এবার অন্তর্জালে বসছে জমজমাট ঈদ বিনোদনের পসরা

Send
সুধাময় সরকার
প্রকাশিত : ১৪:৫২, জুলাই ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:১২, আগস্ট ০১, ২০২০

করোনাকাল পেরিয়ে ফের জমে উঠলো শুটিং-রেকর্ডিং। গত ঈদে নাটকে বা গানে বিশেষ কিছু প্রকাশ না পেলেও এবার যেন নতুন উদ্যমে মাঠে নেমেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো। আরও একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, টিভি চ্যানেলের বাইরে অন্তর্জালেও বসছে ঈদের পসরা। এভাবেও বলা যায়, ইউটিউব বা ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটের জন্য নির্মাণ হওয়া কাজগুলোই মূলত এবার প্রচার হবে টিভি চ্যানেলগুলোতে!

এবার আরও একটি উল্লেখযোগ্য দিক হলো, দেশের বেশিরভাগ নাটক প্রযোজনা করেছে সংগীত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো। গানের পাশাপাশি প্রায় শতাধিক নাটক নির্মাণ হয়েছে এসব প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে। তার মধ্যে সিএমভি, সিডি চয়েস, ডিএমএস, ঈগল মিউজিক, গানচিল, সাউন্ডটেক উল্লেখযোগ্য। এই প্রতিযোগিতায় রয়েছে অ্যাপভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোও।এবারও সর্বাধিক নাটকে জুটি হিসেবে থাকছেন অপূর্ব-মেহজাবীন
সিডি চয়েস
প্রতি ঈদে গান ও নাটকের প্রচুর কনটেন্ট প্রকাশ করে দেশের অন্যতম প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিডি চয়েস। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটছে না। জানা গেছে এবার ৯টি অডিও গান প্রকাশ করা হবে। এরমধ্যে রয়েছে বাপ্পা মজুমদারের ‘মনটা ছুঁলেই বুঝবে’, আসিফের ‘মিথ্যেবাদী’, তাহসানের ‘একদিন’, বালামের ‘তুমি রূপকথায়’, এলিটার ‘মিথ্যে আবেগ’, পথিক নবীর ‘ফাঁকি’, ফজলুর রহমান বাবুর ‘প্রেমের মরা’, শেখ সাদীর ‘না এভাবে’, তানজীব সারোয়ার এবং অঙ্কনের ‘দুঃখ যত দাও’।
মিউজিক ভিডিওর তালিকায় রয়েছে মিলন ও বৃষ্টির ‘গ্রহণ করো’, কাজী শুভর ‘কোকিলারে’, তানজীবের ‘মন পোষ মানে না’ ও শামসের ‘অন্তরে রাখি’।
এই ব্যানার থেকে এবার প্রকাশ পাচ্ছে সর্বোচ্চ ১৭টি নাটক। এরমধ্যে রয়েছে ইমরাউল রাফাতের দুটি ‘বাঘের খাঁচা’ ও ‘নিউলি ম্যারেড’। শামীম জামানের তিনটি নাটক ‘পেইনফুল’, ‘প্রতিবেশীকে ভালোবাসো’ ও ‘সাইকেল মেকার’। আরও আছে ‘হ্যালো ম্যারেজ লাইভ’, ‘পেনড্রাইভ’, ‘বিবাহ বিভ্রাট’, ‘কুফা’, ‘প্রক্সি লাভার’, ‘মাল্টিপ্লাগ’, ‘রকেট ভাই’ ও ‘দুবাই জামাই’। এই ব্যানারের ইউটিউব চ্যানেলে আরও প্রকাশ হবে ‘টু-লেট’ নামে সাত পর্বের একটি ধারাবাহিক।
এবারের আয়োজন প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান জহিরুল ইসলাম সোহেল বলেন, ‘গত ঈদে বিষণ্ণতায় কেটেছে আমাদের। এবার শেষ মুহূর্তে এসে ঈদের আমেজ পাচ্ছি। আমরা চেষ্টা করছি মহামারিতে মানুষের এই মন খারাপের সময়টাকে আনন্দে ভরে দিতে। তাই আয়োজনের কোনও ঘাটতি রাখছি না। বলতে পারেন উৎসবের পুরো আমেজ থাকছে আমাদের আয়োজনে।’
সিএমভি
এই ঈদে সিএমভি’র বড় চমকটি হচ্ছে নাটকে। ছয়টি তারকাবহুল নতুন নাটক নির্মিত হলো এই ব্যানার থেকে। যে নাটকগুলোর সঙ্গে জড়িত রয়েছেন এই সময়ের সবচেয়ে সফল ও জনপ্রিয় মুখগুলো। নামগুলো এমন- অপূর্ব, মেহজাবীন, আফরান নিশো, তানজিন তিশা, মিজানুর রহমান আরিয়ান, তাসনিয়া ফারিন, ভিকি জাহেদ প্রমুখ।
এরমধ্যে মিজানুর রহমান আরিয়ানের রয়েছে তিনটি নাটক—‘প্রাণপ্রিয়’, ‘জানবে না কোনোদিন’ ও ‘একাই একশ’। আরও আছে ভিকি জাহেদের নির্বাসন, রুবেল হাসানের ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস চাপাবাজ’ এবং মাহমুদুর রহমান হিমির ‘ভুল এই শহরের মধ্যবিত্তদেরই ছিল’।
নাটক চমকের বাইরে প্রতিষ্ঠানটি ধরে রেখেছে গানের পুরনো ঐতিহ্যটাও। ঈদে সিএমভি প্রকাশ করছে তারকাসমৃদ্ধ ১০টি অডিও গান। দুটি ব্যয়বহুল মিউজিক ভিডিও। গানগুলো হলো মিনারের ‘তোমার ভালো হোক’, ইমরানের ‘ঝড় এলে’, ন্যানসির ‘এমন একটা মন’, তানজীব সারোয়ারের ‘ভুল থেকে শিখেছি’,  ঐশির ‘খুঁজে ফিরি তাই’, বেলাল খানের ‘অচেনা’, মাহতিম সাকিবের ‘তুমি আর আগের মতো নেই’ ও তাহসিনের ‘ইচ্ছে আবেগ’। ইমরান ও সিঁথি সরকারের ‘জানি পাবো না’ ও লায়লার ‘কোনও দুঃখ নাই রে বন্ধু’ নামের দুটি গানের ভিডিও এরমধ্যে প্রকাশ হলো প্রতিষ্ঠানটির ইউটিউব চ্যানেলে।
