X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

দুই নেতাকে বহিষ্কার, বিদ্রোহীদের কড়া বার্তা পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির

আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৪৫

আশঙ্কাই সত্যি হলো। দুই বিদ্রোহী নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার ও রীতেশ তেওয়ারিকে শোকজ করার পর তারা ভারতের মন্ত্রী শান্তনু ঠাকুরের সাহায্য নিয়ে বঙ্গ বিজেপির বিরুদ্ধে দিল্লিতে দরবার করছিলেন। ঠিক তখনই জয়প্রকাশ ও রীতেশকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করলো পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি।

এই বহিষ্কার দলের অন্দরে বিদ্রোহের আঁচে রাশ টানতে এবার নরমে-গরমে চলার সিদ্ধান্ত পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির, তা জানিয়ে দিলো। এদিন সন্ধ্যায় রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে কার্যালয় সম্পাদক প্রণয় রায় বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়েছেন, ‘রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের নির্দেশ অনুসারে রীতেশ তেওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের তদন্ত শেষ না হওযা পর্যন্ত তাদের দল থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হচ্ছে। রাজ্য সভাপতির এই নির্দেশ অবিলম্বে কার্যকর করা হচ্ছে।’

এভাবেই ‘বিদ্রোহী’ নেতাদের একাংশকে শাস্তি, অপর অংশকে কাছে টেনে নিয়ে বিদ্রোহে জল ঢালার পরিকল্পনা করছে বঙ্গ বিজেপির কোর কমিটি।

সূত্রের খবর, বিদ্রোহ দমনে বঙ্গ বিজেপির পক্ষ থেকে প্রথমে টার্গেট করা হয়েছে সেই সব বিধায়কদের যারা এই মুহুর্তে জেলা সভাপতিদের ওপর অনাস্থা এনে দলীয় বিধায়কদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছিলেন এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে চিঠি দিয়েছিলেন। জেলাজুড়ে এমন বিধায়ক সংখ্যা প্রায় ১২ জন। আপতত ক্ষোভ প্রশমনের জন্য তাদের বাড়তি গুরুত্ব দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

বাংলাজুড়ে পুরনিগম ও পৌরসভাগুলোর ভোটে তাদের আহ্বায়কের দায়িত্ব দেওয়া হবে। আহ্বায়ক হিসেবে তারা এই নির্বাচনগুলো পরিচালনার দায়িত্বে থাকবেন। বিজেপির সাংগঠনিক বিভিন্ন জোনের বৈঠক থেকে তাদের এই দায়িত্ব বন্টন করা হবে।

বঙ্গ বিজেপির একজন শীর্ষ নেতা বলেন, ‘দলের অভ্যন্তরে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে এখন সর্তকভাবে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। বিদ্রোহীদের মধ্যে যারা নেতৃত্ব দিচ্ছেন তাদের অনেকেরই কোনও জনভিত্তি নেই। তাদের সঙ্গে স্থানীয় থেকে জেলা বা রাজ্য পর্যায়ে কোনও নেতাকর্মী নেই; এমনদের আলাদা করে ফেলা হবে। বাকি যারা রয়েছেন তাদের দলের বিভিন্ন কমিটিতে নেওয়া হবে। এখন দলের রাজ্য পর্যায়ে মোর্চাগুলোর সভাপতির নাম ঘোষণা হলেও কমিটি হয়নি। রাজ্য সেলগুলোরও সম্প্রতি কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে। জেলা পর্যায়ে সভাপতি ঘোষিত হলেও কমিটি তৈরি হয়নি। বিদ্রোহী নেতাদের সেখানে গুরুত্ব অনুসারে নেওয়া হবে।‌’

সূত্রের খবর, শান্তনু ঠাকুরের বিষয়টি যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। কারণ তার সঙ্গে মতুয়া ভোট ব্যাংক রয়েছে। সিএএ আইন কার্যকর না হওয়ায় তিনি প্রথম থেকেই ক্ষুব্ধ ছিলেন। এরপর মতুয়া অধ্যুষিত বনগাঁ এবং নদিয়া জেলা কমিটির সভাপতি ঘোষণার ক্ষেত্রে শান্তনুর দাবি মানেনি রাজ্য নেতৃত্ব। এতে আরও ক্ষুব্ধ হন তিনি। তার এই ক্ষোভ ও জনভিত্তিকে কাজে লাগিয়ে রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়া কয়েকজন নেতা যাদের কোনও সাংগঠনিক ক্ষমতা নেই তারা এই বিদ্রোহকে আরও উসকে দেন। এমনটাই মত মুরলীধর সেন লেনের কর্তাদের।

