চিকিৎসার কথা বলে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণের অভিযোগ

Send
গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৫৮, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৮, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০

গাজীপুর

গাজীপুরের শ্রীপুরে অসুস্থ এক নারী পোশাক শ্রমিককে ক্লিনিকে নিয়ে রক্ত পরীক্ষার কথা বলে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত নুরুল ইসলাম শেখ রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাস সংলগ্ন বাংলাদেশ নরওয়ে ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের মালিক। তিনি গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানার জানাকুড় গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান শেখের ছেলে। ওই ঘটনায় ২৭ সেপ্টেম্বর ভিকটিম নারী শ্রীপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত ২০ সেপ্টেম্বর সকালে ওই নারী সর্দি-জ্বর নিয়ে অভিযুক্তের মালিকানাধীন বাংলাদেশ নরওয়ে ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে যান। এসময় অভিযুক্ত ওই নারীকে রক্ত ও প্রস্রাব পরীক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়। এরপর রক্ত ও প্রস্রাব রেখে কোনও কাগজপত্র না দিয়ে পরদিন রিপোর্ট নিয়ে যেতে বলেন।

পরদিন ২১ সেপ্টেম্বর হাসপাতালের মালিক অভিযুক্ত নূরুল ইসলাম শেখ একজন লোকের মাধ্যমে পোশাক শ্রমিককে বাড়ি থেকে হাসপাতালে ডেকে পাঠান। খবর পেয়ে ওই নারী তার রিপোর্ট আনার জন্য বাড়ি হতে বের হয়ে দেখতে পান রাজেন্দ্রপুর-কাপাসিয়া সড়কের ধলাদিয়া এলাকায় নূরুল ইসলাম শেখসহ তার ২-৩ জন সহযোগী কালো রঙয়ের পাজেরো গাড়ি নিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আছে। ওই নারীর রক্তের নমুনা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তাকে আবারও রক্ত দিতে হবে বলে জানানো হয়। হাসপাতালের মালিক হয়ে তাকে নিতে আসায় প্রথমে অবাক হলেও পরে তার সঙ্গেই হাসপাতালের দিকে রওয়ানা হন। অভিযুক্ত তাকে হাসপাতালে না নিয়ে স্থানীয় ধলাদিয়া কলেজের পাশে নিজ মালিকানাধীন বাংলোয় নিয়ে যায়। সেখানে একটি টিনশেড কক্ষে ওই নারীকে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ঘটনা প্রকাশ করা হলে খুন করে লাশ গুমের হুমকি দেয়। এই ঘটনায় ওই নারী তার স্বজনদের জানিয়ে ২৭ সেপ্টেম্বর (রবিবার) শ্রীপুর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এখলাস উদ্দিন অভিযুক্তকে গ্রেফতারের জন্য তৎপরতা চালায়। এ ব্যাপারে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে পরে কথা বলবেন বলে জানান।

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ
X