X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

শেখ হাসিনার নোবেল না পাওয়ার পেছনে দায়ী ভারত ও আমলারা: জাফরুল্লাহ

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪৩

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নোবেল না পাওয়ার পেছনে ভারত এবং আমাদের দেশের আমলারা দায়ী। তিনি (শেখ হাসিনা) নোবেল প্রাইজ পেলেন না কেন তা নিয়ে বিশ্লেষণ হওয়া দরকার। এর কারণ ভারত ও তাদের অনুগত এদেশীয় আমলারা। প্রধানমন্ত্রী যদি অসলো (নরওয়ের রাজধানী) যেতেন তাহলে নোবেল কমিটিকে বোঝাতে পারতেন দেশের জন্য তিনি কী কী করেছেন।’ রবিবার (১০ অক্টোবর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘নাগরিকের ভোটাধিকার, স্বাধীন নির্বাচন কমিশন কোন পথে’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর ভাষ্য, ‘রোহিঙ্গাদের জন্য জাতিসংঘ সাহায্য করতে চেয়েছে। তারা স্বাক্ষর করলেন। এটা তো ১৫ দিন আগেও করতে পারতেন। কেন করতে পারেনি? দেশের কিছু আমলা আমাদের থেকে বেতন নেন, কিন্তু ভারতের হুকুমে চলাফেরা করেন। ঠিক এই কারণে আমরা আজ একটা নোবেল পুরস্কার হারালাম।’

আলোচনা সভা যৌথভাবে আয়োজন করে গণসংহতি আন্দোলন, রাষ্ট্রচিন্তা ও ভাসানী পরিষদ। এতে নুরুল হক নুর ও তার অনুসারীদের সংগঠন ছাত্র-যুব-শ্রমিক পরিষদের কেউ ছিল না।

সভায় অংশ নেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, নির্বাহী সমন্বয়কারী (ভারপ্রাপ্ত) আবুল হাসান রুবেল, বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সদস্য অ্যাডভোকেট হাসনাত কাইয়ুম ও ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমান।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বাবলু। সভা পরিচালনা করেন গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য জুলহাস নাইন বাবু।

/জেডএ/জেএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পদত্যাগের পরামর্শ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পদত্যাগের পরামর্শ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

তালেবানকে সমর্থন দিয়ে আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলার আহ্বান জাফরুল্লাহর

তালেবানকে সমর্থন দিয়ে আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলার আহ্বান জাফরুল্লাহর

এসব রাজনৈতিক কর্মীদের চাকরবাকরের গুণাবলিও নেই: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

এসব রাজনৈতিক কর্মীদের চাকরবাকরের গুণাবলিও নেই: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:২৬

বেসরকারি সংস্থা সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক অধ্যাপক বদিউল আলম মজুমদার বলেছেন, ‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, আমরা কেউই নিরাপদ নই। এটা আমাদের জন্য জেগে উঠার ঘণ্টাধ্বনি। দীর্ঘদিন ধরে বিচারহীনতার সংস্কৃতি, দোষারোপের সংস্কৃতির কারণে অপরাধীরা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে।’

শনিবার (২৩ অক্টোবর) সুজনে’র উদ্যোগে আয়োজিত রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউতে জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে বদিউল আলম এসব কথা বলেন।

দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত ‘সাম্প্রদায়িক হামলা’র প্রতিবাদ, সহিংসতা বন্ধ ও দোষীদের বিচারের দাবিতে অনুষ্ঠিত এ কর্মসূচিতে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট, ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার, জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরাম, বিকশিত নারী নেটওয়ার্ক, গণস্বাক্ষরতা অভিযান, মানবাধিকার উন্নয়ন কেন্দ্র, এবং রিসার্চ অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট অরগানাইজেশন এই মানববন্ধনে যোগ দেয়।

