X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

কবে খুলবে হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়?

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৫

দীর্ঘ ১৭ মাস ২৫ দিন বন্ধ থাকার পর ১২ সেপ্টেম্বর খুলেছে দেশের প্রাথমিক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলতেও তোড়জোড় শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) প্রশাসন শিক্ষার্থীদের থেকে কয়েক ধাপে টিকা গ্রহণ সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে। তবে তথ্য দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থীর অনীহা লক্ষ্য করা গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন বলছে, শিক্ষার্থীদের তথ্য দিতে অনীহার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে বিলম্ব হতে পারে। কারণ টিকা গ্রহণের তথ্যের ওপর নির্ভর করে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগ বলছে, করোনার টিকা সংক্রান্ত তথ্যের জন্য অনলাইনে লিঙ্ক তৈরির মাধ্যমে কয়েক ধাপে শিক্ষার্থীদের কাছে তথ্য চেয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু কয়েক দফা সময় বাড়ানোর পর এক-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী তথ্য দেয়নি। রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত প্রশাসনের কাছে তথ্য এসেছে সাত হাজার ৫০০ শিক্ষার্থীর। অথচ শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ১১ হাজার।

এ ছাড়া যেসব শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্মনিবন্ধন সনদের তথ্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে চাওয়া হয়েছিল। সেখানে তথ্য দিয়েছে ৪৬৮ জন। তাদের তথ্য ইতোমধ্যে ইউজিসির কাছে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, এখনও টিকা পাননি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদেশি শিক্ষার্থীরা। কয়েক দফা তথ্য দিয়েও নিবন্ধন করতে পারেননি তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যাশনাল হলের সুপার সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. জামাল উদ্দীন বলেন, বর্তমানে ৪০ বিদেশি শিক্ষার্থী হলে অবস্থান করছেন। বিদেশি শিক্ষার্থীদের এনআইডি কার্ড না থাকায় একটু জটিলতা আছে। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগ ইউজিসির সঙ্গে যোগাযোগ করছে। সব বিদেশি শিক্ষার্থীর পাসপোর্ট নম্বর, শিক্ষার্থীর নাম ও ফোন নম্বরসহ প্রয়োজনীয় সব তথ্য সংশ্লিষ্ট বিভাগকে দিয়েছি।

ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. ইমরান পারভেজ বলেন, বিদেশি শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় সব তথ্য আমরা ইউজিসিতে পাঠিয়েছি। করোনার টিকার রেজিস্ট্রেশনের জন্য তৈরি সুরক্ষা অ্যাপে বিদেশি শিক্ষার্থীদের অপশন না থাকায় প্রাথমিকভাবে আবেদন করতে পারেননি। তবে খুব দ্রুতই বিদেশি শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হবে বলে আশা করছি। 

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার একার পক্ষে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়া সম্ভব নয়। খুব শিগগিরই ৫৮তম একাডেমিক কাউন্সিল বসবে। সংগৃহীত সব তথ্যের ওপর ভিত্তি করেই একাডেমিক কাউন্সিল এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। 

গত ১৪ সেপ্টেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় আয়োজিত বৈঠক শেষে জানানো হয়, আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের টিকা গ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন কাজ শেষ করা হবে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একাডেমিক কাউন্সিলের অনুমোদন নিয়ে পাঠদান কার্যক্রম শুরু ও আবাসিক হল খুলতে পারবে। ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বৈঠকে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, কোভিড-১৯ সম্পর্কিত কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি, স্বাস্থ্য অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট অধিদফতরের কর্মকর্তারা।

/এএম/

সম্পর্কিত

ক্যাম্পাসে টিকাদানের উদ্যোগ শেকৃবি প্রশাসনের

ক্যাম্পাসে টিকাদানের উদ্যোগ শেকৃবি প্রশাসনের

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন জবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন জবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন রাবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন রাবি শিক্ষার্থীরা

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

জবির মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি পরীক্ষা দিলেন ৩ শিক্ষার্থী

