বিসিসি’র ত্রাণ তহবিলে বরিশাল মেয়রের সম্মানীর ৩৫ লাখ অনুদান

Send
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৪:২০, এপ্রিল ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:২৮, এপ্রিল ০৭, ২০২০

বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) ত্রাণ তহবিল গঠন করা হয়েছে। সোমবার গঠিত ত্রাণ তহবিলে মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক ‍আব্দুল্লাহ নিজের সম্মানীর ভাতা দান করেন। পাশাপাশি ত্রাণ কাজে নগরীর বিত্তবানদের ‍এগিয়ে ‍আসার ‍আহ্বান জানান তিনি। ‍এ তহিবল  করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে নগরীর অসহায় মানুষদের সাহায্যে কাজে লাগানো হবে।

বরিশাল সিটি করপোরেশন

বরিশাল সিটি করপোরেশন ত্রাণ তহবিল নামে গঠিত এ তহবিলে মেয়র এ যাবত পাওয়া তার প্রাপ্ত সম্মানীসহ করপোরেশন থেকে পাওয়া অর্থের পুরোটাই দান করেন। এর পরিমাণ ৩৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা।

বিসিসি’র প্রশাসনিক কর্মকর্তা কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, সাদিক আবদুল্লাহ ২০১৮ সালের ২৩ অক্টোবর মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। করোনা মোকাবিলায় সরকার নানা পদক্ষেপের সঙ্গে মিল রেখে বরিশাল নগরীর অগণিত কর্মহীন মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিতে উদ্যোগ গ্রহণ করেন মেয়র। তার সরাসরি তত্ত্বাবধানে নগরীর বিভিন্ন কলোনিসহ (বস্তি) ওয়ার্ডগুলোতে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। সোমবার মেয়রের নির্দেশে নগরীর অসহায় মানুষদের সাহাযার্থে গঠন করা হয় বরিশাল সিটি কর্পোরেশন ত্রাণ তহবিল (যার হিসাব নম্বর STD-010021274891, জনতা ব্যাংক বরিশাল কর্পোরেট শাখা)। এতে মেয়র তার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে এ বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত পাওয়া সম্মানী, জ্বালানি তেলের বিল ও অন্যান্য ভাতাদি থেকে প্রাপ্ত ৩৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা প্রদান করেছেন।

বরিশাল সিটি মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ (ছবি: সংগৃহীত)

মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, বেতন ভাতাদির সুবিধা নিতে তিনি মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেননি। নিজেকে সবসময় নগরবাসীর সেবক মনে করেন বলেই দুর্যোগকালীন এই সময়ে নগরবাসীর জন্য কিছু করার চেষ্টার অংশ হিসেবেই ত্রাণ তহবিল গঠন করা হলো। করপোরেশন থেকে এ পর্যন্ত তাকে যতটুকু আর্থিক সুবিধা দেওয়া হয়েছে তার পুরোটাই তিনি ত্রাণ তহবিলে প্রদান করেছেন। তিনি এ কাজে এগিয়ে আসার জন্য সকল বিত্তবানদের আহ্বান জান‍ান। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় করোনার মতো এ দুর্যোগ মোকাবিলা করা সম্ভব হবে বলে মনে করেন মেয়র।

সিটি মেয়র ‍আরও বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন অসহায় পরিবারের মানুষের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবে সম্ভব সবধরনের সহযোগিতার চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হবে। জনসাধারণের নিরাপদে ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত নগরজুড়ে এ সহায়তা কার্যক্রম অব্যাহত থাকার ঘোষণা দেন মেয়র।

 

/টিএন/

লাইভ

টপ