অধ্যাপক মজুমদার বলেন, ‘চট্টগ্রামের মিতু হত্যার পর আমরা দেখলাম ‑ পুলিশ হাজার হাজার মানুষকে গ্রেফতার করেছে, অথচ পরে দেখা গেল সর্ষের মধ্যেই ভূত। এরমধ্যে কত মানুষের জীবন-জীবিকা নষ্ট করে দেওয়া হলো।

সাম্প্রতিক হামলাগুলোর ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাচ্ছি ‑ আমাদের তরুণরা অনেক ক্ষেত্রে সামনের কাতারে ছিল, এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত আশঙ্কাজনক একটি বিষয়। তরুণদের জন্য আমাদের এখনই একটি জাতীয় কর্মসূচি নিতে হবে।’

কর্মসূচিতে মানবাধিকারকর্মী ড. হামিদা হোসেন বলেন, ‘প্রশাসন ও পুলিশ ঠিকমত কাজ করছে না। এখন নাগরিকদের বিভিন্ন সক্রিয় কর্মসূচি নিতে হবে। বিভিন্ন নাগরিক সংগঠনকে একজোট হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন, তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ ইত্যাদি কাজ করতে হবে।’

দ্য মান্থলি ইন্ডিপেন্ডেন্টসে’র সম্পাদক অধ্যাপক চন্দন সরকার বলেন, ‘হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর পরিকল্পিতভাবে হামলা ও নির্যাতন করা হচ্ছে। সব জায়গায় একই ধরনের ঘটনা ঘটছে। এখনই এর বিচার হওয়া দরকার।’

জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরামের সম্পাদক নাছিমা আক্তার জলি বলেন, ‘২০০১ সাল থেকেই এ ধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে, ঘটনার পর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় কিন্তু সেই কমিটির কোনও প্রতিবেদন আলোর মুখ দেখে না, অপরাধীরা ধরা পড়ে না। আমার এখানে দাঁড়িয়েছি যেন একটা সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির বাংলাদেশ আমরা গড়তে পারি যাতে আমাদের আর এভাবে রাস্তায় নামতে না হয়।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন‑ বিকশিত নারী নেটওয়ার্কে’র সভাপতি রাশেদা আক্তার শেলী, গণস্বাক্ষরতা অভিযানে’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার ড. মোস্তাফিজুর রহমান শাহীন প্রমুখ।

/এসটিএস/এমএস/

সম্পর্কিত

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

'সাম্প্রদায়িক হামলা'র প্রতিবাদে গণফোরামের মানববন্ধন

'সাম্প্রদায়িক হামলা'র প্রতিবাদে গণফোরামের মানববন্ধন

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

অভ্যন্তরীণ সমস্যা ভুলে একসঙ্গে সংগ্রামের অনুরোধ মির্জা ফখরুলের

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:০৪

সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোকে নিজেদের অভ্যন্তরীণ সমস্যা ভুলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘যে সমস্ত রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এখানে উপস্থিত আছেন, সবাইকে অনুরোধ করবো- এই মুহূর্তে আমরা আমাদের ছোট-খাটো সমস্যা ভুলে যাই। আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের যে স্বপ্ন ছিল তা আবারও ফিরিয়ে আনার জন্য একটা লড়াই-সংগ্রাম করি।’

শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে অলি আহমদ স্মৃতি সংসদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বিএনপির মহাসচিব এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভায় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকিসহ উপস্থিত রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দকে উদ্দেশ্যে করে এসব আহ্বান জানান ফখরুল।

সব রাজনৈতিক দলকে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় ফিরে আসার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা লড়ছি। আমরা তাদের কাছে এইটুকু আশা করবো, আপনারা বলেছেন গণতন্ত্রের জন্য যে লড়াই, সেই লড়াইয়ে আছেন। আমরা সবাই একসঙ্গে এ লড়াইয়ে আসি, তারপর যার যেটা পাওনা সেটা বুঝে নিবেন।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই দেশকে এখন আওয়ামী লীগ সরকার সর্বনাশ করে ফেলেছে। এরা বিভাজন এমন একটা জায়গায় নিয়ে চলে গেছে যেখানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান মুসলমান সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয়ে যায়। এই বিভাজন এত বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে যে এখন মানুষকে একেবারে আইসোলেট করে ফেলেছে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ এখন একটা গালিতে পরিণত হয়েছে।’

