করোনা ভাইরাস নিয়ে চীনা প্রেসিডেন্টের সমালোচনাকারী নিখোঁজ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:২৮, মার্চ ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৭, মার্চ ১৫, ২০২০

করোনা ভাইরাস নিয়ে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সমালোচনা করেছিলেন দেশটির সাবেক একজন প্রভাবশালী কর্মকর্তা। রেন জিকিয়াং নামের ওই ব্যক্তি রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত হুয়াইয়ুআন রিয়েল এস্টেট গ্রুপের শীর্ষ নির্বাহী ছিলেন। তবে গত ১২ মার্চ থেকে ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির এই সদস্যের কোনও খোঁজ মিলছে না। তার তিন বন্ধু যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ১৫ মার্চ রবিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে রয়টার্স।

গত ফেব্রুয়ারিতে এক টেলিকনফারেন্সে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। পরে চীনা প্রেসিডেন্টের নাম না নিয়ে রেন জিকিয়াং বলেন, বক্তব্যে কোনও সম্রাটকে দাঁড়িয়ে তার ‘নতুন পোশাক’ প্রদর্শন করতে দেখা যায়নি। বরং সম্রাট হিসেবে নিজের মেয়াদ বাড়ানোর চেষ্টায় লিপ্ত এক ভাঁড়কে নগ্ননৃত্য করতে দেখা গেছে।

ওই ভাষণের সমালোচনায় শি জিনপিং-কে ‘ভাঁড়’ হিসেবে আখ্যায়িত করে তার লেখা এক নিবন্ধ অনলাইনে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। দৃশ্যত এটাই কাল হয়ে দাঁড়ায় তার জন্য।

নিবন্ধে রেন জিকিয়াং বলেন, বেইজিং দ্রুততার সঙ্গে এ ভাইরাসের মোকাবিলা করতে পারেনি। বরং পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে গেছে। মতপ্রকাশ এবং সংবাদপত্রের স্বাধীনতার ঘাটতির কারণেই এমনটা হয়েছে।

চীনা কমিউনিস্ট পার্টির শাসন ব্যবস্থার সংকট নিয়েও কথা বলেন তিনি।

রেন জিকিয়াংয়ের এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু ওয়াং ইং। রয়টার্সকে তিনি জানান, তার অনেক বন্ধুই রেন জিকিয়াংকে খুঁজছে। তারা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন।

নিখোঁজ সাবেক এই নির্বাহীর নাম্বারে দফায় দফায় ফোন করেও কোনও সাড়া মিলছে না। পুলিশ বা স্টেট কাউন্সিলের তথ্য অধিদফতর; কেউই এ বিষয়ে মুখ খুলতে রাজি হয়নি। ফোনে বারবার চেষ্টা করেও তাদের কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি।

নিখোঁজ সাবেক ওই নির্বাহীর বন্ধু ওয়াং ইং বলেন, ‘রেন জিকিয়াং একজন স্বনামধন্য মানুষ। তার উধাও হয়ে যাওয়ার বিষয়টি মোটামুটি সবাই জানেন। এই ঘটনার জন্য দায়ী প্রতিষ্ঠানগুলোকে শিগগিরই যৌক্তিক ও আইনি ব্যাখ্যা দেওয়া উচিত।’

রয়টার্স বলছে, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে চীনে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত আলাপ থেকে সংবাদমাধ্যম ও অনলাইন ব্যবহারকারীদের ওপর কীভাবে সেন্সর আরোপ করা হয়, রেন জিকিয়াংয়ের নিখোঁজ হওয়ার মধ্য দিয়ে সেটাই ফুটে উঠেছে।

/এমপি/এমওএফ/

লাইভ

টপ