ট্রাম্পের সেই 'গেমচেঞ্জার' ওষুধের পরীক্ষা আবারও শুরুর সিদ্ধান্ত

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:০৬, জুন ০৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৫৭, জুন ০৪, ২০২০

করোনাভাইরাসের চিকিৎসার সম্ভাব্য ওষুধ হিসেবে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন এর ব্যবহার নিয়ে আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বুধবার ওষুধটির ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা শুরুর ঘোষণা দিয়েছে সংস্থাটি। এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির প্রধান টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস জানিয়েছেন, প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে বিশেষজ্ঞ কমিটি এই ওষুধটির পরীক্ষা বাতিলের কোনও কারণ খুঁজে পায়নি। উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনা চিকিৎসার ক্ষেত্রে এই ওষুধটিকে 'গেমচেঞ্জার' আখ্যা দিলেও সে দেশের ওষুধ প্রশাসন আগেই এটির ঝুঁকি সম্পর্কে সতর্ক করেছিল। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ল্যানচেট মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় করোনাভাইরাস রোগীদের হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন দিয়ে চিকিৎসায় মৃত্যৃঝুঁকি বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত দেওয়ার পর গত ২৫ মে ওষুধটির ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা বাতিলের ঘোষণা দেয় ডব্লিউএইচও। ওই সময়ে সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়, তথ্য পর্যালোচনার সময়ে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বুধবার ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস জানান, মৃত্যুহার সংক্রান্ত প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশ হলো পরীক্ষা বাতিলের কোনও কারণ নেই। হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনসহ সব ওষুধের পরীক্ষা চলবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের এখন পর্যন্ত কোনও স্বীকৃত ওষুধ আবিষ্কৃত না হওয়ায় পরীক্ষামূলক বিভিন্ন তৎপরতা চলছে। চিকিৎসায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ও ক্লোরোকুইনের ব্যবহার নিয়ে চীনে ফেব্রুয়ারি মাসে চালানো এক সমীক্ষার পর বিষয়টি নিয়ে লেগোসে তুমুল আলোচনা ও বিতর্ক শুরু হয়। মার্চের শেষ সপ্তাহে ট্রাম্প দাবি করেন, যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় ওই ওষুধ অনুমোদন করেছে। তবে তখনই দাবিটি নাকচ করে দেয় এফডিএ। তা সত্ত্বেও লোকজনের মধ্যে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ও ক্লোরোকুইন কিনে ঘরে মজুত করার হিড়িক পড়ে যায়।  তবে এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে খোদ যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রশাসন এই ওষুধের ঝুঁকির ব্যাপারে সতর্ক করে দেয়।

সূত্র: এএফপি

/জেজে/বিএ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