X
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
১৯ মাঘ ১৪২৯

বাজারে যাওয়ার পথে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
০৯ নভেম্বর ২০২২, ১২:০৯আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০২২, ১২:০৯

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে শাহ জাহান আলি (৬৫) নামে এক বৃদ্ধকে প্রতিপক্ষ পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) রাত ১০টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত শাজাহান উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোবরা গ্রামের মৃত ইয়াকুব মিস্ত্রির ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বালু কেনাবেচা নিয়ে একই এলাকার মৃত গনজের আলীর ছেলে আইচ উদ্দিনের সঙ্গে বিরোধ চলছিল শাহ জাহানের। সোমবার সন্ধ্যায় আইচের বাড়িতে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে এ বিরোধের মীমাংসা হয়। মঙ্গলবার সকালে শাহ জাহান বাজারে যাচ্ছিলেন। সে সময় আইচ, তার ছেলে নয়ন ও হৃদয়সহ কয়েকজন মিলে শাহ জাহানকে বাঁশ দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে।

স্থানীয়রা গুরুতর আহত শাহজাহানকে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাত ৯টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিহত শাহ জাহানের ছেলে সজীব বলেন, ‘বালু নিয়ে আইচ উদ্দিনের সঙ্গে আমাদের বিরোধ ছিল। সোমবার সন্ধ্যায় তার বাড়িতে সালিশ বৈঠকে সব মিটমাট করা হয়। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে মঙ্গলবার সকালে বাবার ওপর আইচ ও তার ছেলেরা বাঁশের লাঠি এবং হাতুড়ি নিয়ে হামলা চালায়। এলোপাতাড়ি মারপিট করে আমার বাবাকে। বাবাকে ওরা নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমরা থানায় মামলা করবো। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।’

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহসীন হোসাইন জানান, এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের ধরতে অভিযান চলছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ হত্যার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

/এমএএ/
সর্বশেষ খবর
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
মধ্যরাতে জাবি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
মধ্যরাতে জাবি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
সর্বাধিক পঠিত
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