‘সবচেয়ে ভয়ঙ্কর এবং ভয়াবহ অবস্থা বর্তমানে বাংলাদেশে’ উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘নির্মম একটা রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিরাজমান। এখানে মানুষকে হত্যা করতে কোনও সময় লাগে না। মানুষকে নির্যাতন করতে কোনও সময় লাগে না। এখান থেকে আমাদেরকে বেরিয়ে আসতে হবে। সেই চেষ্টা আমরা করছি।’

‘গত ১৪ বছর ধরে আমরা এই ফ্যাসিস্টের বিরুদ্ধে লড়াই করছি’ জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘আমাদের ৩৫ লাখ মানুষের ওপর মিথ্যা মামলা হয়েছে, গায়েবি মামলা হয়েছে, রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা হয়েছে। আমাদের ৫০০ এর উপর নেতাকর্মীকে গুম করে ফেলা হয়েছে, সহস্রাধিক মানুষকে হত্যা করা হয়েছে। তারপরও কিন্তু এখন পর্যন্ত আমরা হাল ছেড়ে দেইনি, আমরা লড়ছি। আমরা সংগ্রাম করছি এবং যে পথে চলতে চাই, সে পথেই চলছি।’

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি প্রমুখ।

/এসও/এমএস/

সম্পর্কিত

নিত্যপণ্যের দাম কমাতে ব্যর্থ সরকার: মির্জা ফখরুল 

নিত্যপণ্যের দাম কমাতে ব্যর্থ সরকার: মির্জা ফখরুল 

জনগণকে প্রতিমুহূর্তে বিভ্রান্ত-বিভাজনের চেষ্টা করছে সরকার: ফখরুল 

জনগণকে প্রতিমুহূর্তে বিভ্রান্ত-বিভাজনের চেষ্টা করছে সরকার: ফখরুল 

সব অপকর্মের জবাবদিহি করতে হবে সরকারকে: মির্জা ফখরুল

সব অপকর্মের জবাবদিহি করতে হবে সরকারকে: মির্জা ফখরুল

পূজামণ্ডপে হামলা সরকারি মদতে: মির্জা ফখরুল

পূজামণ্ডপে হামলা সরকারি মদতে: মির্জা ফখরুল

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৩০

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও  মন্দির সরকারিভাবে পুনর্নির্মাণ করার দাবি জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম। কুমিল্লার ঘটনা ও পরবর্তী ঘটনা তদন্তে বিচার বিভাগীয় কমিটি গঠনের দাবিও জানিয়েছেন তিনি। তবে এসব ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর  ব্যর্থতা রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেশের চলমান সংকট নিরসনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব দাবি জানান। এ সময় দলের মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী উপস্থিত ছিলেন।

সাম্প্রতিক ঘটনার কয়েকটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ   উল্লেখ করে মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা বাংলাদেশের সাধারণ চরিত্র না। ঘটনার সূত্রপাত থেকে পরবর্তী প্রত্যেকটি ঘটনায় প্রশাসনের ব্যর্থতার ছাপ অতি স্পষ্ট। ৫০ বছরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন একটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে এ ধরনের ব্যর্থতা কল্পনাতীত।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, জন প্রশাসনে অতিমাত্রায় রাজনীতি প্রবেশের কারণে সামগ্রিকভাবে দেশের প্রশাসন ব্যবস্থায় এক ধরনের অদক্ষতা তৈরি হয়েছে। যার খেসারত এসব ঘটনা।’

