X
সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪
৯ বৈশাখ ১৪৩১

যেখানে-সেখানে পশু কোরবানি, নির্ধারিত স্থানে যায়নি কেউ

খুলনা প্রতিনিধি
২৯ জুন ২০২৩, ১৯:২৪আপডেট : ৩০ জুন ২০২৩, ১২:১৬

কোরবানির পশু জবাইয়ের জন্য ১৪১টি স্থান নির্ধারণ করে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)। কোরবানির পশু জবাইয়ের পর পরিচ্ছন্নতা ও পরিবেশ দূষণ রোধে এই উদ্যোগ নেয় কেসিসি। ২০২২ সালে নির্ধারিত স্থানে পশু জবাই ৩০ শতাংশ বাস্তবায়ন হয়েছিল। গত কয়েক বছর এ উদ্যোগ ৩০-৪০ ভাগ বাস্তবায়ন হলেও এবার বৃষ্টির কারণে চিত্র পাল্টেছে। নামাজ শেষ হতেই সড়কে ও বাড়ির মধ্যে পশু কোরবানি শুরু হয়। এর ফলে বৃষ্টির পানির সঙ্গে সড়ক ও ড্রেনে রক্তস্রোত তৈরি হয়।

কেসিসি সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছর ঈদুল আজহার দিন খুলনা নগরীতে বাড়ির সামনে এবং রাস্তার ওপর গরু-ছাগল কোরবানি দেওয়া হয়। এর ফলে পরিবেশ দূষিত হয়। এ অবস্থা নিরসনে পশু কোরবানির জন্য নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে ১৪১টি স্থান নির্ধারণ করে কেসিসি।

কেসিসির ভেটেরিনারি সার্জন ডা. পেরু গোপাল বিশ্বাস বলেন, কোরবানির পশু জবাইয়ের জন্য এবারও স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানির আহ্বান জানিয়ে তিন দিন ধরে নগরীতে মাইকিং করা হয়েছে। তবে ঈদের দিন বৃষ্টি থাকায় এবার সড়ক ও বাড়ির মধ্যে পশু কোরবানি হয়। এ কারণে বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হয়েছে। গত বছর নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি হয়েছিল ২৫/৩০ শতাংশ। কোরবানি,দাতাদের বাড়িতে পর্যাপ্ত জায়গা থাকলে তারা এসব স্থানে পশু নিয়ে আসে না। তাই অনেক স্থান ফাঁকা ছিল। 

তিনি আরও বলেন, কারও বাড়ির আঙিনায় বা গাড়ির গ্যারেজে পশু কোরবানির মতো জায়গা থাকলে তারা সেখানে করতে পারেন। তবে তারা যেন ময়লা রাস্তায় কিংবা ড্রেনে না ফেলেন। তাদের বাড়ির পার্শ্ববর্তী নির্দিষ্ট স্থানে পশুর বর্জ্য ফেলার জন্য জানানো হয়েছে।

গোবরচাকার হাসান আল মামুন বলেন, ‘বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত স্থানে যাওয়া কঠিন। তাই নির্ধারিত স্থানে পশু জবাই না করে বাড়ির সামনের সড়কই বেছে নেওয়া হয়েছে। সড়কে কেবল রক্তই পড়েছে। যা পানি দিয়ে ধুয়ে পরিস্কার করা হয়। এছাড়া পশুর অন্যান্য বর্জ্য একত্র করে ডাস্টবিনে ফেলা হবে।’

কেসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ জানান, প্রতি বছর কোরবানির পর কিছু মানুষ রাস্তার ওপর কিংবা ড্রেনে গবাদি পশুর উচ্ছিষ্টাংশ ফেলে। এর ফলে দুর্গন্ধ ছড়ায় এবং ড্রেনের পানি চলাচল বিঘ্নিত হয়। বর্জ্য অপসারণে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের বেগ পেতে হয়।

/আরআর/
সম্পর্কিত
যাত্রী কল্যাণ সমিতিঈদুল আজহায় ২৭৭ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২৯৯, আহত ৫৪৪
রাজধানীর ফাঁকা রাস্তায় যাত্রীদের স্বস্তি
চাপ নেই কর্মস্থলে ফেরার, এখনও গ্রামে ফিরছে মানুষ
সর্বশেষ খবর
তীব্র গরমে ঝরছে আমের গুটি, উৎপাদন নিয়ে চাষিদের শঙ্কা
রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম বাগানতীব্র গরমে ঝরছে আমের গুটি, উৎপাদন নিয়ে চাষিদের শঙ্কা
টিএসসিতে চলছে ছয় দিনব্যাপী ‘নন্দন বিশ্বমেলা’
টিএসসিতে চলছে ছয় দিনব্যাপী ‘নন্দন বিশ্বমেলা’
দু‌দি‌নে আরও ৫ সন্দেহভাজন কেএনএফ সদস্য গ্রেফতার
দু‌দি‌নে আরও ৫ সন্দেহভাজন কেএনএফ সদস্য গ্রেফতার
অবশেষে প্রার্থিতাই প্রত্যাহার করে নিলেন প্রতিমন্ত্রী পলকের শ্যালক
অবশেষে প্রার্থিতাই প্রত্যাহার করে নিলেন প্রতিমন্ত্রী পলকের শ্যালক
সর্বাধিক পঠিত
দারুল ইহসানের বৈধ সনদধারীদের এমপিওতে বাধা নেই
দারুল ইহসানের বৈধ সনদধারীদের এমপিওতে বাধা নেই
আজকের আবহাওয়া: ৩ বিভাগে বৃষ্টির আভাস
আজকের আবহাওয়া: ৩ বিভাগে বৃষ্টির আভাস
১২ অঞ্চলের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির ওপরে: থাকবে কতদিন?
১২ অঞ্চলের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির ওপরে: থাকবে কতদিন?
ইউরোপে মানবপাচারের নতুন রুট নেপাল
ইউরোপে মানবপাচারের নতুন রুট নেপাল
যশোরে তীব্র গরমে গলে যাচ্ছে সড়কের বিটুমিন
যশোরে তীব্র গরমে গলে যাচ্ছে সড়কের বিটুমিন