X
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

জাবিতে আসছে অতিথি পাখি, টাকার অভাবে পরিষ্কার হয়নি লেক 

ওয়াজহাতুল ইসলাম, জাবি
১০ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৪৯আপডেট : ১০ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৪৯

শীত এলেই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাড়ে অতিথি পাখির আনাগোনা। ক্যাম্পাসের নানান রকমের গাছপালা ও খাদ্যে ভরপুর লেকগুলো হয়ে উঠে তাদের বিচরণস্থল। এছাড়া এখানকার ভৌগোলিক পরিবেশও উপযুক্ত হওয়ায় প্রতিবছরই প্রচুর পাখির দেখা মেলে। তবে এবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পাখিদের বিচরণস্থল গুরুত্বপূর্ণ লেকগুলো পরিষ্কার করেনি। এর কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে টাকার অভাবে কাজ করা সম্ভব হয়নি। বিষয়টিকে সংশ্লিষ্টদের উদাসিনতা হিসেবে দেখছেন পাখিপ্রেমিরা। 

সাধারণত নভেম্বর মাস থেকে জাবি ক্যাম্পাসে আসতে শুরু করে অতিথি পাখি। পাখির আগমনকে কেন্দ্র করে প্রতিবছরই লেক পরিষ্কার, দর্শনার্থীর অতিরিক্ত ভিড় ঠেকানোর ব্যবস্থাসহ পাখির বিচরণে সমস্যা যেন না হয় এমন উদ্যোগ নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে এবার অতিথি পাখির আগমনকে ঘিরে প্রস্তুতিতে কিছুটা ঘাটতি দেখা গেছে। 

সরেজমিনে ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে ছোট-বড় মিলিয়ে লেক রয়েছে ২৬টি। এগুলোর মধ্যে নতুন কলা ভবন সংলগ্ন লেক, পুরনো রেজিস্ট্রার ভবন সংলগ্ন দুটি লেক, মেডিক্যাল সংলগ্ন পুকুর ও পুরনো কলা ভবন সংলগ্ন লেকটি পরিষ্কার করা হয়েছে। এখনও পরিষ্কার করা হয়নি আল বেরুনি হল, জিমনেশিয়াম, বিপিএটিসি, মনপুরা ও ওয়াইল্ড লাইফ রেসকিউ সেন্টার সংলগ্ন লেকগুলোর কোনটিই। এছাড়া অন্যান্য বছরের মতো সচেতনতামূলক কোনও ব্যানার-ফেস্টুনও দেখা যায়নি।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, সংস্কার (খনন) কার্যক্রম ও পরিষ্কার না করায় আবর্জনা ও কচুরিপানায় ভরে আছে আল বেরুনি হল সংলগ্ন লেক ও ওয়াইল্ড লাইফ রেসকিউ সেন্টার সংলগ্ন লেকগুলো। লেকগুলোতে কচুরিপানার পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় দেখে বোঝার উপায় নেই এগুলো লেক। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বর সংশ্লিষ্ট দোকানগুলোর পেছনে বেড়েছে শিক্ষার্থীসহ বহিরাগতদের আড্ডা। এতে অতিথি পাখিদের অবাধ বিচরণে সমস্যা হতে পারে বলে মনে করছেন পাখিপ্রেমিরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী আবু বকর সিদ্দিকী সজল বলেন, ‘যানবাহনের অতিরিক্ত হর্ন ও বহিরাগতদের অতিরিক্ত ভিড় পাখির অবাধ বিচরণে বড় বাধা। অনেক সময় বহিরাগতরা না বুঝে জোরে শব্দ করেন, ঢিল ছুড়েন। এতে পাখি ভয় পায়।’ এছাড়া মোটরচালিত রিকশা, বাইক ও প্রাইভেটকারের অতিরিক্ত গতি ও হর্ন বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন পাখিপ্রেমিরা।  

পাখি বরণে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের এস্টেট অফিসের মো. আ. রহমান বলেন, ‘লেকতো পরিষ্কারই আছে। কিছুদিন আগেই পরিষ্কার করেছি, পাখিও এসেছে। এই সিচুয়েশনে আর কিছু করা যাবে না। যেগুলোতে পাখি আসে ও অবস্থান করে সেগুলো পরিষ্কার করা হয়েছে। শুধু জিমনেশিয়াম সংলগ্ন বড় লেকটি ইউনিভার্সিটি পরিষ্কারের জন্য টাকা দেবে কিনা জানি না। আর এখনতো তা করারও সময় নেই।’

লেক পরিষ্কার কার্যক্রম কবে শুরু করা হয়েছে জানতে চাইলে আ. রহমান বলেন, ‘এর কাজ আমরা আগেই শুরু করছিলাম। জুলাই-আগস্ট মাসে লেকগুলো পরিষ্কার করা হয়। এখন পর্যন্ত আমরা পাঁচটি লেক সংস্কার করেছি। এগুলোতে পাখি বেশি আসে। তাই এগুলোই এবার সংস্কার করা হয়েছে।’

