মুক্তাগাছায় বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭

Send
ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:২৭, আগস্ট ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:২৭, আগস্ট ০৮, ২০২০

নিহতের স্বজনের আহাজারিময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মানকোন এলাকায় রাজিব পরিবহনের একটি বাস ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে চার থেকে সাতে দাঁড়িয়েছে। এরমধ্যে একই পরিবারের তিনজন। শনিবার (৮ আগস্ট) বেলা ৪টায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে নিহত একই পরিবারের তিনজন হলেন মুক্তাগাছার কুমারগাওয়ের নুরুল ইসলাম (৫০), তার স্ত্রী তাসলিমা আক্তার (৪০) ও কন্যা লিজা আক্তার (১৩)। বাকিরা হলেন সিএনজি চালক আনাদুল ইসলাম (৪০), নজরুল ইসলাম (৩০), সাইদুল ইসলাম (৩২) ও নজর আলী (৪৪)। এই ঘটনায় আহত তিন জনকে মুক্তাগাছা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে রাজিব পরিবহণের সেই বাস ও চালক কামাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। সাত জন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে মুক্তাগাছা থানার ওসি বিপ্লব কুমার জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরগামী রাজিব পরিবহণের বাসটি মুক্তাগাছার মানকোনে আসলে বিপরীত দিক থেকে আসা সিএসজি চালিত অটোরিকশার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও জানান, বেপরোয়া গতিতে বাস চালানোর কারণে ঘটনাটি ঘটেছে। আটক চালক কামাল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানো হবে। এছাড়া ময়নাতদন্তের জন্য লাশগুলো ময়মনসিংহ মেডিক্যাল মর্গে পাঠানোর কথা জানান তিনি।

নিহত নুরুল ইসলামের শ্যালক মোতালেব জানান, ঈদের ছুটিতে তার বোন জামাই, বোন ও ভাগনি বাড়িতে এসেছিলেন। ঈদে শেষে ঢাকা যাওয়ার জন্য সিএনজি করে মুক্তাগাছায় যাওয়ার পথেই লাশ হয়ে গেলেন তারা।

সাত জনের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

/আরআইজে/

লাইভ

টপ