বঙ্গ বিজেপির ওই নেতা বলেন, ‘সিএএ কার্যকর করা এবং শান্তনু ঠাকুরের সঙ্গে মধ্যস্থতার বিষয়টি কেন্দ্রের ওপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে অমিত শাহ ও জেপি নাড্ডা বিষয়টি সমধান করতে পারবেন বলে আমরা মনে করি। বঙ্গ বিজেপির তফশিলি মোর্চার সহ-সভাপতি থেকে সাধারণ সম্পাদকসহ একাধিক পদে এবং বনগাঁ ও নদিয়া জেলা কমিটির বিভিন্ন পদে প্রয়োজনে মতুয়াদের আনা হতে পারে। এভাবে মতুয়াদের আস্থা ফের ফিরে পাওয়া সম্ভব। শান্তনু ঠাকুরকে শান্ত করতে পারলে বিদ্রোহীরা আর হালে পানি পাবে না।’

বিদ্রোহীরা টার্গেট করেছেন বঙ্গ বিজেপির সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ চক্রবর্তীকে। কিন্তু রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের ওপর ক্ষোভ কখনও সেভাবে সামনে আসেনি। সূত্রের খবর, বিদ্রোহীদের এই অবস্থানকেই এনক্যাশ করতে চায় বঙ্গ বিজেপি। সেক্ষেত্রে স্থানীয় পর্যায়ে বিদ্রোহী নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের সম্ভবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। যাই হোক না কেন, পৌর নির্বাচনের আগে এই অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সমাধান খুঁজতে বদ্ধপরিকর মুরলীধর সেন লেনের কর্তারা।

/এমপি/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির মামলায় পশ্চিমবঙ্গের শিল্পমন্ত্রীকে ৩ ঘণ্টা জেরা 
শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির মামলায় পশ্চিমবঙ্গের শিল্পমন্ত্রীকে ৩ ঘণ্টা জেরা 
এনআইডির বয়স সংশোধনে ৩০ হাজার টাকা দাবির অভিযোগ
এনআইডির বয়স সংশোধনে ৩০ হাজার টাকা দাবির অভিযোগ
গাড়ি তল্লাশিকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও র‍্যাবের হাতাহাতি, তদন্ত কমিটি গঠন
গাড়ি তল্লাশিকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও র‍্যাবের হাতাহাতি, তদন্ত কমিটি গঠন
জলবায়ু অভিযোজন অর্থায়ন বাড়ানোর আহ্বান ডিএনসিসির মেয়রের
জলবায়ু অভিযোজন অর্থায়ন বাড়ানোর আহ্বান ডিএনসিসির মেয়রের
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
৩১ বছর পর মুক্তি পাচ্ছে রাজিব গান্ধীর এক হত্যাকারী
৩১ বছর পর মুক্তি পাচ্ছে রাজিব গান্ধীর এক হত্যাকারী
চীনের প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক হতে পারে: প্রতিবেদন
চীনের প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক হতে পারে: প্রতিবেদন
সহিংসতায় উসকানি: শ্রীলঙ্কার ক্ষমতাসীন দলের দুই এমপি গ্রেফতার
সহিংসতায় উসকানি: শ্রীলঙ্কার ক্ষমতাসীন দলের দুই এমপি গ্রেফতার
শ্রীলঙ্কায় দুই বেলার খাবারের দাবিতে বিক্ষোভে বাড়ছে সমর্থন
শ্রীলঙ্কায় দুই বেলার খাবারের দাবিতে বিক্ষোভে বাড়ছে সমর্থন
দূষণে ২০১৯ সালে ভারতে ২৩ লাখ মানুষের মৃত্যু: গবেষণা
দূষণে ২০১৯ সালে ভারতে ২৩ লাখ মানুষের মৃত্যু: গবেষণা