X
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

চার বছরে ৪ কোটি টাকার সম্পদ বেড়েছে এমপি সাহাদারার

বগুড়া প্রতিনিধি
০৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৬:২০আপডেট : ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৬:৪৩

বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনে ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য প্রার্থী কেন্দ্রীয় মহিলা লীগের নির্বাহী সদস্য সাহাদারা মান্নানের গত ৪৫ মাসে (প্রায় চার বছর) চার কোটি টাকার অধিক অর্থ-সম্পদ বেড়েছে। তিনি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মরহুম আবদুল মান্নানের স্ত্রী। স্বামীর মৃত্যুর পর উপনির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

ঋণ বাদে তার বর্তমান অর্থ-সম্পদের পরিমাণ ১৪ কোটি ৩৬ লাখ ৪২ হাজার ৩১৪ টাকা। যমুনা ও বাঙালি নদীভাঙন কবলিত বগুড়া-১ আসনে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল মান্নান পরপর তিনবার এমপি নির্বাচিত হন। গত ২০২০ সালের ১৮ জানুয়ারি তার মৃত্যুতে নির্বাচন কমিশন আসনটি শূন্য ঘোষণা করে।

২৯ মার্চ উপনির্বাচনের দিন ধার্য করা হয়। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে ২১ মার্চ এ নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছিল। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে নির্বাচন কমিশন ১৪ জুলাই ভোট গ্রহণের দিন ধার্য করে। সাহাদারা মান্নান নৌকা মার্কায় এক লাখ ৪৫ হাজার ২৯৫ ভোট পেয়ে স্বামীর আসনে এমপি নির্বাচিত হন। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী (ট্রাক) ইয়াসির রহমতুল্লাহ ইন্তাজ এক হাজার ৫৬৩ ভোট পেয়ে জামানত হারান।

স্নাতক পাশ সাহাদারা মান্নানের ২০২০ সালের ২৫ মার্চ দাখিল করা হলফনামায় উল্লেখ করা হয়, তার বিরুদ্ধে কোনও মামলা নেই। ছয় লাখ ৪২ হাজার টাকা মূল্যের বাড়ি, অ্যাপার্টমেন্ট, দোকান রয়েছে। এক্সিম ব্যাংকের শেয়ার থেকে লাভ পেয়েছেন ১৬ লাখ ২৩ হাজার ১৩১ টাকা। ব্যাংক থেকে পাওয়া সুদ ১২ লাখ ৫০ হাজার ৪০ টাকা। বগুড়া জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে সম্মানী ভাতা পেয়েছেন ৩০ হাজার টাকা। নগদ ২৮ লাখ ৯৬ হাজার ২০০ টাকা। ব্যাংকে জমা এক কোটি ৭৭ লাখ ৮০ হাজার ৯৬১ টাকা। তালিকাভুক্ত কোম্পানির শেয়ারমূল্য এক কোটি ৩১ লাখ ৮৫ হাজার ৫০ টাকা ও অতালিকাভুক্ত কোম্পানির শেয়ারমূল্য ৬০ লাখ ৭৯ হাজার ৫০০ টাকা।

সঞ্চয়পত্রে স্থায়ী আমানত ৩০ লাখ টাকা। তার ১০ ভরি স্বর্ণালংকার ছিল। অর্জনের সময় তার মূল্য ছিল ৩০ হাজার টাকা। আসবাবপত্র ছিল ৪০ হাজার টাকার। স্বামীকে ঋণ দিয়েছিলেন ৬৯ লাখ টাকা। গাজীপুরে ২৫ লাখ টাকা মূল্যের ৩২ দশমিক ২২৫ শতাংশ কৃষিজমি। বগুড়া শহর, সারিয়াকান্দি ও গাজীপুরে দালান ও অকৃষিজমি চার কোটি ১৯ লাখ ৫২ হাজার ২৪২ টাকার। সোনাতলা ও সারিয়াকান্দিতে দুটি দালান ২২ লাখ ৪২ হাজার টাকা এবং অ্যাপার্টমেন্ট ১৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা। এ ছাড়া ১০ লাখ টাকা মূল্যের একটি দোকানঘরের হিসাব দাখিল করা হয়। সব মিলিয়ে তার অর্থ-সম্পদের পরিমাণ ছিল ১০ কোটি ৩১ লাখ ১১ হাজার ১২৪ টাকা।