অন্যান্য যে লেকগুলোতে পাখি আসে সেগুলো পরিষ্কার না করার কারণ কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অর্থাভাবেই আমরা কাজ করতে পারিনি। জিমনেশিয়াম সংলগ্ন লেকটি অনেক বড়। এছাড়া লেকগুলো খনন করা দরকার। এখন এই কাজে কর্তৃপক্ষ খরচ করবে কিনা তারাই ভালো বলতে পারবে। আমরা এস্টেট অফিস থেকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করেছি। আমরা চেয়েছিলাম বাইরে থেকে কোনও ফান্ডিং পাওয়া গেলে ভালো হতো। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতি বছর আমাদেরকে এক থেকে দেড় লাখ টাকা দেওয়া হয়। যা এই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমের জন্য অপর্যাপ্ত।’

পুরনো কলা ভবন সংলগ্ন লেকটি সংস্কারের পরে লিজ দেওয়া হয়। লেকটি সংস্কারের আগে লিজ দেওয়া হয়নি কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ওই সময় আমরা লিজ নেওয়ার কাউকে পাইনি। লেক পরিষ্কারের দুই-তিন মাস পর আমরা লিজ নেওয়ার পার্টি পেয়েছি।’

এদিকে পাখির নিরাপদ বিচরণ নিশ্চিতে সচেতনতামূলক ব্যানার-ফেস্টুন বানানো হয়নি। তবে দ্রুত এই কাজ শেষ হবে বলে জানান এস্টেট কর্মকর্তা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক কামরুল হাসান বলেন, এবারে পাখি এখনও তেমন একটা আসেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াইল্ড লাইফ রেসকিউ সেন্টারের ওখানে কিছু পাখি দেখা গেছে। ট্রান্সপোর্টের দুটি লেক পরিষ্কার হয়েছে। জিমনেশিয়ামের পাশের লেকটি পাখিদের নিরাপদ জায়গা। এটি পরিষ্কার করতে পারলে ভালো হতো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. নূরুল আলম বলেন, ‘অতিথি পাখিদের বরণে আমরা গুরুত্বপূর্ণ লেকগুলো পরিষ্কার করেছি। জিমনেশিয়াম সংলগ্ন লেক পরিষ্কারের বিষয়ে কথা বলবো। এছাড়া বহিরাগতদের অতিরিক্ত ভিড় কমাতে আমরা গার্ডদের নির্দেশনা দেওয়া হবে।’ অতিথি পাখিদের বিচরণে যেন কোনও সমস্যা না হয়, তার সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। 

/টিটি/
সম্পর্কিত
‘সর্বজনীন পেনশনের নামে জনগণের কাছ থেকে টাকা তুলে লুটপাট করছে সরকার’
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের গাছে ঝুলছিল যুবকের লাশ
স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের দাবিতে সারা দেশে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ
সর্বশেষ খবর
শেখ হাসিনার লড়াইয়ের গল্প বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
শেখ হাসিনার লড়াইয়ের গল্প বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
পাঞ্জাবকে হারিয়ে শীর্ষ দুইয়ে থাকার আশা বাঁচিয়ে রাখলো হায়দরাবাদ
পাঞ্জাবকে হারিয়ে শীর্ষ দুইয়ে থাকার আশা বাঁচিয়ে রাখলো হায়দরাবাদ
প্রচণ্ড গরমে এক স্কুলের ২২ ছাত্রী অসুস্থ
প্রচণ্ড গরমে এক স্কুলের ২২ ছাত্রী অসুস্থ
ছাত্রদের সঙ্গে বিকৃত যৌনাচারের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার
ছাত্রদের সঙ্গে বিকৃত যৌনাচারের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার
সর্বাধিক পঠিত
‘নীরব’ থাকবেন মামুনুল, শাপলা চত্বরের ঘটনা বিশ্লেষণের সিদ্ধান্ত
‘নীরব’ থাকবেন মামুনুল, শাপলা চত্বরের ঘটনা বিশ্লেষণের সিদ্ধান্ত
ভারতীয় পেঁয়াজে রফতানি মূল্য নির্ধারণ, বিপাকে আমদানিকারকরা
ভারতীয় পেঁয়াজে রফতানি মূল্য নির্ধারণ, বিপাকে আমদানিকারকরা
হিমায়িত মাংস আমদানিতে নীতিমালা হচ্ছে
হিমায়িত মাংস আমদানিতে নীতিমালা হচ্ছে
এনবিআর চেয়ারম্যানকে আদালত অবমাননার নোটিশ
এনবিআর চেয়ারম্যানকে আদালত অবমাননার নোটিশ
মোবাইল আনতে ডিবি কার্যালয়ে মামুনুল হক
মোবাইল আনতে ডিবি কার্যালয়ে মামুনুল হক