গ্যাস পাইপের লিকেজ থেকে আগুনের সূত্রপাত

Send
জাকিয়া আহমেদ, আমানুর রহমান রনি ও আব্দুল গনি, কেরানীগঞ্জ
প্রকাশিত : ২১:১৪, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:৫৭, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

প্রাইম অনটাইম প্লাস্টিক কারখানাগ্যাসের পাইপের লিকেজ থেকে কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় লাগা আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিস-৬ এর উপ-পরিচালক নজমুজ্জামান। তিনি জানান, এতে মুহূর্তেই পুরো কারখানায় আগুন ছড়িয়ে পড়ে। শ্রমিকরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই আগুনে দগ্ধ হন। কারখানাটিতে আগুন নেভানোর জন্য নিরাপত্তামূলক কোনও ব্যবস্থাও ছিল না। কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তা এখনই বলা যাচ্ছে না।’

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে চুনকোটিয়া হিজলতলা এলাকার প্রাইম অনটাইম প্লাস্টিক কারখানায় এই আগুন লাগে।

র‌্যাব-১০ এর টুআইসি মেজর শাহরিয়ার জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় কারখানার ভেতর থেকে এক শ্রমিকের পোড়া লাশ উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কেরানীগঞ্জ সার্কেল) রামানন্দ সরকার বলেন, ‘বিষয়টি নাশকতা কিনা, তদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না।’

প্রাইম অনটাইম প্লাস্টিক কারখানার সিকিউরিটি কর্মকর্তা বাহার আলী জানান, আগুনে কারখানার ম্যানেজার নজরুল ইসলামসহ ৩০ জন দগ্ধ হন। কারখানাটিতে ওয়ানটাইম প্লাস্টিকের খাবারের বক্স, থালা, গ্লাসসহ অন্যান্য দ্রব্য সামগ্রী তৈরি হতো। হঠাৎ কারখানাটির বক্স তৈরির ইউনিটে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে প্রায় ২ ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এখানে প্রায় শতাধিক শ্রমিক বিভিন্ন ইউনিটে কাজ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকাল সাড়ে ৪টায় কারখানায় আগুন লাগে। প্রথমে পাশের মানুষ ও কারখানার শ্রমিকেরা আগুন নেভাতে চেষ্টা করেন। পরে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী দেলোয়ার হোসেন জানান, প্রতিবছরই এই কারখানায় আগুন লাগে। এছাড়া কারখানাটি আবাসিক এলাকায় হওয়ায় সব সময় মানুষ আতঙ্কে থাকে। আমরা চাই এই কারখানাটি অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হোক।’

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘সবাই মেজর দগ্ধ হয়েছেন। আমরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিচ্ছি। অনেককেই আইসিইউতে নিতে হবে। তাদের রাতে আইসিইউতে স্থানন্তর করা হবে। ৩২ জনের সবার অবস্থা আশঙ্কাজনক। অনেকের ৭০-৯০ শতাংশ শরীর দগ্ধ হয়েছে, কারও ৬০-৭০ শতাংশ; তবে সবার ৩০ শতাংশের বেশি দগ্ধ হয়েছে। এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) সকালে ঢামেক হাসপাতাল ও বার্ন ইউনিটের সিনিয়র চিকিৎসকদের নিয়ে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হবে।’

কেরানীগঞ্জের চুনখুটিয়ায় আগুন লাগা প্লাস্টিক কারখানাটির অনুমোদন ছিল না বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি জানান, সেখানে আরও অননুমোদিত কারখানা রয়েছে। 

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অনেকবার বলেছি, শিল্পকারখানা হবে নির্দিষ্ট জোনে। স্থানীয় সরকার ও পরিবেশ অধিদফতরকে আমি অনেকবার বলেছি। কিন্তু, কারখানাগুলো সরানো যায়নি। কারখানাটিতে ৭০ থেকে ৮০ জন শ্রমিক কাজ করতো। এটি খুবই অস্বাস্থ্যকর ও ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা।’

 আরও খবর...

আগুন লাগা কারখানাটির অনুমোদন ছিল না: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় আগুনের ঘটনায় নিহত ১

কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন, আহত ৩০

প্লাস্টিক কারখানায় দগ্ধ ৩২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক 

/এনআই/

লাইভ

টপ