X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

স্বাস্থ্য ও জীবন বিমার আওতায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০২

স্বাস্থ্য ও জীবন বিমা প্রকল্পের আওতায় এলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল নিয়মিত শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় বাৎসরিক মাত্র ২৭০ টাকা প্রিমিয়াম প্রদান করে এখন থেকে তারা তালিকাভুক্ত বিভিন্ন হাসপাতালে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের সুযোগ পাবেন।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দফতরের উপ-পরিচালক রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

এতে আরও জানানো হয়, প্রতিবছর ভর্তির সময় শিক্ষার্থীদের এককালীন বাৎসরিক মাত্র ২৭০ টাকা প্রিমিয়াম প্রদান করতে হবে। চলমান শিক্ষাবর্ষে ভর্তির সময় যেসকল নিয়মিত শিক্ষার্থী বার্ষিক প্রিমিয়ামের টাকা দিতে পারেননি, তারা https://student.eis.du.ac.bd ওয়েবসাইটে লগইন-এর মাধ্যমে ‘health insurance’ বাটনে ক্লিক করে প্রিমিয়ামের টাকা জমা দিতে পারবেন। টাকা জমা দেওয়ার পর শিক্ষার্থীরা বিমা প্রিমিয়ামের একটি জমা রশিদ পাবেন। এটি তাদের সংরক্ষণ করতে হবে। বিমা সুবিধা দাবির ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সঙ্গে প্রিমিয়াম জমা রশিদ সংযুক্ত করতে হবে।

প্রত্যেক শিক্ষার্থী হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে বার্ষিক সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা বিমা সুবিধা পাবেন উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এরমধ্যে হাসপাতালে থাকাকালীন কেবিন বা ওয়ার্ড ভাড়া, হাসপাতাল সেবা, অস্ত্রোপচার জনিত ব্যয়, চিকিৎসকের পরামর্শ ফি, ওষুধ ও পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিল বাবদ দৈনিক সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা চিকিৎসা ব্যয় পাওয়া যাবে। বহির্বিভাগ চিকিৎসার ক্ষেত্রে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য বার্ষিক ১০ হাজার টাকা বরাদ্দ রয়েছে। এরমধ্যে বহির্বিভাগ পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যয় অর্ন্তর্ভুক্ত থাকবে এবং বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ফি বাবদ প্রতি ব্যবস্থাপত্রে সর্বোচ্চ ৫শ' টাকা পাওয়া যাবে।

‘কোনও শিক্ষার্থীর বয়সসীমা ২৮ বছর অতিক্রম করলে অথবা ছাত্রত্ব হারালে বিমা সুবিধা পাওয়া যাবে না বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট https://www.du.ac.bd থেকে বিমা সংক্রান্ত সকল শর্ত ও বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে। এই ওয়েবসাইট থেকে শিক্ষার্থীরা ‘Claim Form’ ও ‘Gurantee of Payment (GOP) Request Form’ সংগ্রহ করতে পারবেন। বিমা সংক্রান্ত কাজের জন্য শিক্ষার্থীদের নিজ বিভাগ বা ইনস্টিটিউটের অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

শহীদ শেখ রাসেল দিবস পালন করবে ঢাবি

শহীদ শেখ রাসেল দিবস পালন করবে ঢাবি

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:১২

করোনা পরিস্থিতিতে দেড় বছর বন্ধ থাকার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) আজ রবিবার (১৭ অক্টোবর) থেকে সশরীরে ক্লাস শুরু হচ্ছে ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী কমিটি সিন্ডিকেট সভায় স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে, গত ৭ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের জরুরি সভায় সশরীরে ক্লাস শুরুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ৫ অক্টোবর অনার্স চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের জন্য এবং ১০ অক্টোবর সব আবাসিক শিক্ষার্থীদের জন্য হলগুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তও হয় সভায়।

আজ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘স্বাস্থ্যবিধি’ মেনে চলবে সশরীরে পাঠদান ও পরীক্ষা কার্যক্রম। তবে সশরীরে ক্লাসের পাশাপাশি কোনও বিভাগ বা ইনস্টিটিউট চাইলে সর্বোচ্চ ৪০ শতাংশ ক্লাস অনলাইনেও নিতে পারবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অনলাইন ও অফলাইন সমন্বয়ে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে। এক্ষেত্রে ন্যূনতম ৬০ ভাগ ক্লাস সশরীরে নিতে হবে। সেশনজটে কাটাতে ছয় মাসের সেমিস্টার চার মাসে সম্পন্ন করার কথাও বলা হয়েছে।

মানতে হবে যেসব নিয়ম

বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে উপস্থিত হয়ে ক্লাস ও পরীক্ষায় অংশ নিতে মানতে হবে বেশ কিছু নিয়ম। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ‑

* সকলকে বাধ্যতামূলকভাবে নিয়মিত ও সার্বক্ষণিক মাস্ক নাক-মুখ ঢেকে পরিধান করতে হবে।

* স্বাস্থ্যবিধি পালনের জন্য সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

* স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী পরস্পরের কাছ থেকে কমপক্ষে ১ মিটার (৩ ফুট) শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

* শ্রেণিকক্ষে স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে বসার ব্যবস্থা করতে হবে।

* ল্যাবে কাজের ক্ষেত্রে ল্যাবরেটরির ধারণ ক্ষমতা, বসার ব্যবস্থা, কাজের বিন্যাস এবং যাতায়াতের পথযুক্ত নকশা তৈরি করতে হবে ও সর্বত্র প্রদর্শন করতে হবে।

* সমস্ত নির্দেশনাবলী শিক্ষার্থীদের আগেই জানাতে হবে।

* শিক্ষার্থীদের ছোট ছোট দলে ভাগ করে ল্যাবে প্রতিটি শিক্ষার্থীর অবস্থান চিহ্নিত করতে হবে।

* ব্যবহৃত পিপিই যথাযথ ব্যবস্থাপনা ও অপসারণের ব্যবস্থা করতে হবে।

* পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এবং শৌচাগারগুলো নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।

* কোভিড-১৯ লক্ষণ থাকলে বাসা বা হলের কক্ষে থাকতে হবে ও কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

* লক্ষণযুক্ত ব্যক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের যানবাহনে চলাচলের সময় অবশ্যই সার্বক্ষণিক মাস্ক পরতে হবে।

* বাসে ওঠার আগে দেহের তাপমাত্রা পরিমাপ বাধ্যতামূলক করতে হবে।

* বাস এবং অন্যান্য যানবাহনে প্রবেশ ও বহির্গমন পথে ভিড় এড়িয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

* যানবাহনে প্রবেশ ও বহির্গমণের জন্য আলাদা দরজা নির্ধারণ করতে হবে।

* শুধু ক্লাস থাকলেই নিয়মিত ছাত্র-ছাত্রীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের যানবাহন ব্যবহার করে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ এবং প্রস্থান করতে পারবে।

* সম্ভব হলে গণপরিবহন ব্যবহার পরিহার করতে হবে।

/এমএস/

সম্পর্কিত

শহীদ শেখ রাসেল দিবস পালন করবে ঢাবি

শহীদ শেখ রাসেল দিবস পালন করবে ঢাবি

স্বাস্থ্য ও জীবন বিমার আওতায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

স্বাস্থ্য ও জীবন বিমার আওতায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

সংস্কারকাজ শেষ না করেই খুলছে রাবির হল

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২৩:০৬

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো শিক্ষার্থীদের জন্য রবিবার থেকে খুলে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু শনিবার (১৬ অক্টোবর) পর্যন্ত সংস্কারকাজ শেষ করতে পারেনি  কয়েকটি হল। ফলে হলে উঠে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তিতে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এর আগে গত ৩০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের এক সভায় হল খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ ও হিসাব শাখা সূত্রে জানা যায়, বিশ্বদ্যিালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে রাবি ১৭টি আবাসিক হলসহ ক্যাম্পাসের সার্বিক সংস্কারের জন্য ৫ কোটি ১০ লাখ টাকার বরাদ্দ দেওয়া হয়। যার পরিপ্রেক্ষিতে হলগুলোর কাছ থেকে চাহিদা নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। সে অনুযায়ী প্রকৌশল দফতরের মাধ্যমে প্রত্যেক হলের সংস্কারের জন্য টেন্ডার দেওয়া হয়। কিন্তু এফসি ও সিন্ডিকেট না হওয়ায় কাজ শুরু হতে বিলম্ব হয়।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে সংস্কারের কাজ চলছে পুরোদমে। হলের সামনে বেসিন বাসনোর কথা থাকলেও শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কয়েকটি হলে বেসিন বসানোর কাজ হয়নি। এ ছাড়া প্রায় সব হলের রিডিং রুম স্পেস, ডাইনিং ক্যানটিন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও ধোয়ামোছা কাজ শেষ হয়েছে। কয়েকটি হলে নতুন করে চুন ও রঙ করার কাজ চলছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা একে ফজলুল হক হলে গিয়ে দেখা যায়, হলের বিভিন্ন জায়গায় চুনের কাজ চলছে। দোতলায় ধোয়ামোছার কাজও চলছে। নিচতলায় ঝাড়ু দেওয়া হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু হলেও অনেকটা একই চিত্র।

সন্ধ্যায় ফের হলগুলো ঘুরে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুল লতিফ হল ও শহীদ শামসুজ্জোহা হলের সামনে বেসিন বসানোর কাজ এখনও শেষ হয়নি।

জানতে চাইলে আবাসিক হল প্রাধ্যক্ষ কমিটির আহ্বায়ক ড. জুলকার  নায়েন বলেন, আবাসিক হলগুলোর মধ্যে ছাত্রদের রুমের ভেতরের অবস্থা এখনও আমরা জানতে পারিনি। তবে বিভিন্ন কমন স্পেস, ওয়াস রুম, ডাইনিং-ক্যানটিন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ শেষ হয়েছে। তবে বড় বাজেটে কাজগুলো টেন্ডার প্রক্রিয়ার বিলম্বের কারণে শুরু হতে একটু বিলম্ব হয়েছে। শিক্ষার্থীরা এলে দ্রুত কাজগুলো সম্পন্ন করতে পারবো।

আবাসিক হলে শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ পরামর্শ:

আবাসিক হলের শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ দফা পরামর্শ দিয়েছে প্রাধ্যক্ষ পরিষদ। যার মধ্যে অন্তত একডোজ টিকা গ্রহণ গ্রহণ করতে হবে, টিকার রেজিস্ট্রেশন যারা এখনও করেনি হলে ওঠার আগে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে, টিকা গ্রহণ সনদের দুই কপি সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে, যেসব শিক্ষার্থী এখনও টিকা গ্রহণ করেনি কিন্তু সুরক্ষা অ্যাপে বা ইউজিসির ইউনিভ্যাকের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করেছে তাদের রেজিস্ট্রেশনের দুই কপি সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে, ক্যাম্পাসে, হলে বা ক্লাসে অবস্থানকালে সবাইকে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, হলে বা ক্লাস কক্ষে প্রবেশের আগে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

তিন শিফটে চলছে রাবির ‌‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা 

তিন শিফটে চলছে রাবির ‌‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা 

সশরীরে ক্লাস নেওয়ার ঘোষণা রাবির চার শিক্ষকের

সশরীরে ক্লাস নেওয়ার ঘোষণা রাবির চার শিক্ষকের

করোনামুক্ত হয়েও রুয়েটের সাবেক ভিসির মৃত্যু

করোনামুক্ত হয়েও রুয়েটের সাবেক ভিসির মৃত্যু

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

কাল থেকে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু

‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৮

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ প্রথম সেমিস্টারে শিক্ষার্থী ভর্তি করতে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি (জিএসটি) পদ্ধতিতে আয়োজিত প্রথমবারের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে রবিবার (১৭ অক্টোবর)। দুপুর ১২টা থেকে সারাদেশে একযোগে ২৬ পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন এক লাখ ৩১ হাজার ৯০১ পরীক্ষার্থী।  

ভর্তি পরীক্ষা কমিটি সূত্রে জানা যায়, এবার বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগসহ তিন ইউনিটে রয়েছে ২২ হাজার ১৩ আসন। আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন দুই লাখ ৩২ হাজার ৪৫৫ পরীক্ষার্থী। হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে প্রতিযোগিতা করবেন ১১ জন। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে প্রায় ১২ হাজার সিটের বিপরীতে ২৬টি আসনে এক লাখ ৩১ হাজার ৯০১ জন পরীক্ষায় বসছেন।

এ ছাড়া আগামী ২৪ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিটে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার আসনের বিপরীতে ৬৭ হাজার ১১৭ জন এবং ‘সি’ ইউনিটে প্রায় সাড়ে তিন হাজার আসনের বিপরীতে ৩৩ হাজার ৪৩৬ শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন।

পরীক্ষার বিষয়সমূহ

জিএসটির গুচ্ছ পদ্ধতিতে উচ্চ মাধ্যমিকের পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা নেওয়া হবে। যেখানে বিজ্ঞান বিভাগের ক্ষেত্রে বাংলায় ১০, ইংরেজিতে ১০, রসায়ন ২০, পদার্থবিজ্ঞান ২০, বাকি ৪০ নম্বর থাকবে আইসিটিতে। মানবিক বিভাগের ক্ষেত্রে বাংলায় ৪০, ইংরেজিতে ৩৫ ও আইসিটিতে ২৫ নম্বর এবং বাণিজ্য বিভাগের ক্ষেত্রে হিসাববিজ্ঞানে ২৫, ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনায় ২৫, বাংলায় ১৩, ইংরেজিতে ১২ ও আইসিটিতে ২৫ নম্বর থাকবে। পরীক্ষায় প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা যাবে শূন্য দশমিক ২৫ নম্বর।

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়।

‘এ’ ইউনিটের আসন বিন্যাস

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৭১০, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩১৬৩,  জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০৯১৫, শেরে-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫০০০, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩০০০, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১১৫৩৯,  ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২০০, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭১০৮, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭৪৯৩, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬০০০, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬০৪৫, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০০০, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭০৮৫, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭০২৫, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৮৫১৩, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৪৬২, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৫০৫, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭৬৮৮, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬০০০, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪০০০, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৬০০, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৯৮০, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬৯১২, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৪৫৮, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৮০০ এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭০০ পরীক্ষার্থী অংশ নেবে।

এ ছাড়া ‘বি’ এবং ‘সি’ ইউনিটে ২২ কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবার গুচ্ছ পদ্ধতিতে বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আলাদা পরীক্ষা নেওয়া হবে না। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিজ নিজ সার্কুলার ও নিয়ম অনুসারে বিভাগ পরিবর্তন করে ভর্তির সুযোগ দেবে।

পরীক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে আয়োজকদের মন্তব্য

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমরা শতভাগ প্রস্তুত পরীক্ষা নেওয়ার জন্য। আগেই যথাযথ নিরাপত্তার সঙ্গে সব পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র, উত্তরপত্র ও উপস্থিতি তালিকা পাঠিয়ে দিয়েছি। এতে পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও পুলিশ সহায়তা করছে।  সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশ্নপত্রের ট্রাংকে জিপিএস ট্র্যাকিং সিস্টেম লাগানো হয়েছে, যাতে প্রশ্নপত্র নিরাপদ থাকে।

শিগগিরই ফল প্রকাশ করা হবে উল্লেখ করে শাবি উপাচার্য বলেন, পরীক্ষা পরবর্তী ২-৩ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের চিন্তাভাবনা রয়েছে। ফলাফল র‌্যাংকের ভিত্তিতে ফল প্রকাশ না করে ১০০ নম্বরের মধ্যে পরীক্ষার্থীর প্রাপ্ত নম্বর (স্কোর) প্রকাশ করা হবে। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পৃথক সার্কুলার ও শর্তের ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ে পছন্দের বিষয়ে ভর্তির আবেদন করতে পারবে শিক্ষার্থীরা।

বিভাগ পরিবর্তন নিয়ে শাবি উপাচার্য বলেন, বিভাগ পরিবর্তনে কোনও পরীক্ষা হচ্ছে না। তবে এক্ষেত্রে ২০টি গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পরবর্তীতে নীতিমালা প্রণয়ন করবে। শর্ত মেনে শিক্ষার্থীরা বিভাগ পরিবর্তন করে পছন্দের বিষয়ে পড়তে পারবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

রাবির ‘বি’ ইউনিটের সংশোধিত ফলেও ‘সমস্যা’

রাবির ‘বি’ ইউনিটের সংশোধিত ফলেও ‘সমস্যা’

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল রবিবার

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল রবিবার

যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি করতে গিয়ে শাবি শিক্ষকের ‘আত্মহত্যা’ 

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২০

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়াতে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করতে গিয়ে আত্মহত্যা করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক। ওই শিক্ষকের নাম মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান। তিনি মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। 

শনিবার (১৬ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় ভার্জিনিয়াতে তিনি আত্মহত্যা করেন বলে জানিয়েছেন শাবির প্রক্টর ড. আলমগীর কবীর। 

প্রক্টর বলেন, মাহফুুজুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক। তিনি শিক্ষাছুটি নিয়ে ভার্জিনিয়া টেক ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডিতে অধ্যয়নরত ছিলেন। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। তবে কি কারণে আত্মহত্যা করেছেন তা এখনও জানা যায়নি। যুক্তরাষ্ট্র পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছেন। পরবর্তীতে বিস্তারিত জানা যাবে। 

এদিকে, এই শিক্ষকের মৃত্যুতে শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা শোক প্রকাশ করেছেন। মাহফুজুর রহমান শিক্ষাছুটির আগ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার লাকসামে। তিনি অবিবাহিত ছিলেন। দুই মাস আগে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষাছুটি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান।

/এএম/

সম্পর্কিত

৪ বছরে চতুর্থ সেমিস্টার, কুবি ছাত্রের আত্মহত্যার হুমকি

৪ বছরে চতুর্থ সেমিস্টার, কুবি ছাত্রের আত্মহত্যার হুমকি

কোচিং সেন্টারে ঝুলছিল জবি শিক্ষার্থীর লাশ

কোচিং সেন্টারে ঝুলছিল জবি শিক্ষার্থীর লাশ

খুলছে হাবিপ্রবির হল, থাকছে না গণরুম

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৯

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) ৫৮তম একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খুলছে সোমবার (১৮ অক্টোবর) থেকে। তবে আবাসিক হলগুলো পর্যায়ক্রমে খোলা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এক্ষেত্রে হলে উঠতে হলে শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা নিতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অফিস থেকে জানা যায়, সোমবার থেকে প্রথম দিকে তৃতীয়, চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা হলে উঠতে পারবেন (শর্তসাপেক্ষে)। এরপর পর্যায়ক্রমে সব আবাসিক শিক্ষার্থীদের হলে উঠানো হবে। এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল খোলার আগে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে হল প্রশাসন। 

ডরমেটরি-২ হলের হল সুপার অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রব্বানী বলেন, একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী সোমবার থেকে পর্যায়ক্রমে হলগুলো খুলে দেওয়া হবে। তবে করোনা পরিস্থিতিতে উপাচার্যের নির্দেশে আবাসিক হলে আপাতত আমরা গণরুম রাখছি না। সেইসঙ্গে যাদের ছাত্রত্ব নেই তারাও হলে অবস্থান করতে পারবে না। ডরমেটরি-২ হলে প্রবেশের ক্ষেত্রে প্রবেশমুখে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা থাকবে। একসঙ্গে ৮০ জন শিক্ষার্থী যেন পড়াশোনা করতে পারে সেজন্য হলে একটি রিডিং রুমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য ডাইনিং এবং ক্যানটিনের ব্যবস্থাও থাকবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের হল সুপার সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. হাসানুর রহমান জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৮তম একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমাদের হল আগামী সোমবার থেকে খুলে দিতে যাচ্ছি। ওই দিন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত হলে প্রবেশ করতে পারবে। তবে সেদিন শুধুমাত্র মাস্টার্স এবং চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা হলে প্রবেশের সুযোগ পাবে। এ ছাড়া হলে প্রবেশের আগে কমপক্ষে একডোজ টিকা নেওয়ার কার্ড দেখাতে হবে। তবেই শিক্ষার্থীদের হলে প্রবেশ করানো হবে।

ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল সুপার সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, হলের সংস্কারকাজের জন্য যে নির্দিষ্ট অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল সে অনুযায়ী কাজ করেছি। সংস্কারকাজের অংশ হিসেবে প্রত্যেক ওয়াশরুমে টাইলস বসানো হয়েছে। নতুন করে স্যানিটারি ফিটিংস লাগানো হয়েছে। প্রত্যেক রুমের রঙ করা হয়েছে। যেহেতু আমাদের হল আগামী মঙ্গলবার থেকে খুলবে সে জন্য কাজগুলো দ্রুত শেষ করার চেষ্টা চলছে।

শেখ রাসেল হল সুপার সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রাশেদুল ইসলাম বলেন, আমাদের হল আগামী ২০ অক্টোবর থেকে খুলে দেওয়া হবে। হল খুলে দেওয়ার পূর্বপ্রস্তুতির অংশ হিসেবে গুগল ডক ফরমের মাধ্যমে টিকা নেওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য নেওয়া হয়েছে। সরকারি অর্থায়নে এবং ইউজিসির নির্দেশনায় হলের সংস্কারকাজ সম্পন্ন হয়েছে। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের সময় বরণ করে নিতে আমাদের কিছু পরিকল্পনা রয়েছে। আশা করি, শিক্ষার্থীরা হলে উঠলে নতুন কিছু দেখবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

সংস্কারকাজ শেষ না করেই খুলছে রাবির হল

সংস্কারকাজ শেষ না করেই খুলছে রাবির হল

‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি করতে গিয়ে শাবি শিক্ষকের ‘আত্মহত্যা’ 

যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি করতে গিয়ে শাবি শিক্ষকের ‘আত্মহত্যা’ 

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

ঢাবিতে আজ থেকে শুরু সশরীরে ক্লাস

শহীদ শেখ রাসেল দিবস পালন করবে ঢাবি

শহীদ শেখ রাসেল দিবস পালন করবে ঢাবি

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

ঢাবি হলে প্রথম-দ্বিতীয়-তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা (ফটোস্টোরি)

ঢাবি হলে প্রথম-দ্বিতীয়-তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা (ফটোস্টোরি)

ঢাবির চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, প্রতি আসনে লড়ছেন ১১৫ জন

ঢাবির চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, প্রতি আসনে লড়ছেন ১১৫ জন

ডাকসু নির্বাচন দিয়ে সুস্থ ধারার ছাত্র রাজনীতি বিকশিত হতে দিন: নুর

ডাকসু নির্বাচন দিয়ে সুস্থ ধারার ছাত্র রাজনীতি বিকশিত হতে দিন: নুর

দেড় বছর পর আবারও মুখরিত মধুর ক্যান্টিন

দেড় বছর পর আবারও মুখরিত মধুর ক্যান্টিন

ঢাবির হলে ‘গণরুম সংস্কৃতি’ কি বন্ধ হবে?

ঢাবির হলে ‘গণরুম সংস্কৃতি’ কি বন্ধ হবে?

সর্বশেষ

বাঙালিদের শুভেচ্ছা নিয়ে জাপানে রওয়ানা দেন বঙ্গবন্ধু

বাঙালিদের শুভেচ্ছা নিয়ে জাপানে রওয়ানা দেন বঙ্গবন্ধু

বদনজর থেকে শিশুকে বাঁচাতে টিপ দেওয়া যাবে?

বদনজর থেকে শিশুকে বাঁচাতে টিপ দেওয়া যাবে?

ফেনীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, আহত ৩০

ফেনীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, আহত ৩০

ফরিদা মজিদের কথা

ফরিদা মজিদের কথা

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

© 2021 Bangla Tribune