ঈদ আয়োজন নিয়ে সিএমভির কর্ণধার শেখ শাহেদ আলী পাপ্পু বলেন, ‘গানের সঙ্গে এবার আমরা চেষ্টা করেছি নাটকেও বড় চমক রাখতে। এই চমক শুধু তারকা হিসেবে নয়, গল্প আর নির্মাণের বিষয়েও যথেষ্ট সচেতন ছিলাম আমরা। তাছাড়া চলমান পরিস্থিতিতে সবার করোনা টেস্ট করিয়ে শুটিং করাটাও ছিল একটা চ্যালেঞ্জ। অবশেষে সবকিছু ঠিকমতো হলো। আমরা প্রস্তুত ছয়টি সেরা কাজ নিয়ে। সঙ্গে গানতো প্রকাশ পাচ্ছে। আমার বিশ্বাস এই ঈদের সেরা উপহার হবে সিএমভির নাটকগুলো। সবাইকে ঈদ মুবারক।’
গানচিল
ঈদুল আজহায় দেশের অন্যতম নাটক ও গান প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান গানচিলের ইউটিউব চ্যানেলেও প্রকাশ হবে বেশকটি গান ও নাটক। যদিও করোনার প্রভাবে এবার প্রতিষ্ঠানটির আয়োজন বেশ কম।
প্রতিষ্ঠানের প্রধান গীতিকবি আসিফ ইকবাল জানান, এবার তারা দুটি বিশেষ গানের ভিডিও প্রকাশ করছেন। একটি তাহসানের ‘বোঝাতে পারি না’, অন্যটি ঈশানের ‘বাড়ি যাবো, বাড়ি যাচ্ছি’।
এ ছাড়াও প্রকাশ হচ্ছে মাহাদীর ‘কুসুমের গন্ধ’ ও মুনিয়া মুনের ‘নাইওরী’ নামের দুটি অডিও গান। এই ব্যানার থেকে আরও প্রকাশের কথা রয়েছে তানিম রহমানের নাটক ‘সেলুলয়েড’ ও হিমির ‘কেন’ টেলিছবি।
ধ্রুব মিউজিক স্টেশন (ডিএমএস)
১২ মাসই নাটক আর গান প্রযোজনা করে থাকে এই প্রতিষ্ঠানটি। বিশেষ করে গেল এক বছর এই ব্যানার উপহার দিয়েছে হিট ধারাবাহিক নাটক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’।
তবে ঈদুল আজহা উপলক্ষে এবার প্রতিষ্ঠানটি জোর দিয়েছে গানের ওপর। এরইমধ্যে ঈদ উপলক্ষে পূজা ও কলকাতার রাজ বর্মণের দ্বৈতকণ্ঠে গাওয়া ‘তোকে চাই’ গানের স্টুডিও ভিডিও প্রকাশ হয়েছে ডিএমএস-এর ইউটিউব চ্যানেলে।
ঈদের বিশেষ আয়োজনের অংশ হিসেবে এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান তাদের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করতে যাচ্ছে আসিফ ও মৌটুসীর ‘তুমি এলে’, ইমরান ও সুমনার ‘রাখিস আমার হাতটা ধরে’, রুবাইয়েত জাহানের ‘দুটি চোখ’, অংকনের ‘তৃষ্ণা’, ইমন খানের ‘বেঈমান’, লুৎফর হাসানের ‘কার বালিশে ঘুমাও’, প্রিন্স রুবেলের ‘মন কান্দে’, মিলন ও বৃষ্টির ‘প্রেম রোগ’, রবিন রউফের ‘কত কথা’ প্রভৃতি।
ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের কর্ণধার কণ্ঠশিল্পী ধ্রুব গুহ বলেন, ‘আমরা সবার কথা ভেবে অনেক কিছুই করছি। তবে আমাদের মূল শেকড় গানেই। গান দিয়েই আমাদের প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু হয়। তাই ঘুরেফিরে গানকেই আমরা সব সময় প্রাধান্য দেওয়ার চেষ্টা করি। এবার নাটক না করার আরেকটি বড় কারণ, করোনার মধ্যে শুটিং জটিলতায় যেতে চাইনি।’
সিনেস্পট
অ্যাপভিত্তিক এই ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটে ঈদ আয়োজনে সাতটি টেলিছবি ও চারটি নাটক প্রকাশ হবে। সাত টেলিছবির মধ্যে রয়েছে সঞ্জয় সমাদ্দার পরিচালিত তিনটি- ‘অপরূপা’, ‘যে শহরে টাকা উড়ে’ ও ‘পলিটিকস’। রয়েছে আশফাক নিপুণের দুটি টেলিছবি- ‘ভিকটিম’ ও ‘ইতি মা’। মিজানুর আরিয়ানের ‘শহর ছেড়ে পরাণপুর’ আর শামীম জামানের ‘কন্ট্রাক্ট’।
চারটি নাটকের মধ্যে রয়েছে রাফাত মজুমদারের দুটি- ‘বোধ’ ও ‘অপরাধী’, সোহেল আরমানের ‘মিথ্যে প্রেম’ ও ইমরাউল রাফাতের ‘তোমায় নিয়ে’।
সিনেস্পটের বিপণন পরিচালক তামজিদ-উল আলম বলেন, ‘গত ঈদে দর্শকদের জন্য তেমন কিছু করতে পারিনি। তাই এবার ঘাটতি রাখিনি। এবার আমাদের সব কাজ তারকাসমৃদ্ধ। প্রতিটিই বড় বাজেটে নির্মাণ করা হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস, ঈদে দর্শকদের মধ্যে কাজগুলো জনপ্রিয়তা পাবে।’
বঙ্গ
নাটক ও সিনেমা দিয়ে পাঁচ দিনের ঈদ আয়োজন সাজিয়েছে অ্যাপ বঙ্গ। এতে থাকছে ৪টি সিনেমা, ৩টি নাটক ও ৬ পর্বের একটি ধারাবাহিক নাটক।

