করোনায় বাড়ছে মৃত্যু, নিউ ইয়র্কে ব্যবহার হচ্ছে গণকবর

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:৪০, এপ্রিল ১০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৪, এপ্রিল ১০, ২০২০

করোনাভাইরাসের মহামারিতে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে গণকবরে কফিন সমাহিত করার ছবি সামনে এসেছে। ওই ছবিতে বিশেষ পোশাক পরিহিত কর্মীদের গণকবরের মধ্যে কফিন নামিয়ে মাটি চাপা দিতে দেখা গেছে। হার্ট দ্বীপের এই ছবি ড্রোন থেকে ধারন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী পৃথিবীর যেকোনও দেশের থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেশি। বৃহস্পতিবার নতুন করে দশ হাজার আক্রান্ত হয়ে সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৯৩৭ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে সাত হাজার মানুষের।

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছে ৮২ হাজারের সামান্য কিছু বেশি মানুষ। অন্যতম আক্রান্ত দেশ স্পেনে এক লাখ ৫৩ হাজার আর ইতালিতে এক লাখ ৪৩ হাজার। তবে সামগ্রিকভাবে যুক্তরাষ্ট্রে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৪ লাখ ৬২ হাজার আর মৃত্যু হয়েছে সাড়ে ১৬ হাজার মানুষের। বিশ্ব জুড়ে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৬ লাখ আর মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৯৫ হাজার মানুষের।

যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি উপদ্রুত হয়েছে নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্য। বুধবার সেখানে একদিনে প্রায় আটশো মানুষের মৃত্যু হয়। সেখানকার হার্ট দ্বীপ থেকেই গণকবর দেওয়ার ছবি ড্রোনে ধারণ করা হয়েছে। এই দ্বীপে গত ১৫০ বছর ধরে শেষকৃত্য আয়োজনে অক্ষমদের মরদেহ সমাহিত করা হয়ে থাকে।   

গণকবরে সমাহিত অনেকেই করোনাভাইরাসে মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সাধারণত এই কবরস্থানে সপ্তাহে একদিন সমাহিত করা হলেও করোনা মহামারি শুরুর পর সপ্তাহে পাঁচ দিনই এখানে সমাহিত করা হচ্ছে।

সাধারণত সেখানকার একটি কারাগারের কয়েদিরা সমাহিতের কাজ করলেও মহামারির সময়ে কাজের চাপ বাড়ায় চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের আনা হয়েছে।  

নিউ ইয়র্ক শহরের মেযর বিল দে ব্লাসিও সম্প্রতি জানিয়েছেন, সংকট চলার সময়ে হয়তো অস্থায়ী কবরস্থানের প্রয়োজন পড়তে পারে। আর হার্ট দ্বীপেই তা করা হবে বলে ইঙ্গিত দেন তিনি। 

/জেজে/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