X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

শাবিপ্রবির আন্দোলনের সমর্থনে জবি শিক্ষার্থীদের প্রতীকী অনশন, ছাত্রলীগের বাধা

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:২৯

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) চলমান আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে প্রতীকী অনশনে বসেছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা। তবে তাদের অনশনে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা বাধা দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এই অনশন কর্মসূচি শুরু হয়। সাধারণ শিক্ষার্থী ছাড়াও ছাত্র অধিকার পরিষদ ও ছাত্রফ্রন্টের নেতারা অংশ এতে নেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ ব্যাচের শিক্ষার্থী রাকিবের দাবি, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি করছিলাম। এ সময় ছাত্রলীগের কয়েকজন এসে বাধা দেন। তারা বলেন, প্ল্যাকার্ড রাখা যাবে না। এ সময় মিরাজ নামের একজন আমাদের একটা প্ল্যাকার্ড ছিঁড়ে ফেলেন। পরে প্রক্টর স্যার এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।’

অভিযোগের বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম ফরাজি বলেন, ‘আমি আজ ক্যাম্পাসের বাইরে আছি।  এমন কোনও অভিযোগ শুনিনি। ছাত্রলীগের কেউ এমন কিছু করার কথা না, বিষয়টা আমি যাচাই করে দেখবো।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ‘আমাকে একজন এসে বললে, আমি ওদের প্ল্যাকার্ড দিয়ে দিতে বলি। এখনও কোনও লিখিত অভিযোগ পাইনি।’

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ১২ দিন ধরে উত্তাল শাবিপ্রবি। আন্দোলনের প্রথম ছয় দিনে দাবি পূরণ না হওয়ায় গত বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকাল ৩টা থেকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে আমরণ অনশনে বসেন কয়েকজন শিক্ষার্থী। তাদের সেই অনশন এখনও চলমান রয়েছে।

/এফআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো দুই মোটরসাইকেল আরোহীর
ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো দুই মোটরসাইকেল আরোহীর
অবশেষে এ সপ্তাহ থেকে বিরোধী দলগুলোর কার্যালয়ে যাচ্ছে বিএনপি
অবশেষে এ সপ্তাহ থেকে বিরোধী দলগুলোর কার্যালয়ে যাচ্ছে বিএনপি
জিন্স ও টপস পরায় তরুণীকে মারধরের ঘটনায় যুবক আটক
জিন্স ও টপস পরায় তরুণীকে মারধরের ঘটনায় যুবক আটক
বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ প্রস্তাব
গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ-এর প্রথম উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকবৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ প্রস্তাব
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
দরজায় ৩৫০ টাকার তালা, আদায় হয় ৮০০ 
জবির ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলদরজায় ৩৫০ টাকার তালা, আদায় হয় ৮০০