সেকশনস

রাখাইনে সেফ জোন প্রতিষ্ঠা রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে উৎসাহিত করবে

আপডেট : ২৫ আগস্ট ২০২০, ১০:১৬

রোহিঙ্গা ক্যাম্প (ছবি: টেকনাফ প্রতিনিধি) ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর থেকে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। রাখাইনে তাদের নিরাপদ ও সম্মানজনক প্রত্যাবাসনের জন্য একটি সেফ জোন বা নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করা জরুরি এবং এজন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসতে হবে বলে মনে করেন সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র ফেলো মোহাম্মাদ শহীদুল হক।

শহীদুল হক বলেন, ‘আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের তথ্য অনুযায়ী, রোহিঙ্গাদের ফেরত যাওয়া এখনও নিরাপদ নয়। সেজন্য সেফ জোন প্রতিষ্ঠা করা জরুরি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেফ জোন প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দিয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সবাই মানবাধিকার রক্ষার কথা বলে, কিন্তু বাংলাদেশ মানবাধিকার রক্ষা করে দেখিয়েছে।’

সেফ জোন কী

কোনও দেশে যদি সংঘাতময় পরিস্থিতি বিরাজ করে তবে ওই দেশের মধ্যে একটি অঞ্চলকে নিরাপদ বলে ঘোষণা করা হয়; যাতে করে যারা উদ্বাস্তু হয়েছে, তারা নিজ দেশে ফিরে যেতে উৎসাহ বোধ করে।

শহীদুল হক বলেন, ‘এটি দুইভাবে করা যায়। প্রথমত, বিবদমান পক্ষগুলোর মধ্যে সমঝোতার ভিত্তিতে এবং নিরাপত্তা পরিষদের রেজুলেশনের মাধ্যমে।’

এক্ষেত্রে মিয়ানমার সেফ জোন করতে আগ্রহী নয় জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নিরাপত্তা পরিষদ এর আগে ১৯৯১ সালে কুর্দিস জনগণের জন্য ইরাকে একটি সেফ জোন তৈরি করেছিল।’

সেফ জোন কেন দরকার

দীর্ঘদিন ধরে রোহিঙ্গারা নির্যাতনের শিকার এবং এ কারণে আন্তর্জাতিক সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি না পেলে তারা রাখাইনে যেতে আগ্রহী হবে না। এ বিষয়ে সাবেক এই পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘মিয়ানমার সরকার এখনও রাখাইনে বিভিন্ন ধরনের সামরিক অপারেশন চালাচ্ছে; যা তাদের জন্য ভীতিকর। এ পরিস্থিতিতে আসিয়ান, জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থাসহ অন্যান্য দেশ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসতে হবে, যাতে করে রোহিঙ্গারা আশ্বস্ত হয় যে, তাদের ওপর নির্যাতন হবে না।’

রাখাইনের মংদু, বুথিডং ও রাথিডংয়ে তিনটি ছোট সেফ জোন করা সম্ভব জানিয়ে শহীদুল হক বলেন, ‘এই তিনটি অঞ্চল পাশাপাশি এবং এদের মধ্যে যোগাযোগের জন্য সেফ করিডর প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব, যাতে করে এক অঞ্চলের মানুষ অন্য অঞ্চলে যেতে পারে।’

সেফ জোনে খাদ্য, স্বাস্থ্যসহ অন্যান্য মৌলিক সুবিধা বিদ্যমান থাকা জরুরি এবং এর ফলে সেখানে থাকতে রোহিঙ্গারা উৎসাহ বোধ করবে বলে জানান শহীদুল।

যতদিন রাখাইনে স্বাভাবিক অবস্থা ফেরত না আসছে, ততদিন রোহিঙ্গারা সেফ জোনে থাকতে পারবে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তারা আবার নিজেদের আবাসস্থলে ফেরত যেতে পারবে।

রেড ক্রস, ইউএনএইচসিআর, ইউএনডিপিসহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থাকে সেফ জোন দেখাশোনা করার কাজে নিয়োজিত করা সম্ভব জানিয়ে শহীদুল বলেন, ‘মিয়ানমার আসিয়ানের সদস্য এবং তারাও এখানে অংশগ্রহণ করতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘মানবাধিকার রক্ষা ও রোহিঙ্গাদের ভবিষ্যতের জন্য সেফ জোন করার বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের এগিয়ে আসার বিকল্প নেই। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বোঝা উচিত, ফেরত যাওয়ার জন্য রোহিঙ্গাদের সারাজীবন অপেক্ষা করতে হবে, এ ধরনের একটি অপশন কারও জন্য ভালো হবে না।’

/আইএ/এমএমজে/

সম্পর্কিত

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

রোহিঙ্গাদের দক্ষ করে তুলতে যেসব উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

রোহিঙ্গাদের দক্ষ করে তুলতে যেসব উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

যুক্তরাষ্ট্রকে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদ ও বর্ণবাদ নিরসনে মনোযোগী হতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রকে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদ ও বর্ণবাদ নিরসনে মনোযোগী হতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

ত্রিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পররাষ্ট্র সচিবের আলোচনা

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনত্রিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পররাষ্ট্র সচিবের আলোচনা

ডিজির ওপর চটলেন স্বাস্থ্য সচিব

ডিজির ওপর চটলেন স্বাস্থ্য সচিব

গতানুগতিক পদ্ধতিতে এগিয়ে যাওয়া যাবে না: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

গতানুগতিক পদ্ধতিতে এগিয়ে যাওয়া যাবে না: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

২৫ জানুয়ারির মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যাবে ‘সুরক্ষা’

২৫ জানুয়ারির মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যাবে ‘সুরক্ষা’

সরকার শিগগিরই জনগণকে টিকা দিতে পারবে: রাষ্ট্রপতি

সরকার শিগগিরই জনগণকে টিকা দিতে পারবে: রাষ্ট্রপতি

সর্বশেষ

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

কুমিল্লায় চুরি-ছিনতাইসহ বেড়েছে ৮ অপরাধ

কুমিল্লায় চুরি-ছিনতাইসহ বেড়েছে ৮ অপরাধ

সিটি নির্বাচনের আগে সিএমপির ৫ থানায় রদবদল

সিটি নির্বাচনের আগে সিএমপির ৫ থানায় রদবদল

সিআরইউ-এর সভাপতি হাসিব, সম্পাদক জাহাঙ্গীর

সিআরইউ-এর সভাপতি হাসিব, সম্পাদক জাহাঙ্গীর

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দেবেন মুজিববর্ষের উপহার

২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দেবেন মুজিববর্ষের উপহার

বকশীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুলছাত্র নিহত

বকশীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুলছাত্র নিহত

ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ, ৭ বছর পর গ্রেফতার

ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ, ৭ বছর পর গ্রেফতার

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

রোহিঙ্গাদের দক্ষ করে তুলতে যেসব উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

রোহিঙ্গাদের দক্ষ করে তুলতে যেসব উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

রোহিঙ্গাদের দক্ষ করে তুলতে যেসব উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

রোহিঙ্গাদের দক্ষ করে তুলতে যেসব উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

যুক্তরাষ্ট্রকে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদ ও বর্ণবাদ নিরসনে মনোযোগী হতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রকে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদ ও বর্ণবাদ নিরসনে মনোযোগী হতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

ত্রিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পররাষ্ট্র সচিবের আলোচনা

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনত্রিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পররাষ্ট্র সচিবের আলোচনা

ডিজির ওপর চটলেন স্বাস্থ্য সচিব

ডিজির ওপর চটলেন স্বাস্থ্য সচিব

গতানুগতিক পদ্ধতিতে এগিয়ে যাওয়া যাবে না: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

গতানুগতিক পদ্ধতিতে এগিয়ে যাওয়া যাবে না: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.