X
শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩
১০ চৈত্র ১৪২৯

কেমন আছেন দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের ব্যবসায়ীরা?

মইনুল হক মৃধা, রাজবাড়ী
২২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:০০আপডেট : ২২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:০০

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটের সেই চিরচেনা দৃশ্য এখন আর নেই। বদলে গেছে ঘাট ও আশপাশের এলাকার চিত্র। কয়েক মাস আগেও যে ঘাটে যান বাহনের জটলা থাকতো, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে যানবাহনের সারি দেখা যেতো, ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেরির অপেক্ষায় বসে থাকতে হতো যাত্রীদের—এখন সেই ঘাট ফাঁকা। পদ্মা সেতু চালুর পর দৌলতদিয়া ঘাটে যানবাহনের জটলা তো দূরের কথা, আশপাশের এলাকা এখন প্রায় জনশূন্য।

স্থানীয়রা বলছেন, পদ্মা সেতু চালুর পর গত ছয় মাসে দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে পদ্মা পারাপারে যানবাহন কমে গেছে। ঘাট এলাকায় নেই যানবাহনের দীর্ঘ সারি। বলা যায় এই পথে মানুষের যাতায়াত একেবারে নেই। তাই ঘাট এলাকায় বন্ধ হয়ে গেছে শতাধিক খাবার হোটেল, দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। যেগুলো আছে সেগুলোতে বেচাকেনা কম। অনেক ব্যবসায়ী পেশা বদলে চলে গেছেন অন্য পেশায়।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) বিকালে সরেজমিনে দেখা গেছে, গোয়ালন্দ উপজেলার পদ্মাপাড়ে কৃষিক্ষেতে কাজ করছেন কয়েকজন নারী। হঠাৎ অচেনা মানুষ দেখে মুখ লুকানোর চেষ্টা করেন তারা।

ঘাটে যেসব হোটেল ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে সেগুলোতেও বেচাকেনা কম

নাম প্রকাশ ও ছবি না তোলার শর্তে এক নারী বলেন, ‘পেটের দায়ে কৃষিক্ষেতে কাজ করতে নেমেছি। পদ্মার ভাঙনে কয়েক বছর আগে নদীতে ঘরবাড়ি চলে গেছে। তারপর দৌলতদিয়া ঘাটে স্বামী হকারি ব্যবসা করে সংসার চালাতেন। পদ্মা সেতু চালুর পর দৌলতদিয়া ঘাটে মানুষের যাতায়াত কমে গেছে। এখন স্বামী শ্রমিকের কাজ করেন। আমিও তাই করছি।’ 

দৌলতদিয়া ঘাটে শিল্প-কারখানা গড়ে উঠলে মানুষের কর্মসংস্থান হতো জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘পদ্মা সেতু চালুর ফলে মানুষের জীবনযাত্রা গতিশীল হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা বদলে গেছে। এখন দৌলতদিয়া ঘাটে শিল্প-কারখানা গড়ে উঠলে আমাদেরও জীবনযাত্রা বদলে যেতো।’

ফেরিঘাট সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার হিসেবে খ্যাত দৌলতদিয়া ফেরিঘাট। নানা ভোগান্তির মধ্যেও এই ঘাট দিয়ে লাখ লাখ মানুষের যাতায়াত ছিল। ঘাটে এসে ফেরি পাওয়া ছিল দুষ্কর। ঘণ্টার পর ঘণ্টা যাত্রীদের ঘাটে বসে থাকতে হতো।

গত ২৫ জুন স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালুর পর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে যাতায়াত কমে গেছে মানুষের। কমে গেছে যানবাহন ও যাত্রীর সংখ্যা। এখন যাত্রী ও যানবাহনের জন্য প্রতিটি ফেরিকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। বাধ্য হয়ে অর্ধেক ফেরি বসিয়ে রেখেছেন কর্তৃপক্ষ। 

পদ্মা সেতু চালুর পর গত ছয় মাসে দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে পদ্মা পারাপারে যানবাহন কমে গেছে

বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা গেছে, আগে প্রতিদিন দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে সব মিলিয়ে সাত-আট হাজার যানবাহন পারাপার হতো। বর্তমানে দেড় হাজারের মতো যানবাহন পারাপার হয়। স্বাভাবিক কারণে ফেরির জন্য অপেক্ষমান মানুষের প্রয়োজনে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকার দুই কিলোমিটারজুড়ে গড়ে উঠেছিল শত শত দোকানপাট, হোটেল ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৮০ শতাংশ বন্ধ হয়ে গেছে। ফেরির অপেক্ষায় থাকা যাত্রীদের ঘিরে ঘাট এলাকায় ছিল নানা পণ্যের শত শত হকার। বর্তমানে ক্রেতার অভাবে তাদের ব্যবসা বন্ধ। ফলে তারা অন্য পেশায় চলে গেছেন।

ঘাটের হোটেল ব্যবসায়ী আব্দুর রহমান বলেন, ‘যানবাহন ও যাত্রী কমে যাওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাট এখন লোকজনশূন্য। সকাল-সন্ধ্যা পুরো এলাকা নীরব থাকে। অনেকে পেশা পরিবর্তন করেছেন। কেউ কেউ নদীতে মাছ শিকার করছেন। আমার মতো অনেক হোটেল ব্যবসায়ী দোকান ছেড়ে দিয়েছেন।’ 

আরেক হোটেল ব্যবসায়ী জাকির হোসেন বলেন, ‘আগে যেখানে দিনে তিন-চার হাজার টাকা বেচাকেনা হতো এখন তা এক হাজারের নিচে নেমেছে। এমনও দিন যায় চার-পাঁচশ টাকা বেচাকেনা করতে কষ্ট হয়।’

ঘাট এলাকায় বন্ধ হয়ে গেছে শতাধিক খাবার হোটেল

ফেরিতে পণ্য ওঠানামানোর কাজ করেন নেকবার হোসেন। তিনি বলেন, ‘আগে দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে দিনে কয়েক হাজার পরিবহন যাতায়াত করতো। তা কয়েকশ ছোট পরিবহন যাতায়াত করে। এজন্য কাজ কমে গেছে। তবু লেগে আছি। অন্য কাজ পেলে এই কাজ ছেড়ে দেবো।’

স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালুর পর দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে যাত্রী ও পরিবহন যাতায়াত কমে গেছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. সালাহ উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘পদ্মা সেতু চালুর আগে দিনে সাত-আট হাজার যানবাহন পারাপার হতো। এখন দেড় হাজারের মতো যানবাহন পারাপার হয়। এই নৌপথে ছোট-বড় ১৮টি ফেরি থাকলেও বর্তমানে ১২টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। যাত্রী ও যানবাহন কমে যাওয়ায় বাকি ফেরিগুলো বসিয়ে রাখা হয়েছে।’

 

/এএম/
সর্বশেষ খবর
চীনের কথা অবশ্যই আমাদের শুনতে হবে: স্পেনের প্রধানমন্ত্রী
চীনের কথা অবশ্যই আমাদের শুনতে হবে: স্পেনের প্রধানমন্ত্রী
স্বপ্ন পূরণে আরও এক ধাপ এগিয়ে কিংসলে
স্বপ্ন পূরণে আরও এক ধাপ এগিয়ে কিংসলে
শামীম ওসমানের সুস্থতা কামনা করে মসজিদে মসজিদে দোয়া
শামীম ওসমানের সুস্থতা কামনা করে মসজিদে মসজিদে দোয়া
ফেসবুকে প্রেম, দেখা করতে গিয়ে খুইয়েছেন সর্বস্ব
ফেসবুকে প্রেম, দেখা করতে গিয়ে খুইয়েছেন সর্বস্ব
সর্বাধিক পঠিত
৬৫ বছরের পুরনো স্কুলের নাম পরিবর্তন
৬৫ বছরের পুরনো স্কুলের নাম পরিবর্তন
‘স্যার’ বলা নিয়ে রংপুরের ডিসির সঙ্গে কী হয়েছিল শিক্ষকের?
‘স্যার’ বলা নিয়ে রংপুরের ডিসির সঙ্গে কী হয়েছিল শিক্ষকের?
খেজুর কেনার আগে মনে রাখবেন যে ৪ বিষয়
খেজুর কেনার আগে মনে রাখবেন যে ৪ বিষয়
এশিয়া কাপ পাকিস্তানেই, ভারতের জন্য আলাদা ভেন্যু!
এশিয়া কাপ পাকিস্তানেই, ভারতের জন্য আলাদা ভেন্যু!
পুলিশ পরিদর্শক হত্যা: ইন্টারপোলের রেড নোটিশে রবিউল
পুলিশ পরিদর্শক হত্যা: ইন্টারপোলের রেড নোটিশে রবিউল