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমালোচনা করে চরমোনাই পীর আরও বলেন, ‘কুমিল্লার ঘটনার পর জনরোষ তৈরি হওয়া খুবই স্বাভাবিক। সেই রোষে মানুষ বিক্ষোভ করবে তাও স্বাভাবিক। বেসামরিক বাহিনীগুলোকে এই ধরনের গণবিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে প্রশিক্ষিত করার কথা। কিন্তু আমরা বিস্ময়ের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, ৫০ বছরের স্বাধীন একটি দেশের বেসামরিক বাহিনী গণবিক্ষোভ দমনে গুলি করার মতো চরম সিদ্ধান্ত সহজেই নিয়ে নিচ্ছে। যার প্রতিফলন নিকট অতিতে ভোলায়, হাটহাজারীতে ও বি-বাড়িয়ায় দেখা গেছে। চাঁদপুরেও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী একই রকমভাবে বিক্ষোভ দমন করতে গিয়ে অন্তত পাঁচ জনকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছে।’

মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির ও সংখ্যালঘুদের ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি সরকারিভাবে পুনর্নির্মাণ করে দিতে হবে এবং চাঁদপুরে পুলিশের গুলিতে যারা নিহত হয়েছেন, তাদের পরিবারসহ ক্ষতিগ্রস্ত সকল ব্যক্তি ও পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘কুমিল্লায় কোরআন অবমাননা, বিভিন্ন স্থানে মন্দির ও মূর্তি ভাঙা, রংপুরে আগুন দেওয়া এবং চাঁদপুরে বিক্ষোভে গুলি করে হত্যা করার বিষয়টি তদন্ত করতে হবে এবং সেই কমিটির তদন্ত রিপোর্ট নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে জনসন্মুখে প্রকাশ করে অপরাধীদের কঠোর শাস্তির মুখোমুখি করতে হবে। ধর্ম অবমাননার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট আইন করতে হবে। সেই আইনের যথাযথ প্রয়োগ করতে হবে। তাহলে কোনও ধরনের ধর্ম অবমাননার ঘটনা ঘটলে জনতা আর সহিংস হয়ে উঠবে না।’

মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম আরও বলেন, ‘কুমিল্লার ঘটনা নিয়ে প্রতিবেশী দেশের একশ্রেণির মিডিয়া, সরকারি দলের রাজনৈতিক নেতৃত্ব ও সুশীল সমাজ যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, তা আধুনিক জাতিরাষ্ট্রের সব ধরনের নীতি-নৈতিকতা ছাড়িয়ে গেছে। তাদের এই ধরনের আগবাড়ানো প্রতিক্রিয়ালশীলতায় এই ঘটনার অন্তরালে আন্তর্জাতিক রাজনীতির নোংরা কৌশলের আভাস পাওয়া যায়।’

আগামী ২৭ অক্টোবর দেশের চলমান সংকট ও তা থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে দেশের সর্ব-মহলের শীর্ষস্থানীয় পীর-মাশায়েখ, বুদ্ধিজীবী, রাজনীতিবিদ, পেশাজীবী ও সমাজকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান চরমোনাই পীর।

/সিএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

জামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

জামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

জনগণকে প্রতিমুহূর্তে বিভ্রান্ত-বিভাজনের চেষ্টা করছে সরকার: ফখরুল 

জনগণকে প্রতিমুহূর্তে বিভ্রান্ত-বিভাজনের চেষ্টা করছে সরকার: ফখরুল 

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

'সাম্প্রদায়িক হামলা'র প্রতিবাদে গণফোরামের মানববন্ধন

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৭

দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে সারা দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংস ঘটনার প্রতিবাদে ও দুষ্কৃতিকারীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে গণফোরাম।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) সকাল দশটায় রাজধানীর শাহবাগ সড়ক দ্বীপে এই সমাবেশ করে সংগঠনটি। সমাবেশ শেষে সংগঠনটি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের 'গণঅনশন ও গণঅবস্থান' কর্মসূচির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে।

