বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা ইয়াবা পাচারকারী নিহত

Send
কক্সবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১১:১৩, জুলাই ১২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৩, জুলাই ১২, ২০২০

বন্দুকযুদ্ধকক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবি সদস্যদের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. ছৈয়দ আলম (৩৫) নামে এক রোহিঙ্গা ইয়াবা পাচারকারী নিহত হয়েছে। রবিবার (১২ জুলাই) ভোর ৪টার দিকে কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দর সংলগ্ন ১৪ নম্বর ব্রিজের কাছে কেয়ারী খাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সে টেকনাফ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মো. সৈয়দ আহমদের ছেলে।

ঘটনাস্থল থেকে ৪০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি এলজি ও এক রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ছৈয়দ আলম একজন চিহ্নিত মাদক কারবারি বলে দাবি করেছে বিজিবি। 

টেকনাফ ২ নম্বর বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, টেকনাফ স্থলবন্দর সংলগ্ন ১৪ নম্বর ব্রিজের কাছে কেয়ারী খাল এলাকা দিয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে—এমন সংবাদ পেয়ে তাদের একটি বিশেষ টহলদল ওই এলাকায় অবস্থান নেয়। টহলদল দূর থেকে দুই জন সন্দেহজনক ব্যক্তিকে খালের পাড়ে দেখে। কিছুক্ষণ পর এক ব্যক্তিকে নাফনদী সাঁতরে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেখে। সে খালের মুখে আসার পরপরই আগে থেকে অপেক্ষমাণ দুই ব্যক্তি তার কাছে এগিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, এ সময় টহলদল তাদের চ্যালেঞ্জ করলে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তাৎক্ষণিক টহলদলটি তাদের ধাওয়া করলে সশস্ত্র ইয়াবা কারবারিরা বিজিবি সদস্যদের ওপর অতর্কিতে গুলিবর্ষণ করে। এ সময় বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের মধ্যে ৩-৪ মিনিট গোলাগুলি হয়। পরে সেখান থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক মাদক কারবারিকে উদ্ধার করা হয়। তাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠান। সদরে পৌঁছালে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় টেকনাফ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে একটি মামলা করা হয়েছে।

 

/আইএ/

লাইভ

টপ