X
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২০ মাঘ ১৪২৯

নয়ন হত্যার জবাব পুলিশকে দিতে হবে: রুমিন ফারহানা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
২৩ নভেম্বর ২০২২, ১৭:১২আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২২, ১৭:২৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে গুলিতে নিহত ছাত্রদল নেতা রফিকুল ইসলাম নয়নের বাড়িসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানাসহ নেতাকর্মীরা।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে তারা বাঞ্ছারামপুর উপজেলার সোনারামপুর ইউনিয়নের চরশিবপুর গ্রামে নয়নের বাড়িতে যান। এ সময় তারা তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের সান্ত্বনা দেন।

সেখানে রুমিন ফারহানা বলেন, ‘সেদিন শান্তিপূর্ণভাবে বাঞ্ছারামপুরে লিফলেট বিতরণ করা হয়েছিল। কোনও ধরনের উসকানি ছিল না। এর মধ্যে কেন গুলি চালানো হলো? বাঞ্ছারামপুরে কেন ছাত্রদল নেতা নয়নকে গুলি করে হত্যা করা হলো- পুলিশকে এর জবাব দিতে হবে।’

তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘গুলি করে হত্যার পর মামলা না নিয়ে কেন বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে উল্টো মামলা করা হলো এর জবাবও পুলিশকে দিতে হবে। বাংলাদেশের মানুষ সহ্য করে। তারা সহনশীল তবে ভুলে যায় না।’

রুমিন ফারহানা বলেন, ‘২০০৮ থেকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তে ক্ষমতায় এসেছেন। এরপর থেকে বিনা ভোট কারচুপির মাধ্যমে মধ্যরাতে নির্বাচন করে নির্লজ্জের মতো ক্ষমতা আঁকড়ে বসে আছেন। এর জবাব আপনাদের দিতে হবে।’

সরকারের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আপনারা ২০১৪ সালে ও ২০১৮ সালে যেভাবে বিনা ভোটে লুটপাটের মাধ্যমে মধ্যরাতে ক্ষমতায় এসেছেন, মনে করবেন না ২০২৪ সালে সেটা আর পারবেন। ২০২৪ সালের নির্বাচনে বাংলাদেশের মানুষ আপনাদের সমুচিত জবাব দেবে।’

তিনি কুমিল্লার মহাসমাবেশে সবাইকে পায়ে হেঁটে রিকশায় করে, ভ্যানে করে যে যেভাবে পারে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান। সেখানে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বিএনপির স্থানীয় ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

/এফআর/
সর্বশেষ খবর
উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরে গেলেন অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা
উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরে গেলেন অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
সর্বাধিক পঠিত
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