লকডাউন ডায়েরিএটা প্রকৃতির একটা প্রতিশোধ: মৌটুসী (ভিডিও)

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৫৯, মে ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৫, মে ০২, ২০২০

মৌটুসী বিশ্বাসকরোনা মহামারিতে গোটা দুনিয়া স্তব্ধ। কেউ জানে না, এর শেষ কোথায়? এমন এক অনিশ্চিত অন্ধকার সময়কে অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাস দেখছেন স্বাভাবিক দৃষ্টিতে!

বলছেন, ‌‌‘এটাই হওয়ার কথা ছিল। মানুষ প্রকৃতিকে যেভাবে ধ্বংস করছিল, প্রকৃতি এখন সেটার প্রতিশোধ নিচ্ছে। আর কিছুই নয়।’
মৌটুসীর মতে, মানুষ এতকাল ভেবেছিল−পৃথিবীতে তারাই থাকবে। আর কেউ নয়! গাছ থেকে প্রাণী, সবই নির্বিচারে ধ্বংস করছিল। প্রকৃতি মানুষের এই আচরণের জবাব দিচ্ছে করোনাভাইরাসের মাধ্যমে।
দেশের অন্যতম জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী গেলো প্রায় দেড় মাস ধরেই আছেন হোম কোয়ারেন্টিনে। স্বামী আর একমাত্র কন্যাকে নিয়ে তার ছোট্ট সংসার। এই গৃহবন্দি সময়ে তিনি সবচেয়ে বেশি সময় দিচ্ছেন কন্যাকে। যেটা আগে বেশি একটা সম্ভব হতো না শুটিংয়ের কারণে।
চলমান করোনাকাল নিয়ে কী ভাবছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘ভাবি ওই একই কথা, এতকাল আমরা এই প্রকৃতি আর প্রাণীদের কতভাবে না অসম্মান করেছি। এখন সেটা টের পাচ্ছি। জানি না, করোনাকাল শেষে এসব আমাদের মনে থাকবে কি না।’
আরও বলেন, ‘এই যে আমরা ঘরের ভেতর ঢুকে গেলাম। মাস পার হলো কবেই। আমরা জানি না, কবে আবার বাইরে যেতে পারবো। কবে সব স্বাভাবিক হবে। বাঁচবো তো? এসব মিলিয়ে আমাদের জীবনচক্রটাই আসলে বদলে গেলো।’
মৌটুসী তার বাচ্চাকে পড়াশোনা করানোর পাশাপাশি নিজেও এবার মন বসিয়েছেন বইয়ের পাতায়। জানিয়েছেন, সময়ের অভাবে এতদিন অনেক আগ্রহের বই তার পড়া হয়নি, এবার এক এক করে সেসব পড়ছেন।
বাংলা ট্রিবিউন-এর বিশেষ ভিডিও আয়োজন ‘লকডাউন ডায়েরি’র অতিথি হয়ে মৌটুসী আরও জানান, চলমান কোয়ারেন্টিন সময়টাকে তিনি মোটেও উপভোগ করছেন না। যদিও প্রতিনিয়ত চেষ্টা করছেন, ঘরের ভেতর আনন্দ-আবহ তৈরির। কারণ, এই সময়ে শরীর-মন দুটোই সতেজ রাখা জরুরি বলে মনে করেন তিনি।
এর মাঝেও তার মনে মেঘ জমে। দিনমজুর কিংবা দিন এনে দিন খাওয়া মানুষদের কথা ভেবে ভীষণ কষ্ট পান। বলেন, ‘আমি নিজেও দিন এনে দিন খাওয়া মানুষ। শুটিং করলে টাকা পাই, না করলে নাই। এটা আমার জন্য কষ্টের বিষয় বটে, তবে খেয়ে-পরে বেঁচে থাকতে পারছি। কিন্তু যারা শ্রমিক, দিনমজুর তাদের কী অবস্থা? তাদের তো হাত-পা ছাড়া আর কোনও সঞ্চয় নেই। এই মানুষগুলোর জন্য খুব কষ্ট হয়।’
মৌটুসীর ‘লকডাউন ডায়েরি’র পুরোটা দেখা যাবে এখানেই−

 

/এমএম/এমএমজে/

লাইভ

টপ