চীনের হুমকির বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়বে ভারত-যুক্তরাষ্ট্র

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:০৯, অক্টোবর ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১৫, অক্টোবর ২৭, ২০২০

ভারত সফররত যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, দুই দেশের নিরাপত্তা ও স্বাধীনতার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সম্ভাব্য চীনা হুমকির বিরুদ্ধে দিল্লি-ওয়াশিংটন এক হয়ে লড়াই করবে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ভারতীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় এমন মন্তব্য করেন তিনি।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপারকে সঙ্গে নিয়ে ভারতে পৌঁছান পম্পেও। বাৎসরিক কৌশলগত সংলাপের অংশ হিসেবেই তাদের পাঁচ দিনের এই এশিয়া সফর। এই সফরের মূল উদ্দেশ্যই চীনের ক্রমবর্ধমান প্রভাব মোকাবিলায় কৌশলগত সম্পর্ক জোরালো করা।

এমন সময় এই সংলাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে, যখন লাদাখ সীমান্তে চীন-ভারত উত্তেজনা চলমান।

ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠকের আগে পম্পেও বলেন, ‘দুই মহান গণতান্ত্রিক দেশের জন্য আজ পরস্পরের আরও ঘনিষ্ঠ হওয়ার নতুন সুযোগ এসেছে’।

পম্পেও আরও বলেন, ‘নিশ্চিতভাবে আরও অনেক কাজ করার আছে। আমাদের আজ আলোচনা করার মতো অনেক কিছুই রয়েছে: উহান থেকে উদ্ভূত ভাইরাস মোকাবিলা কিংবা পুরো অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতার সুরক্ষা এবং স্বাধীনতার জন্য চীনা কমিউনিস্ট পার্টির হুমকি মোকাবিলা।’

বিশ্লেষকরা বলছেন, চীনের প্রভাব মোকাবিলায় এশিয়াজুড়ে রাজনৈতিক ও সামরিক সম্পর্ক জোরদার করাই এ সফরের লক্ষ্য। 

এর আগে গত সপ্তাহে মার্কিন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন বেইগান দিল্লি সফর করেছেন। তিনি চীনকে ঘরে থাকা হাতি বলে উল্লেখ করেছেন।

ভারত সফর শেষে পম্পেও শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ যাবেন। ভারত মহাসাগরীয় দেশ দুটিতে চীন অবকাঠামো খাতে ব্যাপক বিনিয়োগ করছে, যা ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের জন্য উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পম্পেওর এশিয়া সফর শেষ হবে ইন্দোনেশিয়া গমনের মধ্য দিয়ে।

/এফইউ/বিএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