শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে ৩ কিশোর নিহতের ঘটনায় মামলা, মরদেহ হস্তান্তর

Send
যশোর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:১৮, আগস্ট ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:২২, আগস্ট ১৪, ২০২০

মারধরে আহত কিশোররা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে তিন কিশোর নিহতের ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহত পারভেজের বাবা রোকা মিয়া কোতোয়ালি থানায় এ মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার (১৪ আগস্ট) এ মামলা দায়ের করা হয়। এদিকে, আজ সন্ধ্যার পর নিহত তিন কিশোরের মরদেহ হাসপাতাল থেকে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

যশোর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম রব্বানী জানান, নিহত পারভেজের বাবা খুলনার মহেশ্বরপাশা গ্রামের বাসিন্দা রোকা মিয়া বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করেছেন। মামলা নম্বর ৩৫/১৪.০৮.২০২০।

তিনি আরও জানান, এ মামলার অজ্ঞাতনামা আসামিরা মূলত শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও বন্দিরা। পুলিশ তদন্ত করে ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করবে এবং তাদের আইনের আওতায় আনবে। পুলিশ নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছতার সঙ্গে তদন্ত করে আসামি শনাক্ত করবে যাতে অহেতুক কেউ হয়রানির শিকার না হয়।

সন্ধ্যায় মামলা গ্রহণের পর নিহতদের মরদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। কোতোয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) শেখ তাসমীম আলম উপস্থিত থেকে মরদেহ বুঝিয়ে দেন।
এসময় মামলার বাদী রোকা মিয়া বলেন, সরকারি একটি শিশু সংশোধনাগারে এ ধরনের নির্যাতন ও হত্যাকাণ্ডে সন্তান হারিয়ে আমার পরিবার ভেঙে পড়েছে। সন্তান হত্যার বিচার পেতে মামলা করেছি। পুলিশ তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের শনাক্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবে বলে তিনি আশা করেন।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার তুচ্ছ ঘটনায় যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে মারপিটের ঘটনায় তিন বন্দি কিশোর নিহত হয়। এসময় আহত হয় ১৫ জন। আহতদের পুলিশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় দুটি পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন ও কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

আরও পড়ুন

যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক সাময়িক বরখাস্ত, মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি
যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে নৃশংসতা: ময়নাতদন্ত সম্পন্ন
‘হাত-পা-মুখ বেঁধে পেটায়, ক্রসফায়ারের ভয় দেখায়’
সংঘর্ষের পর বন্দিরা মার খায় কেন্দ্র কর্মকর্তা ও আনসারদের হাতেও!
শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের ১০ কর্মকর্তা পুলিশ হেফাজতে

 

 

/টিটি/

লাইভ

টপ