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩৯

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রের অধীন গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থাপনায় অংশ নিয়েছেন তিন পরিক্ষার্থী। রবিবার (২৪ অক্টোবর) দেশের ২২টি কেন্দ্রে ৬৭ হাজার ১১৭ পরীক্ষার্থীর মধ্যে জবি কেন্দ্রে আসন ছিল সাত হাজার ৭৯৩ জন পরীক্ষার্থীর। 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, জবিতে চার জন বিশেষ শিক্ষার্থী আবেদন করলেও অংশগ্রহণ করেন তিন জন। তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়। এরমধ্যে একজন শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী, একজন দৃষ্টি শক্তিহীন ও অপরজন অন্তঃসত্ত্বা। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. ইমদাদুল হক বলেন, ‘সমস্যায় থাকা ওই শিক্ষার্থী যাতে অন্যদের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পান সে জন্যই বিশেষ ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে বিশেষ শিক্ষার্থীদের জন্য আমরা আরও সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবো।’

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় শাবিতে উপস্থিতি ৯৫ শতাংশ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় শাবিতে উপস্থিতি ৯৫ শতাংশ

পরীক্ষা দিতে এলেন মেয়ে, কিউআর কোড বলছে ছেলে 

পরীক্ষা দিতে এলেন মেয়ে, কিউআর কোড বলছে ছেলে 

১২ হাজার ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩৮০০ জনই অনুপস্থিত

১২ হাজার ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩৮০০ জনই অনুপস্থিত

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

রিট তোলার শর্তে রাবি শিক্ষককে সভাপতি নিয়োগের প্রস্তাব

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৪৪

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ক্রপ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক মু. আলী আসগরকে রিট তুলে নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। বিনিময়ে তাকে সভাপতি নিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঠানো এক চিঠিতে এই প্রস্তাব দেওয়া হয়। তবে অধ্যাপক আলী আসগর বলছেন, তিনি রিট পিটিশন তুলবেন না।

গত ৭ অক্টোবর রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের লিগ্যাল সেলের মতামত অনুসারে ওই চিঠি ইস্যুর তারিখ হতে সাত দিনের মধ্যে রিট পিটিশনটি তুলে নেওয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র অফিসে (রেজিস্ট্রার দফতর) দাখিলের অনুরোধ করা হলো। রিট পিটিশন তুলে নেওয়া হলে মু. আলী আসগরকে ক্রপ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগে সভাপতি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি অনুসারে নিয়োগ দেওয়া হবে। 

এ ব্যাপারে অধ্যাপক আলী আসগর বলেন, ‘আমি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রস্তাবে রাজি না। নিঃশর্তে বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করতে চাই। এটা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইন ১৯৭৩ অনুযায়ী আমার অধিকার।’

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠতার ক্রমানুসারে অধ্যাপক সাইফুল ইসলামের পরে বিভাগের সভাপতি হিসেবে আলী আসগর নিয়োগ পাওয়ার কথা। সাইফুল ইসলামের সভাপতির মেয়াদ শেষ হয় ২০২০ সালের ৮ মে। কিন্তু তার পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জ্যেষ্ঠতার ক্রম লঙ্ঘন করে অধ্যাপক আলী আসগরের পরিবতর্তে আবুল কালাম আজাদকে সভাপতি নিয়োগ দেয়।

এই ঘটনায় ওই বছরের জুনে হাইকোর্টে রিট করেন অধ্যাপক আলী আসগর। রিট পিটিশনে ওই বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর তাকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইন-১৯৭৩ অনুযায়ী ক্রপ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের সভাপতি হিসেবে নিয়োগ প্রদানে কেন উপাচার্য ও রেজিস্ট্রারকে নির্দেশনা প্রদান করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।  

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের লিগ্যাল সেলের পরামর্শে রিট তোলার অনুরোধ করেছি। সাত কার্যদিবস শেষ হয়েছে। অধ্যাপক আলী আসগর এখনও উত্তর জানাননি। এখন লিগ্যাল সেলের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

জবির মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি পরীক্ষা দিলেন ৩ শিক্ষার্থী