সিনেমাগুলো হলো পরীমনির ‘রক্ত’, মাহির ‘হানিমুন’, ভারতীয় ছবি ‘গুগলের কীর্তি’ ও ‘মনচুরি’। একঘণ্টার নাটকগুলো হলো ‘শেষ বিকেলের মেয়ে’, ‘কোরবানি’ ও ‘বার্ডস আই’। ছয় পর্বের ধারাবাহিকটির নাম ‘একটু পরে রোদ উঠবে’।
হইচই
ভারতীয় অ্যাপ হলেও বাংলাদেশে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম। সেই সূত্রে এই ঈদে ৩টি বাংলাদেশি সিনেমা থাকছে এই অ্যাপে। গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘স্বপ্নজাল’, জাহিদুর রহিম অঞ্জনের ‘মেঘমল্লার’ ও মোরশেদুল ইসলামের ‘অনিল বাগচীর একদিন’।
হইচইয়ের মাধ্যমেই ‘মেঘমল্লার’ ও ‘অনিল বাগচীর একদিন’ ছবি দুটির ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হচ্ছে।
বায়োস্কোপ
ঈদুল আজহার বিশেষ উপহার হিসেবে বায়োস্কোপ অ্যাপে প্রকাশ হবে বাংলায় ডাবিং করা তুরস্কের দুটি ধারাবাহিক ‘হুররাম’ ও ‘মারিয়া’। এছাড়া বাংলাদেশ ও ভারতের সাতটি বাংলা ছবি এই ঈদে বায়োস্কোপ থেকে উন্মুক্ত করা হবে। ছবিগুলো হলো—‘ফাগুন হাওয়ায়’, ‘এলার চার অধ্যায়’, ‘কাদম্বরী’, ‘উজান বাতাস’, ‘পারাপার’, ‘নায়িকা সংবাদ’ ও ‘মনের মানুষ’।
...এবং অন্যান্য
এছাড়া প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ঈগল ও জি সিরিজ সূত্র জানায়, দুটি প্রতিষ্ঠানই ৩০টি করে নাটক প্রকাশ করবে এই ঈদে। এরমধ্যে জি সিরিজ থেকে প্রকাশ হবে প্রায় ১৫০টি গান! এর বাইরে সাউন্ডটেক, অনুপম রেকর্ডিং, আজব রেকর্ড, সংগীতাসহ অনেক প্রতিষ্ঠানও ছোট পরিসরে ঈদের পসরা সাজিয়েছে নিজ নিজ ইউটিউব চ্যানেলের ওপর ভরসা করে।

অন্যদিকে অনেক শিল্পী ব্যক্তিগত উদ্যোগেও এবার গান-ভিডিও প্রকাশ করছেন নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে।

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