X
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
১১ আশ্বিন ১৪২৯

ধর্ম নিয়ে শ্যামল কান্তির কটূক্তির সত্যতা পায়নি তদন্ত কমিটি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৯ মে ২০১৬, ১৩:১০আপডেট : ১৯ মে ২০১৬, ১৩:১০

নুরুল ইসলাম নাহিদ নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তের বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করার যে অভিযোগ উঠেছে, তার সত্যতা খুঁজে পায়নি মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) তদন্ত কমিটি।
বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকালে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করাসহ মোট চার কারণ দেখিয়ে গত ১৬ মে ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করে স্কুল কমিটি। তাকে বরখাস্তের সিদ্ধান্তকে আইন বহির্ভূত আখ্যায়িত করে স্বপদে বহাল রাখার সুপারিশও করেছে তদন্ত কমিটি।
শ্যামল কান্তি ভক্তের বিষয়ে গঠিত তদন্ত কমিটির দেওয়া প্রতিবেদনকে ঘিরে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার মতো কিছু আমরা পাইনি। ভিন্ন একটি বিষয়কে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছিল। যে সভায় পরিচালনা কমিটি বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেয়, সে সভার এজেন্ডাতেই এ বিষয় ছিল না।
তদন্ত কমিটির দেওয়া প্রতিবেদনের প্রাথমিক পর্যালোচনার ভিত্তিতে নেওয়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তগুলো হলো- অযোগ্যতা এবং দায়িত্বহীনতার কারণে ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটি বাতিল, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে নতুন পর্ষদ গঠন করে বিদ্যালয় পরিচালনা, আইন বহির্ভূতভাবে বরখাস্ত করায় শিক্ষক তার স্বপদে বহাল থাকবেন, আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা মানতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যতটুকু দায়িত্ব বর্তায় তা পালন করা হবে।

আরও পড়ুন: স্কুল কমিটি বাতিল, শ্যামল কান্তি পদে বহাল

শিক্ষক লাঞ্ছিত করার ঘটনাকে ন্যক্কারজনক উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কোনও সভ্য সমাজে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে না। এ ঘটনায় আমরা তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ, ঘৃণা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, আমাদের তদন্ত কমিটি রাত দিন খেটে প্রতিবেদন নিয়ে এসেছে। শিক্ষামন্ত্রণালয়ে জমা দিয়েছে। প্রতিবেদনের প্রাথমিক পর্যালোচনার ভিত্তিতে আমরা সিদ্ধান্তগুলো নিয়েছি। সার্বিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে একটু সময় লাগবে। পর্যালোচনা করে বিস্তারিত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এর সঙ্গে জড়িত দলীয় বিষয়গুলো দলের কর্মকর্তারা নিশ্চিত করবেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষকের মর্যাদাহানি মানে পুরো জাতির মর্যাদাহানি। আমরা শিক্ষককের অমর্যাদা কোনওভাবেই বরদাস্ত করবো না। শিক্ষকের সম্মান নিশ্চিত করতে হবে। কারণ শিক্ষকরাই জাতি গড়ার কারিগর।

সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে শাসন করার সময় ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগ তোলা হয় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

গত শুক্রবার বিদ্যালয়ে পরিচালনা কমিটির সভা চলার সময় মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে তার শাস্তির দাবিতে লোক জড়ো করা হয়। এরপর উত্তেজিত লোকজন তাকে মারধর করে। এলাকার সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতিতে প্রধান শিক্ষককে মারধর ও কান ধরে ওঠবস করান। সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ে প্রতিবাদের ঝড়। রুল জারি করেন হাইকোর্ট। বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে ঘটনা তদন্তে নামে মাউশি। তদন্ত শেষ করে বুধবার শিক্ষামন্ত্রী বরাবর প্রতিবেদন জমা দেয় তদন্ত কমিটি।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে শিক্ষা সচিব মো. সোহবার হোসেন, মাউশির মহাপরিচালক প্রফেসর ফাহিমা খাতুনসহ ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

/আরএআর/এফএস/এজে

সম্পর্কিত
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ঘুমের ব্যাঘাত ঘটাতে পারে যেসব খাবার
ঘুমের ব্যাঘাত ঘটাতে পারে যেসব খাবার
রঙিন খোয়াব দেখে লাভ নেই, বিএনপিকে ওবায়দুল কাদের
রঙিন খোয়াব দেখে লাভ নেই, বিএনপিকে ওবায়দুল কাদের
পারমাণবিক ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যোগাযোগের দাবি রাশিয়ার
পারমাণবিক ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যোগাযোগের দাবি রাশিয়ার
ড্যাপ নিয়ে অসত্য তথ্য দিলে নিন্দা জানাবে রাজউক
ড্যাপ নিয়ে অসত্য তথ্য দিলে নিন্দা জানাবে রাজউক
এ বিভাগের সর্বশেষ
ড্রাইভিং লাইসেন্স দিতে দীর্ঘসূত্রতা, সংসদীয় কমিটির অসন্তোষ
ড্রাইভিং লাইসেন্স দিতে দীর্ঘসূত্রতা, সংসদীয় কমিটির অসন্তোষ
রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহায়তা করবে চীন
রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহায়তা করবে চীন
বিদেশি পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুললো বাংলাদেশ
বিদেশি পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুললো বাংলাদেশ
সাজেদা চৌধুরীর আসনে ভোট ৫ নভেম্বর
সাজেদা চৌধুরীর আসনে ভোট ৫ নভেম্বর
ই-নামজারিতে কেন ৭২ দিন লাগছে জানতে চায় সরকার
ই-নামজারিতে কেন ৭২ দিন লাগছে জানতে চায় সরকার