জবির মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি পরীক্ষা দিলেন ৩ শিক্ষার্থী

আবাসিক হলে শাবি শিক্ষার্থীদের ফুল-মাস্কে বরণ

আবাসিক হলে শাবি শিক্ষার্থীদের ফুল-মাস্কে বরণ

ঢাবি ক্যাম্পাসে ফিরলো বিশ্বকাপের উন্মাদনা 

ঢাবি ক্যাম্পাসে ফিরলো বিশ্বকাপের উন্মাদনা 

ঢাবিতে ৭৬তম জাতিসংঘ দিবস উদযাপন

ঢাবিতে ৭৬তম জাতিসংঘ দিবস উদযাপন

আবাসিক হলে শাবি শিক্ষার্থীদের ফুল-মাস্কে বরণ

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩০

দীর্ঘ ১৯ মাস পর আবাসিক হলে ফিরতে শুরু করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থীরা। ফুল, কেক, চকলেট, হলের নাম ও লোগো সম্বলিত মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে আবাসিক শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিচ্ছে বিভিন্ন হলের কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীদেরকে হলে উঠতে দেখাতে হচ্ছে অন্তত একডোজ করোনা টিকা নেওয়ার প্রমাণপত্র। এজন্য হলগুলোর গেটে চেয়ার-টেবিল নিয়ে বসেছেন হলের কর্মচারীরা। 

এদিকে সোমবার (২৫ অক্টোবর) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে অনলাইনে ‘হলে প্রত্যাবর্তন’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।  

 এ সময় উপাচার্য বলেন, দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর আমাদের আবাসিক হল খুলে দেওয়া হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় ক্যাম্পাস আবারো প্রাণ ফিরে পাবে। সামনে আরও নতুন নতুন হল হবে, এগুলো সম্পূর্ণ আধুনিক ব্যবস্থাপনায় তৈরি করা হবে। ইতোমধ্যে আমরা শিক্ষার্থীদের এক ডোজ টিকা নিশ্চিতের ব্যবস্থা করেছি। তবুও কোনও শিক্ষার্থী বাদ পড়লে তাদের দ্রুত টিকার আওতায় নিয়ে আসবো। এছাড়া শিক্ষার্থীদের হলে থাকতে হলে বৈধতা থাকতে হবে। বৈধতা ছাড়া কোনও শিক্ষার্থী হলে থাকতে পারবেন না। 

কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরছে। আমরা করোনা থেকে সুরক্ষার জন্য সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসতে চেষ্টা করছি। এজন্য ক্যাম্পাসেই টিকা দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষার্থীদেরকে ক্যাম্পাসে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম শৃঙ্খলা অবশ্যই সকলকে মেনে চলতে হবে। রেজিস্ট্রেশন ছাড়া কোনও শিক্ষার্থীকে হলে না থাকার আহ্বান জানান তিনি।  

আবাসিক হলে ছাত্রীদের বরণ করতে ছিল কেক-মিষ্টির আয়োজন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল ইসলাম, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক জহির উদ্দিন আহমেদ, প্রক্টর ড. মো. আলমগীর কবীর, রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ সামিউল ইসলাম।  এছাড়া অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন শাহপরান হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান খান, সৈয়দ মুজতবা আলী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আবু সাইদ আরেফিন খান নোবেল, প্রথম ছাত্রী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. জায়েদা শারমিন, বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোস্টসহ বিভিন্ন হলের সহকারী প্রভোস্টবৃন্দ, আবাসিক শিক্ষার্থীবৃন্দ ও বিভিন্ন হলের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

সাস্ট ক্লাবের নতুন কমিটির শপথ ও দায়িত্ব গ্রহণ 

সাস্ট ক্লাবের নতুন কমিটির শপথ ও দায়িত্ব গ্রহণ 

শাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগের দায়িত্ব নিলেন অধ্যাপক জাকারিয়া

শাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগের দায়িত্ব নিলেন অধ্যাপক জাকারিয়া

