সাত মাস পর পর্যটকদের জন্য খুলছে সুন্দরবন

Send
খুলনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২০:২৮, অক্টোবর ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৩৩, অক্টোবর ২৬, ২০২০

সুন্দরবনকরোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সাত মাস বন্ধ থাকার পর বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়ার কথা রয়েছে। এ অনুমোদন হলে ১ নভেম্বর থেকেই সুন্দরবনে পর্যটকরা প্রবেশ করতে পারবেন।সুন্দরবন (ছবি: মংলা প্রতিনিধি)

বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার এমপি বলেন, ‘সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন হলে ১ নভেম্বর থেকে সুন্দরবনে পর্যটকরা যেতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে ৫০ জনের বেশি পর্যটক কেউ বহন করতে পারবেন না। আর ট্যুর অপারেটরদের করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাসহ সরকারের যাবতীয় শৃঙ্খলা অনুসরণ করতে হবে।’  সুন্দরবন (ছবি: মোংলা প্রতিনিধি) ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব সুন্দরবনের সভাপতি মো. মইনুল ইসলাম জমাদ্দার বলেন, ‘কুয়াকাটাসহ দেশের প্রায় সব পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়েছে। সুন্দরবনে পর্যটনের সুযোগ খুলে দিলে কোনও সমস্যা হবে না। বরং সরকারের রাজস্ব আয় হবে। সুন্দরবন কেন্দ্রিক ৭০টি ট্যুর কোম্পানির অর্ধশত জাহাজের কয়েক হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রায় সাত মাস ধরে বেকার। চরম আর্থিক সংকটে রয়েছেন তারা। মাত্র তিন থেকে চার মাস সুন্দরবনের পর্যটন মৌসুম। এরপর সারা বছর বসে বসে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সেই টাকায় চলতে হয়। পর্যটন মৌসুমে যদি পর্যটন বন্ধ থাকলে সুন্দরবন কেন্দ্রিক পর্যটন শিল্পে ধস নামবে।’

সুন্দরবন

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে গত ১৯ মার্চ পুরো সুন্দরবনে পর্যটকদের যাতায়াত ও নৌযান চলাচল সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত পূর্ব ও পশ্চিম সুন্দরবনজুড়ে এ নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে বলে জানানো হয়। সুন্দরবনের ৯টি পর্যটন এলাকায় পর্যটন মৌসুমে (নভেম্বর থেকে মার্চে) হাজার হাজার মানুষ ঘুরতে আসেন।

/এফএস/এমওএফ/

লাইভ

টপ