জোর করে স্বীকারোক্তি আদায়ের অভিযোগ রিয়ার

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৯:৩৮, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৪০, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২০

রিয়া-সুশান্তগত ৮ সেপ্টেম্বর গ্রেফতার করা হয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘প্রেমিকা’ রিয়া চক্রবর্তীকে। এরপর ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ এসেছে।
অভিযোগ, মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে এই তরুণ অভিনেত্রীর। তবে বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) আদালতকে রিয়া জানালেন, মাদকের সঙ্গে কোনোভাবেই যুক্ত নন তিনি। বরং ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) তার কাছে জোর করে স্বীকারোক্তি আদায় করেছে!
অন্যদিকে আদালতে রিয়ার জামিনের আবেদনের শুনানির সময় এনসিবিও অনেক অভিযোগ তোলে। আর্জি জানায়, রিয়ার জামিন যেন না দেওয়া হয়। তাদের মতে, রিয়া নিজেই মাদক সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছেন।
রিয়ার উকিল সতীশ মানশিন্ডের ভাষ্য, ‌‘রিয়াকে জোর করে মাদক সেবনের কথা স্বীকার করতে বাধ্য করেছে এনসিবি।’ রিয়াও উকিলের সঙ্গে সহমত হয়ে জানিয়ে বলেছেন, তাকে বাধ্য করা হয়েছে এগুলো মেনে নিতে।
তবে এখনই রিয়ার কথাতে আস্থা রাখছেন না আদালত। তাই তার জামিন শুনানিও স্থগিত করা হয়েছে।
এদিকে, মঙ্গলবার গ্রেফতার হওয়ার সন্ধ্যাতেই রিয়ার মেডিক্যাল টেস্ট করা হয়। প্রথম রাতে এনসিবি কোয়ার্টারেই ছিলেন তিনি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের মতে, সারা রাত না ঘুমিয়ে পায়চারী করতে দেখা যায় তাকে। এর পরদিন মুম্বাইয়ের বাইকুলা জেলে রাখা হয় রিয়াকে। মাটিতে চাটাই পেতে রাত কাটান তিনি।
সুশান্তের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে ছিলেন রিয়া। তাই রিয়াকে ঘিরেই সব অভিযোগের তীর। প্রথমদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তোপের মুখে পড়েন। পরবর্তী সময়ে সামাজিক ও প্রশাসনিকভাবে জেরার মুখে পড়তে হয়েছে তার পুরো পরিবারকে। তবে সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে এখনও তার সরাসরি কোনও সূত্র পায়নি সিবিআই।
সূত্র: নিউজ ১৮

/এম/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