সরকারি কলেজের পুকুরের মাছ লুটের অভিযোগ সাদিকের লোকজনের বিরুদ্ধে

Send
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৫৪, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৭, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯

সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের পুকুরের মাছ লুট করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতা সাদিক বাহিনীর সদস্য জামালের লোকজনের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) ভোরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের জিয়া হলের পেছনের পুকুর থেকে প্রায় ১০ মণ মাছ লুট করে নিয়ে যায় জামাল বাহিনীর সদস্যরা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সরকারি কলেজের একজন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী বলেন, সাদিককে বুধবার ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর তার বাহিনীর সদস্য সন্ত্রাসী জামাল সুযোগ বুঝে আজ সকালে সরকারি কলেজের জিয়া হলের পেছনের পুকুর থেকে বিভিন্ন মাছ লুট করে নিয়ে যায়। আমরা ভয়ে কিছু বলতে পারিনি। এসময় অবশ্য জামাল উপস্থিত ছিলো না। তবে তার বাবা মোহাম্মদ আলী ও মা জামিলা খাতুন দাঁড়িয়ে থেকে জেলেদের দিয়ে মাছ ধরে নিয়ে যায়।
তিনি আরও বলেন, সাদিকের ছোট ভাই পরিচয় দিয়ে এই জামাল গত দুই বছর ধরে কোনও ধরনের লিজ গ্রহণ না করেও সরকারি কলেজের দুটি পুকুর ও একটি লেকের মাছ, আম গাছ ও ডাব নিয়ে গেলেও কেউ কিছু বলার ক্ষমতা রাখে না। জামাল শিক্ষার্থী না হয়েও সে সরকারি কলেজ এলাকায় মেয়েদের উত্ত্যক্ত, ছিনতাই ও চাঁদাবাজিতে জড়িত। সাদিকের সহযোগী দ্বীপ ও সাইফুল ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ার তাকে আর এলাকায় দেখা যাচ্ছে না।
তিনি বলেন, এর আগে নিয়ম মেনে টেন্ডার করে কলেজের পুকুর ও গাছ টেন্ডারে সবোর্চ্চ দরদাতাকে দেওয়া হতো। কিন্তু ছাত্রলীগের এই কমিটি আসার পর তারা আর টেন্ডার করেনি। ছাত্রলীগ সম্পাদক সাদিকের বাহিনী হিসেবে সরকারি কলেজের এসব সম্পদের দেখভালের দায়িত্ব ছিলে জামালের ওপর।
এদিকে জামাল পলাতক এবং মোবাইল ফোন বন্ধ রাখায় তার বক্তব্য নেওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আফজাল হোসেন বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

/এআর/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