সুস্থ হয়ে উঠলেন করোনায় আক্রান্ত ১০৩ বছর বয়সী নারী

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৯:৪৬, এপ্রিল ১০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৫০, এপ্রিল ১০, ২০২০

করোনাভাইরাস মহামারিতে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে। তবে এই ভাইরাসকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন অনেক বয়স্ক ব্যক্তিও। তারা করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করছেন। তেমনই একজন নারী আডা জানুস্সো। ১০৩ বছর বয়সী এই ব্যক্তি জানিয়েছেন, সাহস, দৃঢ়তা আর বিশ্বাসই পারে করোনাভাইরাসকে পরাজিত করতে।

সম্প্রতি জানুস্সো বার্তা সংস্থা এপিকে ভিডিও কলে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমি ভালো আছি, ভালো আছি’। ইতালির পেইডমেন্টের উত্তরাঞ্চলীয় শহর লেসোনার নিবাস থেকে ভিডিওকলে ওই সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত হন জানুস্সো। বলেন, ‘আমি টিভি দেখি এবং পত্রিকা পড়ি’। এসময় জানুস্সোর পাশে তাদের ৩৫ বছর বয়সি পারিবারিক চিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন, তিনি প্রতিরক্ষামূলক গাউন পরে ছিলেন এবং জানুস্সো মাস্ক পরে ছিলেন।

জানুস্সোর চিকিৎসক বলেন, ‘তিনি বৃদ্ধ কিন্তু স্বাস্থ্যবান এবং জটিল কোনো রোগে আক্রান্ত নন। আগামী ১৬ আগস্টে তিনি ১০৪ বছরে পা রাখবেন।’

অসুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে জানুস্সো বলেন, ‘আমার অল্প জ্বর রয়েছে’। তার চিকিৎসক কারলা ফার্নো মার্চেস জানান, ‘তিনি এক সপ্তাহ ধরে বিছানায় ছিলেন। সেসময় তিনি খুব ক্লান্ত ছিলেন এবং কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছিলেন না। একদিন তিনি চোখ মেললেন এবং তার নিত্যদিনের কাজ শুরু করলেন। তিনি একাই বিছানায় উঠে বসলেন এবং বিছানা থেকে নামলেন’।

অসুস্থতা থেকে মুক্তি পেতে কিসে সাহায্য করেছে? এমন প্রশ্নের জবাবে জানুস্সো বলেন, সাহস, দৃঢ়তা এবং বিশ্বাস। এই তিনটি জিনিস তাকে করোনা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করেছে। তিনি পরামর্শ দিয়েছেন করোনাকে হারাতে সাহসী হোন এবং বিশ্বাস রাখুন।

ইতালিতে পাঁচ সপ্তাহ ধরে লকডাউন চলছে। এমন অবস্থায় ঘরের বাইরে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যখন বাইরে যাওয়ার অনুমতি মিলবে তখন বাইরে মন ভরে হাঁটতে চান ১০৩ বছরের জানুস্সো। আর তার নাতি-নাতনিদের ছেলেমেয়ের সঙ্গে খেলতে চান তিনি।

করোনাভাইরাস আক্রান্ত হলে মাঝারি বয়সিরা বেশিরভাগ সুস্থ হয়ে উঠছেন। তবে বয়স্করা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তার পরিণাম বেশিরভাগ ক্ষেত্রে খারাপ হচ্ছে। কারণ তারা বেশিরভাগই বিভিন্ন রোগে ভুগছেন এবং শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম।

/বিএ/

লাইভ

টপ