X
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪
২ আষাঢ় ১৪৩১

ইরাক ও সিরিয়ায় ১৭ কুর্দি যোদ্ধাকে হত্যার দাবি তুরস্কের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১০ মে ২০২৪, ১৭:৩৫আপডেট : ১০ মে ২০২৪, ১৭:৩৫

ইরাক ও সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় কুর্দিস্তান ওয়ার্কাস পার্টি (পিকেকে)-র ১৭ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে তুর্কি বাহিনী। শুক্রবার (১০ মে) এই হত্যার দাবি করেছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইরাকের উত্তরাঞ্চলের গারা ও হাকুর্কের বিভিন্ন এলাকায় ১০ জন কুর্দি যোদ্ধাকে হত্যা করেছে তুর্কি বাহিনী। এই এলাকায় ‘ক্লো-লক অপারেশন’র অধীনে প্রায়ই আন্তঃসীমান্ত অভিযান চালায় তুর্কি সামরিক বাহিনী।

মন্ত্রণালয়টি আরও জানিয়েছে, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের দুইটি জায়গা থেকে আরও সাত জন কুর্দি যোদ্ধাকে হত্যা করেছে তারা। এখানে এর আগেও হামলা চালিয়েছে তুরস্ক।

১৯৮৪ সাল থেকে তুরস্কের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ চালাচ্ছে পিকেকে। এই সংগঠনটি তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মদদপুষ্ট একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

উত্তর ইরাকে তুরস্কের আন্তঃসীমান্ত হামলা কয়েক বছর ধরেই উত্তেজনার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই ইরাককে পিকেকে-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছে তুরস্ক। এদিকে, মার্চ মাসে এই গোষ্ঠীটিকে একটি ‘নিষিদ্ধ সংগঠন’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে ইরাক।

গত মাসে বাগদাদ ও কুর্দিস্তানের রাজধানী ইরবিলে কর্মকর্তাদের সঙ্গে উত্তর ইরাকে পিকেকে-এর উপস্থিতির নিয়ে আলোচনা করে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান বলেন, আমি মনে করি, ইরাকও পিকেকে নির্মূল করার প্রয়োজনীয়তা দেখেছে।

সিরিয়ার উত্তরে পিপলস ডিফেন্স ইউনিট (ওয়াইপিজি) যোদ্ধার বিরুদ্ধেও সামরিক অভিযান চালিয়েছে তুরস্ক। এটি পিকেকে-এর একটি শাখা সংগঠন হিসেবে পরিচিত।

এরদোয়ান ও তার মন্ত্রীরা বারবার বলেছেন, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সরকারের সঙ্গে শত্রুতাপূর্ণ সম্পর্ক ভালো করার কাজ করছে তুরস্ক। কিন্তু সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে ওয়াইপিজি-র বিরুদ্ধে নতুন সামরিক অভিযান পরিচালনা করবে আঙ্কারা।

/এসএইচএম/
সম্পর্কিত
ব্রাজিলে গর্ভপাত নিষেধাজ্ঞার বিলের বিরুদ্ধে নারীদের বিক্ষোভ
গাজায় হামাসের অতর্কিত হামলা, ৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত
‘লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখরিত আরাফাতের ময়দান
সর্বশেষ খবর
ব্রাজিলে গর্ভপাত নিষেধাজ্ঞার বিলের বিরুদ্ধে নারীদের বিক্ষোভ
ব্রাজিলে গর্ভপাত নিষেধাজ্ঞার বিলের বিরুদ্ধে নারীদের বিক্ষোভ
দেশের বড় জামাতের জন্য প্রস্তুত গোর-এ-শহীদ, মুসল্লি আসবে ট্রেনে
দেশের বড় জামাতের জন্য প্রস্তুত গোর-এ-শহীদ, মুসল্লি আসবে ট্রেনে
গাজায় হামাসের অতর্কিত হামলা, ৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত
গাজায় হামাসের অতর্কিত হামলা, ৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত
হাসিলের টাকা কম দেওয়ায় লঙ্কাকাণ্ড, হামলা হলো পুলিশের ওপরও
হাসিলের টাকা কম দেওয়ায় লঙ্কাকাণ্ড, হামলা হলো পুলিশের ওপরও
সর্বাধিক পঠিত
রেমিট্যান্সের পালে স্বস্তির হাওয়া, রিজার্ভেও উন্নতি
রেমিট্যান্সের পালে স্বস্তির হাওয়া, রিজার্ভেও উন্নতি
আমরা আক্রান্ত হলে ছেড়ে দেবো না: সেন্টমার্টিন নিয়ে ওবায়দুল কাদের
আমরা আক্রান্ত হলে ছেড়ে দেবো না: সেন্টমার্টিন নিয়ে ওবায়দুল কাদের
কেমন থাকবে ঈদের দিনের আবহাওয়া?
কেমন থাকবে ঈদের দিনের আবহাওয়া?
বেনাপোলে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়, পেট্রাপোল ইমিগ্রেশনে ভোগান্তি
বেনাপোলে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়, পেট্রাপোল ইমিগ্রেশনে ভোগান্তি
‘মাস্তান’ গরুটির জন্য কাঁদছে দর্শক
‘মাস্তান’ গরুটির জন্য কাঁদছে দর্শক