মঙ্গলবার থেকে শাবির মেডিক্যাল সেন্টারে টিকা দেওয়া শুরু

মঙ্গলবার থেকে শাবির মেডিক্যাল সেন্টারে টিকা দেওয়া শুরু

শাবিপ্রবিতে ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলছে

শাবিপ্রবিতে ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলছে

ঢাবি ক্যাম্পাসে ফিরলো বিশ্বকাপের উন্মাদনা 

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৬

ক্রিকেটের কোনও বড় আসর মানে বাংলার ঘরে ঘরে, পাড়ায় পাড়ায় কিংবা মোড়ের চায়ের দোকানে উন্মাদন। পিছিয়ে থাকে না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি কিংবা আবাসিক হলগুলো। তবে করোনা মহামারিতে খেলাও যেমন ছিল না, আবার হল বন্ধ থাকায় দীর্ঘদিন এমন হইহুল্লোরও ছিল ঢাবি ক্যাম্পাসে। বিশ্বকাপের শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ ম্যাচ দিয়ে যেন সেই উন্মাদনাই ফিরে এলো।

ক্রিকেটে সবশেষ উত্তেজনায় মেতেছিল ২০২০ সালে ভারতের সাথে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ের দিন। যুব টাইগারদের বিশ্ব জয়ে আনন্দ মিছিল করেছিল শিক্ষার্থীরা। এরপর দীর্ঘ প্রায় দুই বছর শিক্ষার্থীরা না থাকায় এমন দৃশ্য অনুপস্থিত ছিল। গত ৫ অক্টোবর হল খোলার পর থেকে আবারও মুখরিত হতে শুরু করে ঢাবি ক্যাম্পাস। শুরু হয় গান-কবিতার কনসার্ট, টিএসসির আড্ডা। 

চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপারে টুয়েলভে বাংলাদেশ কোয়ালিফাই করার পর আবারও সেই ক্রিকেটীয় উন্মাদনায় মেতেছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা। টাইগারদের চার-ছয় আর প্রতিপক্ষের উইকেটের পতনে গর্জন করে ওঠে শিক্ষার্থীরা। যদিও শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার কাছে ৫ উইকেটের হার নিয়ে মণক্ষুণ্ন হতে হয়েছে দর্শকদের।

বিশ্বকাপের উদ্মাদনা বাড়াতে টিএসসির পায়রা চত্বরে প্রজেক্টরে বড় স্ক্রিনে খেলা দেখার আয়োজন করেছেন শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও খেলা চলাকালে বিশেষ করে প্রথম ইনিংসে সূর্যসেন হল, বঙ্গবন্ধু হল, বিজয় একাত্তরের হলসহ সব হল থেকেই শোনা গেছে  ক্রিকেট পাগল শিক্ষার্থীদের গর্জন, প্রায় একই দৃশ্য মেয়েদের হলগুলোতেও। 

টিএসসিতে খেলা দেখছিলেন হাসান আলী নামে এক শিক্ষার্থী। তিনি বলেন, অনেকদিন পর ক্যাম্পাসে ফিরে এমনিতেই খুব ভালো লাগছে। তার ওপর আবার বিশ্বকাপ ক্রিকেট শুরু হয়েছে। টিএসসিতে বড় স্ক্রিনে খেলা, সেই ক্রিকেটীয় উত্তেজনা। প্রিয় আঙিনায় খেলা দেখতে পেরে আমি খুবই উচ্ছ্বসিত।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

আবারও মুখর ঢাবির টিএসসি

আবারও মুখর ঢাবির টিএসসি

ঢাবির 'ঘ' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবির 'ঘ' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

ঢাবিতে ৭৬তম জাতিসংঘ দিবস উদযাপন

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪১

ঢাকা ইউনিভার্সিটি মডেল ইউনাইটেড নেশনস অ্যাসোসিয়েশন-ডিইউএমইউএনএ’র উদ্যোগে ৭৬তম জাতিসংঘ দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

রবিবার (২৪ অক্টোবর)  বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের মিলনায়তনে জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষে ‘নিউ ইমারজেন্স অব বাংলাদেশ ইন দ্য গ্লোবাল অ্যারিনা’

শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘২০৩০ সালের মধ্যে জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনের লক্ষ্যে বিশ্বের সকল দেশ কাজ করে যাচ্ছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পথে বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই অনন্য অগ্রগতি সাধন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসাধারণ বিচক্ষণতা, দক্ষতা ও নেতৃত্বের মাধ্যমে দেশ ও জাতির সামগ্রিক আর্থ-সামজিক উন্নয়ন ঘটেছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বের কাছে রোল মডেল। অসাধারণ নেতৃত্বের গুণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যেই ‘জুয়েল ইন দ্য ক্রাউন অব দ্য ডে’ সহ অসংখ্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিও লাভ করেছেন।’

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন এবং দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালনের জন্য উপাচার্য ঢাকা ইউনিভার্সিটি মডেল ইউনাইটেড নেশনস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান।

ডিইউএমইউএনএ’র সভাপতি মোহাম্মদ আশিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে সংগঠনের মডারেটর ও ঢাবি আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। সাংবাদিক ও কলামিস্ট অজয় দাস গুপ্ত এবং ইউনাইটেড নেশনস ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ জাকিউজ জামান প্রবন্ধের ওপর আলোচনায় অংশ নেন।

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

স্বাস্থ্য ও জীবন বিমার আওতায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

স্বাস্থ্য ও জীবন বিমার আওতায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

পরীক্ষা দিয়েও ১৬০০ শিক্ষার্থী অনুপস্থিত, ওয়েসাইট থেকে সরলো ফল

পরীক্ষা দিয়েও ১৬০০ শিক্ষার্থী অনুপস্থিত, ওয়েসাইট থেকে সরলো ফল

চবিতে ১৯ অক্টোবর ক্লাস শুরুর পর ১৬ দিনের ছুটি

চবিতে ১৯ অক্টোবর ক্লাস শুরুর পর ১৬ দিনের ছুটি

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্যাম্পাসে টিকাদানের উদ্যোগ শেকৃবি প্রশাসনের

ক্যাম্পাসে টিকাদানের উদ্যোগ শেকৃবি প্রশাসনের

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন জবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন জবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন রাবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন রাবি শিক্ষার্থীরা

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

করোনায় ঘরবন্দি সময় কাজে লাগিয়ে সফল উদ্যোক্তা এলিজা

করোনায় ঘরবন্দি সময় কাজে লাগিয়ে সফল উদ্যোক্তা এলিজা

সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে হবে: শাবি উপাচার্য

সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে হবে: শাবি উপাচার্য

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

করোনামুক্ত হয়েও রুয়েটের সাবেক ভিসির মৃত্যু

করোনামুক্ত হয়েও রুয়েটের সাবেক ভিসির মৃত্যু

হাবিপ্রবিতে করোনায় এক দিনে দুই কর্মচারীর মৃত্যু

হাবিপ্রবিতে করোনায় এক দিনে দুই কর্মচারীর মৃত্যু

১৭ মে খুলছে না ঢাবির হল

১৭ মে খুলছে না ঢাবির হল

সর্বশেষ

চাকরি দিচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

চাকরি দিচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

উন্মুক্ত হলো তাদের বিশেষ গান ‌‘চার ছক্কা মারো’ (ভিডিও)

উন্মুক্ত হলো তাদের বিশেষ গান ‌‘চার ছক্কা মারো’ (ভিডিও)

মডেল তিন্নি হত্যা মামলার রায় আগামী ১৫ নভেম্বর

মডেল তিন্নি হত্যা মামলার রায় আগামী ১৫ নভেম্বর

নুর ও রেজা কিবরিয়ার নতুন দলের আত্মপ্রকাশ

নুর ও রেজা কিবরিয়ার নতুন দলের আত্মপ্রকাশ

পাকিস্তানের আবেগের ম্যাচ, উইলিয়ামসন দেখছেন ভিন্নভাবে

পাকিস্তানের আবেগের ম্যাচ, উইলিয়ামসন দেখছেন ভিন্নভাবে

© 2021 Bangla Tribune