করোনা মোকাবিলায় রবিবার ভারতে ‘জনতা কারফিউ’

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৩৮, মার্চ ১৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৫, মার্চ ১৯, ২০২০

ভারতে করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দেশটিতে ‘জনতা কারফিউ’ জারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে এই কারফিউ জারির ঘোষণা দিয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। করোনা মহামারী মোকাবিলায় ভারত কতটা প্রস্তুত তা পরীক্ষার জন্য রবিবার (২২ মার্চ) সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এই কারফিউ জারি করা হবে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এখবর জানিয়েছে।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে মোদি বলেন, রবিবার সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দেশের সব মানুষকে জনতা কারফিউ পালন করতে হবে। এ সময় কেউ বাড়ি থেকে বের হবেন না। নিজেদের বাড়িতে থাকবেন। জনগণের জন্য জনতা কারফিউ। রবিবার সকালে সাইরেন বাজিয়ে জনতা কার্ফুর সূচনা করতে হবে রাজ্যগুলোকে।

মোদি আরও বলেন, ‘আপনারা যদি ভাবেন আপনি করোনা আক্রান্ত হবেন না,  সব জায়গায় ঘুরে বেড়াবেন, তাহলে তা ঠিক না। আপনি নিজে বিপদ ডেকে আনছেন। এই কয়টা দিন খুব প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হবেন না। বাড়িতে থেকে প্রয়োজনীয় কাজ করুন। ভিড় এড়িয়ে চলুন। অফিসের কাজ বাড়িতেই করুন।’

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের থেকেও ভয়াবহ পরিস্থিতি। মানবসভ্যতা সংকটে। কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি আমরা।’

তিনি আরও বলেন, আপনাদের কাছে কিছু সময় চাইছি। এখন সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। সবাইকে একজোট হয়ে কাজ করতে হবে।’

করোনা মোকাবিলায় নিয়োজিতদের ধন্যবাদ জানানোর আহ্বান জানিয়ে মোদি বলেন, ‘গত ২ মাস ধরে হাসপাতাল, বিমানবন্দরসহ জরুরি পরিষেবায় নিয়োজিত লাখ লাখ লক্ষ মানুষ দিন-রাত এক করে কাজ করছেন। নিজেদের দিকে খেয়াল না রেখে নিরন্তর কাজ করে চলেছেন। ২২ মার্চ বিকেল ৫টায় আমরা দরজা, বারান্দা, জানলার সামনে দাঁড়িয়ে ঘণ্টা বাজাব বা হাততালি দেব তাদের জন্য। এভাবেই তাদের স্যালুট জানাব।’

উল্লেখ্য, রবিবার ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭৩। দেশটিতে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ৪ জন।  

 

 

/এএ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