X
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪
১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শিক্ষক সমিতির ক্লাস বর্জনের সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীদের অসন্তোষ, সেশনজটের শঙ্কা

কুবি প্রতিনিধি
২২ মার্চ ২০২৪, ১৫:২৮আপডেট : ২২ মার্চ ২০২৪, ১৫:২৮

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষক সমিতি দ্বিতীয় দফায় ৭ দিনের শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছে। সোমবার (১৮ মার্চ) শিক্ষক সমিতির লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে শ্রেণি কার্যক্রম বর্জনের এ ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে তাদের এ সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীদের মধ্যে অসন্তোষ ও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। তা ছাড়া গত ১৩ এবং ১৪ মার্চেও শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ রেখেছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি।

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শিক্ষক সমিতির শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধের ফলে ক্লাসগুলো হচ্ছে না। কিছু কিছু বিভাগের ঈদের আগে ক্লাস, অ্যাসাইনমেন্ট প্রেজেন্টেশন এবং মিডটার্ম পরীক্ষা শেষ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তাদের ক্লাস বর্জনের ফলে এগুলো ঈদের আগে আর শেষ হচ্ছে না। এতে শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফাইনালে বসতে দেরি হতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাস্টার্সপড়ুয়া কলা অনুষদের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমাদের অ্যাকাডেমিক রুটিন অনুযায়ী ঈদের পরে সেমিস্টার হওয়ার কথা এবং ইনকোর্স ঈদের আগে হওয়ার কথা। ক্লাস না হওয়ায় আমরা এখন পিছিয়ে গেছি। যার ফলে আমাদের শিক্ষাজীবনে লস হয়ে যাচ্ছে কিছুদিন।’

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘শিক্ষক সমিতি ক্লাস বর্জন করেছে নিজেদের স্বার্থের জন্য। তারা শিক্ষার্থীদের নিয়ে ভাবেন না। নিজ ভাবনাতেই ব্যস্ত থাকেন। তারা আমাদের রেগুলার শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন করে ইভিনিং ক্লাস নিচ্ছেন। কারণ, ওটায় লাভ আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শিক্ষকদের ঝামেলায় কেন শিক্ষার্থীরা ভুক্তভোগী হবেন? বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার চেয়ে শিক্ষকদের রাজনীতির চর্চাই বেশি হচ্ছে। এই সিস্টেম, এই রেষারেষি বন্ধ করা উচিত।’

শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধের এ সিদ্ধান্তে কিছু শিক্ষার্থীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। কেননা, শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণার পরও ১৯ এবং ২০ মার্চ বেশ কয়েকটি বিভাগে ক্লাস এবং পরীক্ষা চলমান থাকতে দেখা গেছে। তা ছাড়া ইভিনিং কোর্সগুলোও চলমান আছে।

এ ব্যাপারে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘শিক্ষক এবং শিক্ষার্থী দুই মিলেই বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষকরা থাকেন অভিভাবকের জায়গায়। এখন শিক্ষকরা যদি শান্তিতে না থাকে, বৈষম্যের শিকার হয়, হেনস্তার শিকার হয় এবং সেটি উপাচার্য স্যারকে বারবার বলার পরও কোনও প্রতিকার আসতেছে না। সেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার জন্যই শিক্ষক সমিতির এ কর্মসূচি।’

শিক্ষার্থীদের ক্ষতি এবং সেশনজটের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সাময়িক যে ক্ষতি হচ্ছে সেটা আমরা পুষিয়ে দেবো। রাতে-দিনে এমনকি অনলাইনে অতিরিক্ত ক্লাস নিয়ে হলেও তাদের এ ক্ষতি পুষিয়ে দেবো। এ ব্যাপারে শিক্ষার্থীদের হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই।’

এ ব্যাপারে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএফএম আবদুল মঈন বলেন, ‘শিক্ষকদের যুক্তিযুক্ত দাবিদাওয়া থাকলে সেগুলো নিয়ে বসে সৌহার্দ্যপূর্ণ আলোচনা করতে পারে। এগুলোর সঙ্গে ক্লাস বর্জনের কোনও সম্পর্ক নেই। এতে আমাদের শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে এখনও পাঁচটি বিভাগ অ্যাকাডেমিকভাবে পিছিয়ে আছে। আমি আসার শুরু থেকেই অ্যাকাডেমিক প্ল্যান অনুসারে এগুলো নিরসনে কাজ করছি। আমি শিক্ষকদের আবারও আহ্বান করছি আপনারা ক্লাসে ফিরে যান।’

/কেএইচটি/
সম্পর্কিত
উপকূলীয় এলাকার পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকরা ‘অন্ধকারে’
খুলনায় ১৮১ মিলিমিটার বৃষ্টি, ডুবে গেছে রাস্তাঘাট
দিনব্যাপী ভুগিয়েছে মেট্রোরেল
সর্বশেষ খবর
বৃষ্টির পানিতে পড়ে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যু
বৃষ্টির পানিতে পড়ে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যু
ঈদে ট্রেনের আগাম টিকিট মিলবে শুধুই অনলাইনে, বিক্রি শুরু ২ জুন
ঈদে ট্রেনের আগাম টিকিট মিলবে শুধুই অনলাইনে, বিক্রি শুরু ২ জুন
এবার ঈদযাত্রায় চলবে ২০ বিশেষ ট্রেন
এবার ঈদযাত্রায় চলবে ২০ বিশেষ ট্রেন
ক্ষতচিহ্নিত হাড়মাংস অথবা নিছকই আত্মজনের কথা
ক্ষতচিহ্নিত হাড়মাংস অথবা নিছকই আত্মজনের কথা
সর্বাধিক পঠিত
সর্বোচ্চ উপকার পেতে কাঠবাদাম কীভাবে খাবেন?
সর্বোচ্চ উপকার পেতে কাঠবাদাম কীভাবে খাবেন?
বৃষ্টি থাকবে মঙ্গলবারও  
বৃষ্টি থাকবে মঙ্গলবারও  
বৃষ্টিতে বাইরে বের হলে ছাতা ছাড়াও এই ৫ জিনিস রাখুন ব্যাগে
বৃষ্টিতে বাইরে বের হলে ছাতা ছাড়াও এই ৫ জিনিস রাখুন ব্যাগে
ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান
ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান
রাবিতে খাবারে সিগারেট: আন্দোলন-ভাঙচুরে জড়িতদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত
রাবিতে খাবারে সিগারেট: আন্দোলন-ভাঙচুরে জড়িতদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত