যা কথা। আমি সঠিকভাবে আমার জমি বুঝে পাইনি তাই অভিযোগ করেছি।

শরীয়তপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শাখাওয়াত হোসেন মোবাইলফোনে বলেন, বিষয়টি যেহেতু তাদের ব্যক্তিগত, অভিযোগটির বিষয়ে দেখবো।



/টিটি/

সম্পর্কিত

মানিকগঞ্জে বেড়েছে ডেঙ্গু রোগী 

মানিকগঞ্জে বেড়েছে ডেঙ্গু রোগী 

১৬ কেজির কাতল ২৭ হাজারে বিক্রি

১৬ কেজির কাতল ২৭ হাজারে বিক্রি

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০৬

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্পের মাদ্রাসায় ছয় রোহিঙ্গাকে হত্যার ঘটনায় আরও চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) এপিবিএন পুলিশ ও উখিয়া থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে। 

উখিয়া থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) গাজী সালাহউদ্দিন জানান, উখিয়া বালুখালী ১৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মাদ্রাসায় ছয় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে হত্যার ঘটনায় গতকাল সোমবার এপিবিএন পুলিশ ও উখিয়া থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালায়। অভিযানে ক্যাম্প থেকে ১০ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হেড মাঝি শফিউল্লাহকে গ্রেফতার করে। 

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার ভোরে পুলিশ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে আরও তিন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করে। তারা হলো-ব্লক মাঝি ফরিদ হোসেন, জাহেদ হোসেন ও মো হাশিম। এ নিয়ে এই মামলায় মোট ১৪ জন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় ২৫ জনরে নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতসহ মোট ২৫০ জনকে আসামি করে গত শনবিার রাত পৌনে ১২টার দিকে উখিয়া থানায় মামলা দায়ের হয়। 

নিহত মাদ্রাসা ছাত্রদের একজন আজিজুল হকের বাবা ও উখিয়ার ১৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ-ব্লকের বাসিন্দা নূরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। 

কক্সবাজার ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার (পুলিশ সুপার) মোহাম্মদ শিহাব কায়সার খান জানান, ছয় রোহিঙ্গা হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। 

এই মামলায় ইতোপূর্বে গ্রেফতারকৃতরা হলো-মুজিবুর রহমান (১৯), দিলদার মাবুদ ওরফে পারভেজ (৩২), মোহাম্মদ আইয়ুব (৩৭), ফেরদৌস আমিন (৪০), আব্দুল মজিদ (২৪), মোহাম্মদ আমিন (৩৫), মোহাম্মদ ইউনুস ওরফে ফয়েজ (২৫), জাফর আলম (৪৫), মোহাম্মদ জাহিদ (৪০) ও মোহাম্মাদ আমিন (৪৮)। তাদের মধ্যে অস্ত্রসহ গ্রেফতার মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে উখিয়া থানায় পৃথক মামলা করেছে।

উল্লেখ্য, গত ২২ অক্টোবর রাত ৪টার দিকে উখিয়ার বালুখালী এফডিএমএন ক্যাম্প-১৮-এর এইচ-৫২ ব্লকে অবস্থিত ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল ওলামা আল ইসলামিয়াহ’ মাদ্রাসায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। এতে মাদ্রাসার ছাত্র, শিক্ষক ও ভলানটিয়ারসহ ছয় জন নিহত হন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

চৌমুহনীতে হামলা: বিএনপি নেতাসহ গ্রেফতার ৮

চৌমুহনীতে হামলা: বিএনপি নেতাসহ গ্রেফতার ৮

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, আটক ৩

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৪১

ময়মনসিংহে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে প্রতারণার অপরাধে তিন জনকে আটক করো হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) মধ্যরাতে ময়মনসিংহ ও জামালপুর থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলো—জামালপুরের মেলান্দহ থানার ছাবিল্লাহপুর গ্রামের ছামিউল আলম (৬৬), ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার কুড়িপাড়া গ্রামের জালাল উদ্দিন (৭৫) এবং মুক্তাগাছা উপজেলার রহিমবাড়ি গ্রামের সোহরাব আলীর ছেলে মারুফ মিয়া (১৯)।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে জেলা গোয়েন্দা শাখার ওসি সফিকুল ইসলাম জানান, ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগ পরীক্ষা-২০২১ উপলক্ষে ময়মনসিংহ জেলায় একাধিক প্রতাক চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

আটকৃতরা চাকরি পাইয়ে দেবে বলে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে নগদ টাকা নেয় ও অতিরিক্ত সচিব পরিচয়ে প্রতারণা করে আসছিল। এসব কাজে জড়িত অন্যদেরর আটকের চেষ্টা চলছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ মৃত্যু

১১০ দিনেই পেকেছে বিনা-১৭, কম খরচে বেশি ফলন

১১০ দিনেই পেকেছে বিনা-১৭, কম খরচে বেশি ফলন

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

১০ বছর যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তুলেছেন রাজাকার

১০ বছর যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তুলেছেন রাজাকার

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩২

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্ট্রোকের রোগীদের চিকিৎসা সেবায় বিশেষায়িত ইউনিটের কাজ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগে সম্মেলন কক্ষে এক বণার্ঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে ইউনিটটির উদ্বোধন করা হয়। হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির এর উদ্বোধন করেন। সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত নিউরোলজি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মো. ওয়াহিদুর রহমানের নামে (ওয়াহিদুর রহমান মেমোরিয়াল স্ট্রোক ইউনিট) নতুন এই ইউনিটটির নামকরণ করা হয়।

বিশেষ এই ইউনিট বিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার এস এম হুমায়ুন কবির বলেন, স্ট্রোক ইউনিটের মাধ্যমে চট্টগ্রামের রোগীরা অত্যাধুনিক চিকিৎসা পাবেন। ঢাকার নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউটের পর বাংলাদেশে সরকারিভাবে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এই ইউনিট সংযোজিত হলো। এখানে বিশেষায়িত সেবা দেওয়ার জন্য হাসপাতালের ওয়ান স্টপ জরুরি সেবা কেন্দ্রে একটি নতুন সিটিস্ক্যান মেশিন খুব শিগগিরই সংযোজন করা হবে।

 তিনি আরও বলেন, নিউরোলজি ওয়ার্ডে স্থান সংকুলান না হওয়ায় অনেক সময় লিফটের পাশে বারান্দায় রোগী ভর্তি দিতে হয়, এটি অমানবিক। আমরা এই ওয়ার্ডের একটি বর্ধিত ওয়ার্ড খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি। 
 
সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ডা. হাসানুজ্জামান বলেন, স্ট্রোক ইউনিটটি গঠনের মূল উদ্দেশ্য হলো খুব দ্রুত সময়ে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া। তাদেরকে থ্রম্বোলাইটিক থেরাপির মাধ্যমে একটি বিশেষায়িত চিকিৎসা প্রদান করার চেষ্টা থাকবে। এই থেরাপি স্ট্রোক রোগীর হাত ও পায়ের প্যারালাইসিস হওয়া রোধ করবে। থেরাপি এমন একটি সেবা যার প্রাপ্তির সময়সীমা খুবই সীমিত। স্ট্রোক হওয়ার সর্বোচ্চ সাড়ে ৪ ঘণ্টার মধ্যে আমরা যদি এই সেবা দিতে পারি তাহলে ভালো ফল মিলবে।

অনুষ্ঠানে বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. ফারহানা মোছলেহউদ্দিন। প্রবন্ধে বলা হয়, স্ট্রোক ইউনিটের মাধ্যমে অত্যাধুনিক থ্রম্বোলাইসিস চিকিৎসার মাধ্যমে স্ট্রোকজনিত মৃত্যুহার এবং শারীরিক অক্ষমতা অনেকাংশে কমে আসবে।

নিউরোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মাহবুবুল আলম খন্দকারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. সাহেনা আক্তার, মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. এম এ হাছান চৌধুরী, রেডিওলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. সুভাষ মজুমদার, নিউরো সার্জারি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. এস এম নোমান খালেদ চৌধুরী, ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. শওকত হোসেন প্রমুখ বক্তব্য প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে হাসপাতালের উপ-পরিচালক আফতাবুল ইসলাম, সহকারী পরিচালক ডা. মো. সাজ্জাদ হোসেন, ডা. রাজিব পালিত, নিউরোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. প্রদীপ কুমার কায়স্থগীর, ডা. শিউলি মজুমদার, ডা. পঞ্চানন দাশ, সহকারী অধ্যাপক ডা. মশিহুজ্জামান আলফা, ডা. মো. তৌহিদুর রহমান, ডা. মো. আনোয়ারুল কিবরিয়া,  ডা. জামান আহম্মদ, ডা. মো. একরামুল আযম শাহেদ, কনসালটেন্ট ডা. সীমান্ত ওয়াদ্দাদার, বিভাগের রেজিস্ট্রার ডা. পীযুষ মজুমদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

চৌমুহনীতে হামলা: বিএনপি নেতাসহ গ্রেফতার ৮

চৌমুহনীতে হামলা: বিএনপি নেতাসহ গ্রেফতার ৮

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

চৌমুহনীতে হামলা: বিএনপি নেতাসহ গ্রেফতার ৮

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০৩

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আরও আট জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ জানান জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম।

গ্রেফতারকৃতরা হলো—সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. সুমন (৩৩), চৌমুহনী পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইমরান হোসেন নিশান (২০), একই ওয়ার্ডের মো. রনি (২০), চৌমুহনী পৌরসভার মীরওয়ারিশ গ্রামের বিএনপির সমর্থক মো. ইউসুফ (৩০), চৌমুহনী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আক্তারুজ্জামান (৫০), সোনাইমুড়ী উপজেলার রবিউল হোসেন ওরফে রনি (৩২), লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার সাহেদুল ইসলাম (২২) ও হাতিয়া উপজেলার হাতিয়া পৌর বিএনপির প্রচার সম্পাদক ছেরাজুল হক বেচু (৪২)।

শহীদুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ইমরান হোসেন নিশান নামের একজন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন, হামলার দিন চৌমুহনী ব্যাংক রোডের রাম ঠাকুর মন্দির থেকে এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা লুট করে ভাগ-বাটোয়ারা করে নেয়। নিশান ভাগে পায় ৮ হাজার টাকা। এর মধ্যে পাঁচ হাজার ৫০০ টাকা খরচ করে। বাকি আড়াই হাজার টাকা তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। তাদেরকে আজ নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

এর আগে হামলার ঘটনায় ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ১০ জনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে। তাদের মধ্যে আজ আলী আজগর, নুরুল ইসলাম সুমন ও নুরুল ইসলাম জীবনের রিমান্ডের শুনানি হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

মানিকগঞ্জে বেড়েছে ডেঙ্গু রোগী 

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৫৫

মানিকগঞ্জে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত এক মাস ১৭ দিনে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল ৮৬ জন রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। এরমধ্যে একজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ৯ জন রোগীর অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়। 

মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ( আরএমও) ডা. কাজী একেএম রাসেল এ তথ্য  নিশ্চিত করেছেন।

ডা. কাজী একেএম রাসেল বলেন, ৯ সেপ্টেম্বর থেকে মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) পর্যন্ত মোট ৮৬ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। এদের মধ্যে একজন মারা গেছেন। এছাড়া ৯ জন রোগীর অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বাকি ৭০ জন রোগী হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে হাসপাতালটিতে ছয় জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। 

এদিকে হাসপাতালটির তত্ত্বাবধায়ক ডা. আরশাদ উল্লাহ বলেন, এখন হাসপাতালে করোনার বাড়তি চাপ কমে গেছে। তবে গত এক মাসে বেড়েছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা।  

/টিটি/

সম্পর্কিত

১৬ কেজির কাতল ২৭ হাজারে বিক্রি

১৬ কেজির কাতল ২৭ হাজারে বিক্রি

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মানিকগঞ্জে বেড়েছে ডেঙ্গু রোগী 

মানিকগঞ্জে বেড়েছে ডেঙ্গু রোগী 

১৬ কেজির কাতল ২৭ হাজারে বিক্রি

১৬ কেজির কাতল ২৭ হাজারে বিক্রি

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

চাপাতি দিয়ে প্রেমিকাকে কোপানোর অভিযোগ

চাপাতি দিয়ে প্রেমিকাকে কোপানোর অভিযোগ

হেফাজতের হরতালে সহিংসতার মামলায় কাউন্সিলর গ্রেফতার

হেফাজতের হরতালে সহিংসতার মামলায় কাউন্সিলর গ্রেফতার

ফতুল্লায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

ফতুল্লায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

প্রাইভেটকার চালক হত্যায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

প্রাইভেটকার চালক হত্যায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

সর্বশেষ

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিত যুক্তরাষ্ট্রের

সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিত যুক্তরাষ্ট্রের

সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা সরকারের পরিকল্পিত, অভিযোগ বিএনপির

সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা সরকারের পরিকল্পিত, অভিযোগ বিএনপির

খালেদা জিয়া আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: ইকবাল হাসান মাহমুদ

খালেদা জিয়া আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: ইকবাল হাসান মাহমুদ

‘নগদ-ডিআরইউ’ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলা ট্রিবিউনের শাহেদ শফিকসহ ২২ জন

‘নগদ-ডিআরইউ’ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলা ট্রিবিউনের শাহেদ শফিকসহ ২২ জন

© 2021 Bangla Tribune