গণফোরামের মুখপাত্র এ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, "এই সাম্প্রদায়িক হামলার সময়ে প্রশাসন, সরকার এবং সরকার দলীয় নেতাকর্মীসহ কাউকেই আমরা পাইনি। হামলার সময় পুলিশকে ফোন করলে পুলিশ বলে ওপরের নির্দেশ নেই। অর্থাৎ যারা ভাঙচুর করবে, হত্যা করবে তাদের বিরুদ্ধে সরকার কোনও ব্যবস্থা নেবে না।”

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, "আপনি মুক্তিযুদ্ধের কথা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলেন, বঙ্গবন্ধুর কথা বলেন, স্বাধীনতার কথা বলেন। আপনি সেই চেতনাকে ভূলুন্ঠিত করে সারা বাংলাদেশে অরাজকতা সৃষ্টি করেছেন। ২০০৯ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সাড়ে তিন হাজার ঘটনা ঘটেছে। আপনি একটির বিচার করেন নাই। আপনি বিচারহীনতার যে সংস্কৃতি চালু করেছেন তা একদিন আপনাদেরকেও গ্রাস করবে।”

এসময় তিনি অনতিবিলম্বে সকল ঘটনার সুষ্ঠু বিচারবিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে সকল দোষীদের ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে বিচারের আওতায় আনার আহবান জানান।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন ‑ বীর মুক্তিযোদ্ধা মহসিন রশীদ, যুব গণফোরামের সদস্য সচিব মাহমুদল্লাহ মধু, গণফোরামের ঢাকা মহানগরীর কার্য নির্বাহী সদস্য এ্যাডভোকেট মাহবুবুল ইসলামসহ আরও অনেকে।

/এমএস/

সম্পর্কিত

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

জোটে থাকলেও তারা যোগ দিতে চান বিএনপিতে

জোটে থাকলেও তারা যোগ দিতে চান বিএনপিতে

মনে হচ্ছে ইকবালের বিষয়ে বিএনপি মহাসচিবের কাছে তথ্য আছে: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৩:২৫

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘কুমিল্লার ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ইকবালের বিষয়ে বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্যে অনুমান হয় যে, তার কাছে অধিকতর তথ্য রয়েছে। আপনিই (মির্জা ফখরুল) তথ্য প্রমাণ দিয়ে বলুন- এ কয়দিন ইকবাল কোথায় ছিল।’ শনিবার (২৩ অক্টোবর) তার বাসভবনে ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন তিনি।

কুমিল্লার পূজামণ্ডপে কোরআন শরিফ রাখা ইকবাল হোসেন গ্রেফতারের পর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম প্রশ্ন তুলেছেন- ‘গ্রেফতার হওয়া যুবক এতদিন কোথায় ছিল?’ মির্জা ফখরুলের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আসলে যেকোনও অর্জন বা সাফল্যকে বিতর্কিত করা বিএনপির স্বভাব। প্রতিটি বিষয়ে সন্দেহ করার বিরল প্রজাতির ভাইরাস আক্রান্ত বিএনপি। অবস্থাদৃষ্টে জনমনে প্রশ্ন ও সন্দেহ দেখা দিয়েছে যে, বিএনপির এই অতিপ্রতিক্রিয়া বা আগবাড়িয়ে কথা বলা তাদের নিজেদের অপরাধ লুকোনোর কৌশল কিনা।

বিএনপির দ্বিচারিতা সম্পর্কে দেশের মানুষ ভালো করেই জানেন উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তারা চোরকে বলে চুরি কর, আর গৃহস্থকে বলে সজাগ থাক। 

বিএনপি হিন্দু সম্প্রদায়ের সদস্যদের সবসময় প্রতিপক্ষ ভেবে আসছে বলেও দাবি করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আর বিএনপি এখন সরকারের উপর দায় চাপাচ্ছেন আর হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য মায়াকান্না করছে।

বিএনপি মহাসচিবের কাছে প্রশ্ন রেখে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘২০০১ সালে ক্ষমতায় এসে আপনাদের ভোট না দেওয়ার কথিত অপরাধে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর নির্মম নির্যাতন চালিয়েছিলেন কেন, ঘরবাড়ি পুড়িয়েছিলেন কেন, সম্পদ লুট করেছিলেন, আর নারীরা কেনইবা নির্যাতনের শিকার হয়েছিল?’

