X
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪
১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:০৫আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:০৫

আজ ৭ ডিসেম্বর, সাতক্ষীরা মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে সাতক্ষীরার দামাল ছেলেরা থ্রি নট থ্রি ও এসএলআরের ফাঁকা গুলি ছুড়তে ছুড়তে শহরে প্রবেশ করে। ওড়ানো হয় স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা।স্বজন হারানোর বেদনা ভুলে সেদিন মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে রাস্তায় নেমে আসে মুক্তিকামী আপামর জনতা।

২ মার্চ সাতক্ষীরা শহরে পাকিস্তান বিরোধী মিছিলে রাজাকাররা গুলি করে হত্যা করে শহীদ আব্দুর রাজ্জাককে। আর এখান থেকে শুরু হয় সাতক্ষীরার দামাল ছেলেদের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ। 

মুক্তিযুদ্ধের খরচাদি বহনের জন্য সাতক্ষীরা ট্রেজারি থেকে অস্ত্র লুট আর ন্যাশনাল ব্যাংক হতে অলঙ্কার টাকা-পয়সা লুটের মধ্য দিয়ে শুরু মুক্তির সংগ্রাম। ৮ম ও ৯ম সেক্টরের অধীনে ভারতের বিভিন্ন এলাকায় ট্রেনিং শেষে ২৯ এপ্রিল সাতক্ষীরার ভোমরা সীমান্তে প্রথম সম্মুখ যুদ্ধ শুরু। এ সময় পাক সেনাদের দুই শতাধিক সৈন্য নিহত হয়। ১৭ ঘণ্টাব্যাপী এই যুদ্ধে শহীদ হয় তিন বীল মুক্তিযোদ্ধা। আহত হন আরও দুই জন। এরপর থেমে থেমে চলতে থাকে সাতক্ষীরার বিভিন্ন এলাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের গুপ্ত হামলা। 

ভোমরা, টাউন শ্রীপুর, বৈকারী ও খানজিয়া সম্মুখযুদ্ধে শহীদ হন আব্দুর রাজ্জাক, কাজল, খোকন, নাজমুল, নূর মোহাম্মদসহ ৩৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা। লাইটের আলোয় অসুবিধা হওয়ায় ২৯ নভেম্বর মুক্তিযোদ্ধারা  টাইম বোমা দিয়ে শহরের কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থিত পাওয়ার হাউজ উড়িয়ে দিয়ে ভীত সন্ত্রস্ত করে ফেলে পাক সেনাদের। মুক্তিযোদ্ধাদের হামলায় টিকতে না পেরে ৬ ডিসেম্বর রাতে পিছু হটতে শুরু করে পাক সেনারা।

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অভিযোগ, স্বাধীনতার ৫০ বছর পেরিয়ে গেলেও সাতক্ষীরার বধ্যভূমি ও গণকবরগুলো সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়নি আজও। অযত্নে-অবহেলায় হারিয়ে যেতে বসেছে বধ্যভূমি ও গণকবরের স্মৃতিচিহ্ন। তাই বধ্যভূমি ও গণকবরের স্মৃতি ধরে রাখতে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণে সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধারা।

জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোশারফ হোসেন মশু জানান, প্রতিবছর ৭ ডিসেম্বর সাতক্ষীরা মুক্ত দিবস উপলক্ষে জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের আয়োজন করা হয়। 

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির জানান, জেলা প্রশাসক চত্বরে স্বাধীনতার যে স্মৃতি স্তম্ভটি রয়েছে সেটা এখনও উদ্বোধন করা হয়নি। সাতক্ষীরা মুক্ত দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি বধ্যভূমি ও গণকবরগুরো সংরক্ষণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের ব্যবস্থা করা হবে।

/এসএইচ/
সম্পর্কিত
অগ্নিঝরা মার্চের প্রথম দিন আজ
মেধাবী শামীমকে মেরিনে ভর্তির টাকা দিলেন পুলিশ সুপার
ফিলিস্তিনের নিহত-নিপীড়িত সাংবাদিকদের প্রতি সংহতি প্রকাশ
সর্বশেষ খবর
টেক্সাসের ইতিহাসে ভয়াবহ দাবানল
টেক্সাসের ইতিহাসে ভয়াবহ দাবানল
ইমারত বিধিমালা ন্যক্কারজনকভাবে লঙ্ঘন করা হচ্ছে: মেয়র তাপস
ইমারত বিধিমালা ন্যক্কারজনকভাবে লঙ্ঘন করা হচ্ছে: মেয়র তাপস
মেহমানদের নিয়ে খেতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন মা ও দুই শিশুসন্তান
মেহমানদের নিয়ে খেতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন মা ও দুই শিশুসন্তান
দুই লাশের দাবিদার ৪ জন, তিন জনের জন্য আসেনি কেউ
দুই লাশের দাবিদার ৪ জন, তিন জনের জন্য আসেনি কেউ
সর্বাধিক পঠিত
বাংলাদেশ থেকে যাওয়া হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে নতুন পোর্টাল করছে ভারত
বাংলাদেশ থেকে যাওয়া হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে নতুন পোর্টাল করছে ভারত
দুই ছেলের আবদার মেটাতে গিয়ে লাশ হলেন মা’সহ ৩ জনই
দুই ছেলের আবদার মেটাতে গিয়ে লাশ হলেন মা’সহ ৩ জনই
আগুন কেড়ে নিলো ইতালি প্রবাসী মোবারকের পরিবারের সবাইকে
আগুন কেড়ে নিলো ইতালি প্রবাসী মোবারকের পরিবারের সবাইকে
বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন দল কত টাকা পাবে জানালো বিসিবি
বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন দল কত টাকা পাবে জানালো বিসিবি
বেইলি রোডের আগুনে অন্তত ৪৪ জনের মৃত্যু
বেইলি রোডের আগুনে অন্তত ৪৪ জনের মৃত্যু