স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা: ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৬:৩০, জুন ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৩০, জুন ০৭, ২০২০

আবু হানিফ মিস্টারবগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হানিফ মিস্টারকে (৩৫) কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জেলা যুবলীগের সাবেক ও প্রস্তাবিত কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখকে প্রধান আসামিসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। শনিবার (৬ জুন) রাতে নিহতের বাবা আরমান ড্রাইভার বাদী হয়ে শাজাহানপুর থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ অভিযান চালিয়ে ফিরোজ নামে এজাহারভুক্ত এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে। ডিবি পুলিশকে মামলা তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী এসব তথ্য জানান।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিস্টার শাজাহানপুর উপজেলার শাকপালার আরমান ড্রাইভারের ছেলে। মিস্টার প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজের আগে মসজিদে গিয়ে কোরআন তেলাওয়াত করেন। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি বাড়ি থেকে শাকপালা বাসস্ট্যান্ডে বাইতুস সালাম জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ের জন্য যাচ্ছিলেন। মসজিদের গেটে পৌঁছালে পাশেই লুকিয়ে থাকা দুর্বৃত্তরা কুড়াল দিয়ে তার মাথায় এলোপাতাড়ি আঘাত করে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা মিস্টারকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে পৌঁছানোর কিছুক্ষণ পর অপারেশন থিয়েটারে তার মৃত্যু হয়।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন জানান, মিস্টার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তার বাবা জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি শেখসহ ১২ জনের নামে এবং অজ্ঞাত ৪-৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন। পূর্ব শত্রুতার জেরে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যার করা হয়েছে বলে বাদী এজাহারে উল্লেখ করেছেন।

/আইএ/

লাইভ

টপ