ফরাসি পণ্য বর্জনের ঘোষণা নুসরাত ফারিয়ার!

Send
সুধাময় সরকার
প্রকাশিত : ১৫:১৬, অক্টোবর ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৩৮, অক্টোবর ৩১, ২০২০

নুসরাত ফারিয়া। ছবি: সাজ্জাদ হোসেনশিরোনামটি বিস্ময়কর মনে হলেও এটাই সত্যি, দুই বাংলার ‘পটাকা গার্ল’ নুসরাত ফারিয়া চলমান ‘ফরাসি পণ্য বর্জন’ আন্দোলনে শামিল হয়েছেন।
শনিবার (৩১ অক্টোবর) তিনি ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানিয়েছেন, তার ব্যবহৃত ফ্রান্সের দামি ব্র্যান্ডের কারটিয়ের ঘড়িটি ফেলে দিয়েছেন। জুড়ে দিয়েছেন #Boycott_French_Products।
ফারিয়ার এমন ঘোষণায় মিডিয়ায় বইছে বিস্ময়ের বাতাস। অনেকেই বলছেন, পণ্য যে দেশেরই হোক, নিজের টাকায় কিনলে সেটি নিজেরই হয়ে যায়। ফলে কেনা পণ্য ফেলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত সঠিক নয়।
আবার কেউ কেউ মজা করেই খোঁজ নিচ্ছেন, ১২ থেকে ২০ লাখ টাকা দামের ঐ দামি ঘড়িটি ফারিয়া ঠিক কোথায় ফেলেছেন!
তবে নুসরাত ফারিয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ঘড়ি আসলে ফেলে দেওয়ার বিষয়টি প্রতীকী প্রতিবাদ। ফেলে দেওয়া মানে আর ইউজ করবো না। যদি না চলমান বিতর্কের সুরাহা না হয়।’

I am throwing away my cartier watch. #Boycott_French_Products

Posted by Nusraat Faria Mazhar on Friday, October 30, 2020


নুসরাত ফারিয়া আরও বলেন, ‘শুধু ঘড়ি ব্যবহার না। ফ্রান্সের কোনও পণ্য আর কিনছি না।’
এদিকে নুসরাত ফারিয়া এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন নুর ইমরান মিঠুর ‘পাতাল ঘর’ এবং ভারতের জি-ফাইভ প্রযোজিত ওয়েব চলচ্চিত্র ‘যদি... কিন্তু... তবুও...’ নিয়ে।


ফারিয়া বললেন, ‘পাতাল ঘর-এর শুটিং শেষ করলাম আজ (৩১ অক্টোবর)। ৫ থেকে ৭ নভেম্বর ব্যস্ত থাকবো একটি বিজ্ঞাপনের শুটিং নিয়ে। ৮ নভেম্বর থেকে জি-ফাইভের কাজটি করবো টানা।’
অন্যদিকে গেলো পূজায় নুসরাত ফারিয়া আলোচনায় আসেন নিজের গাওয়া দ্বিতীয় গানচিত্র প্রকাশ করে। ভারতের শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস-এর ব্যানারে ‘আমি চাই থাকতে’ শিরোনামের গানটি ভালোই জনপ্রিয়তা পায় দুই বাংলায়।
নুসরাত ফারিয়া/ ছবি: সাজ্জাদ হোসেনউল্লেখ্য, মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের জেরে এক মুসলিম উগ্রবাদী কর্তৃক একজন ইতিহাস শিক্ষককে হত্যার পর থেকেই উত্তপ্ত ফ্রান্স। ওই ঘটনার পর অন্তত ৫০টি মসজিদ ও মুসলিম-অধ্যুষিত এলাকায় ভয়াবহ অভিযান চালায় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তার এ ঘোষণায় মুসলিম বিশ্বে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। ইসলামের প্রতি এমন মানসিকতার জন্য ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার বলে মন্তব্য করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। মুসলিম দেশগুলোতে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেওয়া হয়।
মূলত সেই ডাকেই এবার শামিল হলেন দুই বাংলার অন্যতম চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া।

/এমএম/এমএমজে/

লাইভ

টপ