এমসি কলেজে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নেই: তদন্ত কমিটি

Send
সিলেট প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:০৪, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫০, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রেস ব্রিফিং

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী মুরারি চাঁদ (এমসি ) কলেজ ক্যাম্পাস যে পরিমাণ জায়গা নিয়ে অবস্থিত সেই পরিমাণ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই। এছাড়াও অপ্রতুল সীমানা প্রাচীর, আলোর স্বল্পতা ইত্যাদি কারণেও নিরাপত্তার ব্যাঘাত ঘটেছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরা তাদের ব্রিফিংয়ে এ মন্তব্য করেছেন।
দুই দিনের তদন্ত শেষে মঙ্গলবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি। এসময় কমিটির প্রধান মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) শাহিদুল খবির চৌধুরী এসব কথা বলেন।

করোনাকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় হোস্টেল খোলা রাখার নির্দেশনা দেয়নি উল্লেখ করে বলেন, হোস্টেলের কক্ষে অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়টিও তারা অবগত হয়েছেন। এ বিষয়টিও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হবে। তদন্ত কমিটির পুলিশ, কলেজ প্রশাসন, নির্যাতিতা নারী ও তার স্বামীর সাথেও কথা হয়েছে। এ ঘটনায় দুটি দিক রয়েছে। এর অপরাধ ও মামলাগত দিক আইন শৃঙ্খলা বাহিনী দেখছে। আর তারা মূলত এ ঘটনায় প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষের ভূমিকা ও অবস্থান বিষয়ে তদন্ত করছেন। কমিটি আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) মন্ত্রণালয়ে প্রাথমিক প্রতিবেদন জমা দেবে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হলেও সিলেটের মুরারি চাঁদ (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাস জোর করে খোলা রাখে ছাত্রলীগের কিছু ক্যাডার। গত ২৫ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) বিকালে প্রাইভেট কারে চড়ে কলেজ ক্যাম্পাসে বেড়াতে আসা এক নবদম্পতিকে আটক করে এই ছাত্রাবাসে নিয়ে এসে স্বামীকে ব্যাপক মারধর ও স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটায় ছাত্রলীগ নামধারী কয়েকজন ক্যাডার। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী শুক্রবার রাতে বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় মামলা করেন। মামলায় এজাহার নামীয় আসামি করা হয়েছে ৬ জনকে। সেই সঙ্গে অজ্ঞাতনামা আরও ২/৩ জনকে আসামি করা হয়। আসামিরা হলো−এম. সাইফুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, তারেক আহমদ, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান। এরা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। আসামিদের মধ্যে তারেক ও রবিউল বহিরাগত, বাকিরা এমসি কলেজের ছাত্র। পুলিশ এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে কয়েকজন এখন রিমান্ডে রয়েছে। এ ঘটনায় আইনগতভাবে মামলা ও তদন্তের পাশাপাশি শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সেই কমিটি দুদিন ধরে কলেজ পরিদর্শনের পর তাদের প্রতিবেদন জমা দেওয়ার আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে প্রেস ব্রিফিংয়ে তাদের বক্তব্য জানায়।

আরও পড়ুন:

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ মামলায় আরও ৩ জনের পাঁচদিনের রিমান্ড

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ, আসামিদের হয়ে লড়ছেন না আইনজীবীরা

এমসি কলেজের ছাত্রাবাস পরিদর্শনে আসছে তদন্ত কমিটি

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ মামলার এজাহারভুক্ত শেষ আসামি গ্রেফতার

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: রবিউল ৫ দিনের রিমান্ডে

আমরা কোনও অপরাধ করি নাই, ঘটিয়েছে ওরা তিন জন: আদালতে সাইফুর ও অর্জুন

৫ দিনের রিমান্ডে সাইফুর ও অর্জুন 

এমসি কলেজে ধর্ষণ: বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী রাজন গ্রেফতার

প্রযুক্তি ও সোর্সের সহায়তায় পুলিশের জালে আটকা পড়ে সাইফুর

গ্রেফতার এড়াতে দাড়ি কেটে ফেলে সাইফুর, ভারতে পালাতে চেয়েছিল অর্জুন

প্রশ্নবিদ্ধ এমসি কলেজের তদন্ত কমিটি, বহাল তবিয়তে হোস্টেল সুপার

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: আরেক আসামি গ্রেফতার

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: প্রধান আসামি গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলার আসামিদের ধরতে সীমান্তে নজরদারি

প্রাইভেট কারেই ধর্ষণ করা হয় ওই গৃহবধূকে 

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসের দুই নিরাপত্তাকর্মী বরখাস্ত 

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: ছাত্রলীগ কর্মীদের শাস্তি চায় আ.লীগ

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ, ছাত্রলীগের কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আটকে রাখা দম্পতিকে উদ্ধার করলো পুলিশ

কলেজ বন্ধ, তারপরও শিক্ষার্থী ছিল এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে

 

/টিএন/

লাইভ

টপ
X