X
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১
গাজায় ত্রাণবাহী গাড়িবহরে হামলা

ইসরায়েলি উগ্রপন্থি গোষ্ঠীর ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৫ জুন ২০২৪, ১৭:৪৫আপডেট : ১৫ জুন ২০২৪, ১৭:৪৫

ইসরায়েলের সহিংস উগ্রপন্থি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবার (১৪ জুন) তিসাভ নাইন নামের সংগঠনটির বিরুদ্ধে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

গাজায় ক্ষুধার্ত বেসামরিক মানুষের কাছে মানবিক সহায়তা পৌঁছাতে বাধা দেওয়া এবং ত্রাণসামগ্রী নষ্ট করার অভিযোগে রয়েছে তিসাভ নাইনের বিরুদ্ধে। অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি সংরক্ষিত সেনা এবং ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের সাথে সম্পর্ক রয়েছে দলটির।

নিষেধাজ্ঞার আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে সংগঠনটির সম্পদ জব্দ করা হবে। এছাড়া তাদের সঙ্গে মার্কিন নাগরিকদের লেনদেন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জো বাইডেনের নির্বাহী আদেশের (ইও) আওতায় এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। পশ্চিম তীরে শান্তি, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা নষ্টকারী ব্যক্তি ও সংস্থাকে শাস্তির আওতায় আনতে এই আইনি কাঠামোটি তৈরি করা হয়েছিল।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, গাজা উপত্যকায় মানবিক সংকট যেন আরও খারাপ না হয়ে পড়ে, তা নিশ্চিত করতে এবং দুর্ভিক্ষের ঝুঁকি কমাতে মানবিক সহায়তার ব্যবস্থা করা জরুরি।

ইসরায়েল ও পশ্চিম তীর হয়ে গাজা অভিমুখী ত্রাণবহরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাটা ইসরায়েল সরকারের দায়িত্ব বলেও উল্লেখ করা হয় বিবৃতিতে।

সম্প্রতি ইসরায়েলি পুলিশ কমিশনার কোবি শাবতাইকে উদ্ধৃত করে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়, গাজা উপত্যকায় ত্রাণবহরকে সুরক্ষা দেওয়া থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বিরত রাখার চেষ্টা করছেন জাতীয় নিরাপত্তামন্ত্রী ইতামার বেন গভির। এর একদিন পরই কিসাভ নাইনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিল বাইডেনের প্রশাসন।

কয়েকমাস ধরে গাজায় ত্রাণ সরবরাহে বাধা দিতে রাস্তাঘাট আটকে বিক্ষোভ করছিল ডানপন্থি ইসরায়েলিরা। সম্প্রতি তারা ত্রাণবহরের ওপর হামলাও চালিয়েছে। বিশেষ করে পশ্চিম তীর হয়ে গাজায় ত্রাণ সরবরাহ করতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। গত মাসে হেবরন হিলস এলাকায় দুটি ত্রাণবাহী ট্রাকে আগুন দিয়েছে তারা। এ হামলার জন্য তিসাভ নাইনকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

তবে এখন পর্যন্ত পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের নির্যাতনের ঘটনায় দায়ী ইসরায়েলি কর্মকর্তা বিশেষ করে বেন গভির এবং অর্থমন্ত্রী বেজালেল স্মোট্রিচের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান উপেক্ষা করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

চলতি মাসেই বেজালেল স্মোট্রিচের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপে মার্কিন প্রশাসনকে অনুরোধ করেন মার্কিন সিনেটর ক্রিস ভ্যান হোলেন।

তিসাভ নাইনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপে সুপারিশ করেছিল ডেমোক্রেসি ফর দ্য আরব ওয়ার্ল্ড নাও (ডিএডব্লিউএন)। এরকম আরও ব্যক্তি ও সংগঠনকে নিষেধাজ্ঞার আওতায় আনতে বাইডেন প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

/এস/
সম্পর্কিত
মার্কিন কংগ্রেসে নেতানিয়াহুর ভাষণ, প্রতিবাদ ও বিভক্তি তুঙ্গে
বাইডেন, হ্যারিস ও ট্রাম্পের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করবেন নেতানিয়াহু
ইসরায়েলে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়নি জার্মানি: শলৎস
সর্বশেষ খবর
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
সর্বাধিক পঠিত
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী