X
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪
৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

কুড়িগ্রামে ভুটানিজ অর্থনৈতিক অঞ্চলের নির্ধারিত স্থান নিয়ে রাষ্ট্রদূতের দুটি প্রশ্ন

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
১০ মার্চ ২০২৪, ২৩:৩৩আপডেট : ১১ মার্চ ২০২৪, ০১:২৭

কুড়িগ্রামে প্রস্তাবিত ‘ভুটানিজ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল’ হতে যাচ্ছে। এজন্য রবিবার (১০ মার্চ) দুপুরে কুড়িগ্রাম সদরের ধরলা ব্রিজের পূর্ব দিকে মাধবরাম মৌজায় অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত স্থান পরিদর্শনে আসেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েনসিলের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধি দল। তারা নির্ধারিত স্থানে কিছু সময় অবস্থান করে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে ধারণা নেন।

জিটুজি ভিত্তিক প্রস্তাবিত যৌথ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত স্থান সরেজমিন পরিদর্শন শেষে রাষ্ট্রদূত স্থানীয় প্রশাসনের কাছে দুটি বিষয় জানতে চান। পরিদর্শন দলের সফর সঙ্গী বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) যুগ্ম সচিব ও জেনারেল ম্যানেজার ড. শেখ মোহাম্মদ জোবায়েদ হোসেন এবং কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ রাষ্ট্রদূতের প্রশ্নের জবাব দেন।

ধরলা তীরবর্তী স্থানটি নিয়ে জানতে চেয়ে রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েনসিল বলেন, নির্ধারিত স্থানটিতে বন্যা কতটা গুরতর প্রভাব ফেলে?

জবাবে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ বলেন, ‘স্থানটি সম্পূর্ণভাবে বন্যার প্রভাবমুক্ত। পাশেই বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ রয়েছে। ফলে স্থানটিতে বন্যার পানি প্রবেশ করতে পারে না।’

ভারী বৃষ্টিপাতে স্থানটিতে জলাবদ্ধতা হয় কিনা? রাষ্ট্রদূতের এমন প্রশ্নে বেজার জেনারেল ম্যানেজার ড. শেখ মোহাম্মদ জোবায়েদ হোসেন বলেন, ‘সামান্য জলাবদ্ধতা হতে পারে। আপনি কারখানা স্থাপন করতে চাইলে স্থানটি কিছুটা উঁচু করার প্রয়োজন হতে পারে। সেক্ষেত্রে আমরা (বেজা) সেটা করে দিতে পারি।’

পরে রাষ্ট্রদূত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। তিনি বলেন, ‘অর্থনৈতিক অঞ্চল হলে এখানে কর্মসংস্থান, বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সুযোগ সৃষ্টি হবে। ফলে কুড়িগ্রাম এলাকার মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি ঘটবে। এটি বাংলাদেশ-ভুটানের চলমান সুসম্পর্ককে আরও অর্থবহ ও মজবুত করবে। আমরা আশাবাদী, এই উদ্যোগ উভয় রাষ্ট্রের জন্য অত্যন্ত ভালো হবে।’

অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত স্থান পরিদর্শন শেষে প্রতিনিধি দল জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দর পরিদর্শনে যান। দুই দিনের সফরে আসা দলটির সদস্যরা সোমবার চিলমারী নৌবন্দর পরিদর্শন শেষে কুড়িগ্রাম ত্যাগ করবেন বলে সফরসূচি সূত্রে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, জেলার সোনাহাট স্থলবন্দর, চিলমারী নৌ-বন্দর এবং রৌমারী তুরা স্থলবন্দর পথে ভারত হয়ে ভুটানের সঙ্গে যোগাযোগ সুবিধা রয়েছে। দূরত্ব অনেকটা কম।

ভুটানের চার সদস্যের প্রতিনিধি দলের কুড়িগ্রাম পরিদর্শনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ, পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহফুজুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) উত্তম কুমার রায়, কুড়িগ্রাম পৌর মেয়র কাজিউল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুসফিকুল আলম হালিম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিজানুর রহমানসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মচারীরা।

২০২৩ সালের মে মাসে লন্ডনে ভুটানের রাজা ও রানির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সভায় কুড়িগ্রামে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ ও ভুটান সরকারের যৌথ উদ্যোগে কুড়িগ্রামে জিটুজি ভিত্তিক প্রস্তাবিত ভুটানিজ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের জন্য জেলা শহরের পূর্ব প্রান্তে ধরলা ব্রিজের পূর্বে কুড়িগ্রাম-ভূরুঙ্গামারী সড়কের পূর্ব পাশে অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য জায়গা নির্ধারণ জেলা প্রশাসন ও বেজা।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, সদরের ভোগডাঙা ইউনিয়নের মাধবরাম মৌজার অন্তর্ভুক্ত ১৩৩ দশমিক ৯২ একর খাস জমি অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষকে (বেজা) হস্তান্তর করেছে জেলা প্রশাসন। ধরলা ব্রিজের পূর্ব প্রান্তে সৈয়দ ফজলুল করিম (রহ.) জামিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার উত্তর-পূর্ব দিকে এই খাস জমির অবস্থান। অর্থনৈতিক অঞ্চলের প্রয়োজনে ওই স্থানে জমি অধিগ্রহণেরও সুযোগ রয়েছে।

/এএম/
সম্পর্কিত
৭ দেশের জাহাজ চলাচলে করতে হবে না আলাদা চুক্তি
নেপাল ও ভুটান সফরে গেলেন পররাষ্ট্র সচিব
আঞ্চলিক জ্বালানি বাণিজ্যে লাভবান হবে সবাই 
সর্বশেষ খবর
দুই কোরবানির হাটে ক্যাশলেস লেনদেন
দুই কোরবানির হাটে ক্যাশলেস লেনদেন
কানের অফিসিয়াল লালগালিচায় ঢাকার একমাত্র মুখ
কান উৎসব ২০২৪কানের অফিসিয়াল লালগালিচায় ঢাকার একমাত্র মুখ
ফেসবুকে ‘পাত্রী চাই’ বিজ্ঞাপন দিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১
ফেসবুকে ‘পাত্রী চাই’ বিজ্ঞাপন দিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১
১৪ দলের শরিকদের অবমূল্যায়নের অভিযোগ, সান্ত্বনা জোটনেত্রীর
১৪ দলের শরিকদের অবমূল্যায়নের অভিযোগ, সান্ত্বনা জোটনেত্রীর
সর্বাধিক পঠিত
পূর্ব তিমুরের মতো খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে: শেখ হাসিনা
পূর্ব তিমুরের মতো খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে: শেখ হাসিনা
কবে থেকে পরিকল্পনা ও কেন কলকাতায় হত্যা, জানালো ডিবি
এমপি আনার হত্যাকবে থেকে পরিকল্পনা ও কেন কলকাতায় হত্যা, জানালো ডিবি
নেপথ্যে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন, সিলিস্তাকে দিয়ে হানি ট্র্যাপ
এমপি আজীম হত্যাকাণ্ডনেপথ্যে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন, সিলিস্তাকে দিয়ে হানি ট্র্যাপ
সেই শিক্ষকের ‘ওপরের চেহারা’ বিভ্রান্ত করেছে সহকর্মীদেরও
৩০ শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেফতারসেই শিক্ষকের ‘ওপরের চেহারা’ বিভ্রান্ত করেছে সহকর্মীদেরও
এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না আমার ভাই এমপি হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে: মেয়র সেলিম
এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না আমার ভাই এমপি হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে: মেয়র সেলিম