স্ত্রীর দেওয়া শর্তে প্রেমিকাকে হত্যা!

Send
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:৫২, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৪, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০

হবিগঞ্জে প্রেমিকাকে হত্যার সাত মাস পর রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় প্রেমিক ও তার স্ত্রীকে আটক করে করা হয়েছে। আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবাবনবন্দি দেওয়ার পর তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

নিজ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা জানান, স্ত্রীর দেওয়া শর্ত পালন করতে গিয়েই প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও হত্যার পর ছুরিকাঘাত করে টিলা থেকে লাশ ফেলে দেয় প্রেমিক।

পুলিশ সুপার জানান, হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার পাচারগাও গ্রামের আফসার মিয়া কাওছার ও তার স্ত্রী রিপা বেগম মৌলভীবাজারে ভাড়া থাকতেন। তাদের বাসায় সাবলেট থাকতেন বিক্রয়কর্মী ও নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার কামালপুর গ্রামের মৃত খোরশেদ আলী মজুমদারের মেয়ে রোকশানা আক্তার বৃষ্টি। বাসায় সাবলেট থাকার সুবাদে আফসারের সঙ্গে বৃষ্টির সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে তাদের প্রেমের সম্পর্ক জেনে ফেলে আফসারের স্ত্রী রিপা। এ নিয়ে আফসার ও রিপার মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে রিপা তার বাবার বাড়ি চলে যায়। তাকে ফিরিয়ে আনতে গেলে রিপা শর্তে দেয়, বৃষ্টিকে তাদের মধ্য থেকে সরাতে হবে। শর্ত অনুযায়ী স্বামী-স্ত্রী মিলে গত ৭ ফেব্রুয়ারি বৃষ্টিকে চুনারুঘাট উপজেলার যোগীর আসন টিলায় নিয়ে আসেন। সেখানে বৃষ্টিকে প্রথমে ধর্ষণ করে আফসার, পরে গলাটিপে হত্যা করে। মৃত্যু নিশ্চিত হতে প্রেমিক আফসার বৃষ্টির গলায় ছুরি দিয়ে আঘাত করে ও টিলা থেকে ফেলে দেয়। পরদিন পুলিশ লাশ উদ্ধার করে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

পুলিশ ‍সুপার বলেন, পুলিশ দীর্ঘ তদন্ত করে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে। হত্যাকাণ্ডের বর্ননা দিয়ে বুধবার বিকালে স্বামী-স্ত্রী হবিগঞ্জ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।

 

/টিটি/

লাইভ

টপ