‘সরকারের মদদ ছাড়া সাম্প্রদায়িক সমস্যা তৈরি হয় না’- বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তাহলে ২০০১ সালের সমস্যার দায় কি বিএনপি স্বীকার করে নিচ্ছেন?’ বিএনপি নেতারা বিষয়টি স্পষ্ট করবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জানান, ‘গাজীপুরের মেয়র ও গাজীপুর সিটি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম এবং স্থানীয় সরকার নির্বাচনসহ অন্যান্য আরো কিছু সাংগঠনিক শৃঙ্খলা বিরোধী উপস্থাপনীয় অভিযোগ আগামী ১৯ নভেম্বর শুক্রবার বিকাল ৪টায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভায় উত্থাপিত হবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, সভায় রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক আলোচনার পাশাপাশি দলীয় আদর্শ এবং শৃঙ্খলাবিরোধী বক্তব্যের জন্য গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে প্রদত্ত শোকজ নোটিশের উপর আলোচনা ও সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

/পিএইচসি/ইউএস/

সম্পর্কিত

রাজশাহী-রংপুর বিভাগে ইউপি চেয়ারম্যান পদে আ. লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

রাজশাহী-রংপুর বিভাগে ইউপি চেয়ারম্যান পদে আ. লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

মনোনয়ন ফরমে অ্যানালগই রয়ে গেলো আওয়ামী লীগ

মনোনয়ন ফরমে অ্যানালগই রয়ে গেলো আওয়ামী লীগ

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পদত্যাগের পরামর্শ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পদত্যাগের পরামর্শ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

তালেবানকে সমর্থন দিয়ে আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলার আহ্বান জাফরুল্লাহর

তালেবানকে সমর্থন দিয়ে আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলার আহ্বান জাফরুল্লাহর

এসব রাজনৈতিক কর্মীদের চাকরবাকরের গুণাবলিও নেই: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

এসব রাজনৈতিক কর্মীদের চাকরবাকরের গুণাবলিও নেই: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

পরীমণি সুন্দরী, তার জামিন পাওয়ার অধিকার আছে: জাফরুল্লাহ

পরীমণি সুন্দরী, তার জামিন পাওয়ার অধিকার আছে: জাফরুল্লাহ

রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের দায় আমলাদের: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের দায় আমলাদের: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

‘অগ্নিকাণ্ডে তদন্ত কমিটি ছাড়া সরকার জোরালো ভূমিকা রাখছে না’

‘অগ্নিকাণ্ডে তদন্ত কমিটি ছাড়া সরকার জোরালো ভূমিকা রাখছে না’

বিএনপি নেতাদের সামনেই জাফরুল্লাহকে শাসালেন ছাত্রদল নেতা

বিএনপি নেতাদের সামনেই জাফরুল্লাহকে শাসালেন ছাত্রদল নেতা

দেশের ১২ কোটি লোকের জন্মতারিখ ঠিক নেই : জাফরুল্লাহ

দেশের ১২ কোটি লোকের জন্মতারিখ ঠিক নেই : জাফরুল্লাহ

‘সালামের মতো ১০০ জন জীবন দিলেই সরকারের পতন হবে’

কর্মীদের জন্য তহবিল গঠনের প্রস্তাব‘সালামের মতো ১০০ জন জীবন দিলেই সরকারের পতন হবে’

সর্বশেষ

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

© 2021 Bangla Tribune