এদিকে গত কয়েক বছরে সাহাদারা মান্নানের সঙ্গে স্থানীয় নেতাকর্মীদের দূরত্ব সৃষ্টি হয়। তিনি প্রায় জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। তাকে সারিয়াকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। আসন্ন ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বগুড়া-১ আসনে অনেক হেভিওয়েট প্রার্থী নৌকার টিকিট পেতে মাঠে নামেন। কিন্তু দল (আওয়ামী লীগ) সাবেক সংসদ সদস্য, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল মান্নানের অবদানের কৃতজ্ঞতা স্বরূপ তার স্ত্রী সাহাদারা মান্নানকে আবারো নৌকার টিকিট দেন।

গত ২৯ নভেম্বর দাখিল করা হলফনামা অনুসারে ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা দেনা বাদে গত ৪৫ মাসে তার অর্থ-সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১৪ কোটি ৩৬ লাখ ৪২ হাজার ৩১৪ টাকায়। অর্থাৎ, একাদশ জাতীয় সংসদের উপনির্বাচন থেকে দ্বাদশ নির্বাচনের আগ মুহূর্তে তার অর্থ-সম্পদ বেড়েছে চার কোটি পাঁচ লাখ ৩১ হাজার ১৯০ টাকার।

এবারের হলফনামায় উল্লেখ করেছেন, কৃষি খাত থেকে তার আয় তিন লাখ ৬৮ হাজার ৯২৭ টাকা। বাড়ি, অ্যাপার্টমেন্ট, দোকান ভাড়া ২৭ লাখ ৫৭ হাজার ১৩৭ টাকা। শেয়ার, সঞ্চয়পত্র, ব্যাংক আমানত ২০ লাখ ২৭ হাজার ৩৫২ টাকা। সংসদ সদস্য হিসেবে সম্মানী ছয় লাখ ৬০ হাজার টাকা। নগদ এক কোটি তিন লাখ ৫১ হাজার ১৭ টাকা। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা দুই কোটি ৩৮ লাখ ৯১ হাজার ৭৯৯ টাকা। বন্ড, ঋণপত্র, তালিকাভুক্ত ও অতালিকাভুক্ত শেয়ার কোম্পানির শেয়ার দুই কোটি ২৪ লাখ ৪৫০ টাকা। পোস্টাল, সেভিংস, স্থায়ী জামানতে বিনিয়োগ ৫০ লাখ টাকা। যানবাহনের মূল্য ৯০ লাখ টাকা। স্বর্ণালংকার ৩০ হাজার টাকা। আসবাবপত্র ৪০ হাজার টাকা। বগুড়া ও গাজীপুরে ২৬ দশমিক ২৬ বিঘা কৃষিজমি দুই কোটি ৯৯ লাখ ৮৯ হাজার ৬১০ টাকা ও অকৃষিজমি ১৩ লাখ পাঁচ হাজার ২০১ টাকা।

বগুড়া শহর, সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও গাজীপুরের শ্রীপুরে দালান চার কোটি আট লাখ ৭৬ হাজার ৮৩১ টাকা। একটি অ্যাপার্টমেন্ট ১৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং বগুড়ায় দোকানঘর ১০ লাখ টাকা। গত নির্বাচনে তার দেনা না থাকলেও এবারের হলফনামায় ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকার দেনা দেখানো হয়েছে।

/কেএইচটি/
সম্পর্কিত
আরও তিন উপজেলায় ভোট স্থগিত
ভোটের আগে পাঁচ ওসি প্রত্যাহার
১৯ উপজেলায় নির্বাচন স্থগিত
সর্বশেষ খবর
কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এলো মৃত হরিণ
কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এলো মৃত হরিণ
দেশে ফিরে এভারেস্টজয়ী বাবর বললেন, গর্ববোধ করছি
দেশে ফিরে এভারেস্টজয়ী বাবর বললেন, গর্ববোধ করছি
চাকরির মেয়াদ শেষে জাবি রেজিস্ট্রারের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ: ইউজিসির নির্দেশনা লঙ্ঘন
চাকরির মেয়াদ শেষে জাবি রেজিস্ট্রারের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ: ইউজিসির নির্দেশনা লঙ্ঘন
আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে নানা কর্মসূচি
আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে নানা কর্মসূচি
সর্বাধিক পঠিত
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকায় ১১ প্রকল্পে অনুমোদন
সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকায় ১১ প্রকল্পে অনুমোদন
যুদ্ধাপরাধের তদন্ত: আইসিসির প্রসিকিউটরকে হুমকি দিয়েছিলেন মোসাদ প্রধান
যুদ্ধাপরাধের তদন্ত: আইসিসির প্রসিকিউটরকে হুমকি দিয়েছিলেন মোসাদ প্রধান
পুলিশের সার্জেন্ট দম্পতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা
পুলিশের সার্জেন্ট দম্পতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা