X
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

'ওমিক্রন সন্দেহে বাড়িতে লাল পতাকা অমানবিক, অনৈতিক'

আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:০৮

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ঠেকাতে ‘সতর্কতা’ হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাত প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকা টানানো হয়েছে গত ৩০ নভেম্বর। একইসঙ্গে ওই বাড়িগুলোর বাসিন্দাদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থাও করেছে জেলা প্রশাসন। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে নির্দেশনার পর জরুরি বৈঠকে বসে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও জেলা প্রশাসন। এরপর বিকালে পুলিশের সহায়তায় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা ওই প্রবাসীদের বাড়িতে সতর্কতামূলক স্টিকার ও লাল পতাকা টানায়।

১ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের বড়মোহা গ্রামে আফ্রিকাফেরত এক প্রবাসীর বাড়িতেও লাল পতাকা টানিয়েছে প্রশাসন। ১০ দিন আগে তিনি আফ্রিকা থেকে ফিরেছিলেন।

ডেলটাসহ করোনার আগের ধরনগুলোর চেয়ে ওমিক্রন বেশি সংক্রামক। মিল নেই আগের উপসর্গের সঙ্গেও। বিশেষজ্ঞরা একে ‘ভয়ংকর’ বলেছেন। তবে তারা এও বলছেন, বাড়ি চিহ্নিত করে ‘লাল পতাকা’ টানানোটা অমানবিক, বেআইনি ও অনৈতিক। দেশে ফেরার সময় তাদের ঠিকমতো ট্রেস না করে এখন বাড়িতে লাল পতাকা টানানো কোনওভাবেই সভ্য সমাজের কাজ হতে পারে না। এটা কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতারই ফল।

জনস্বাস্থ্যবিদরা বলেন, বাংলাদেশে কখনোই হোম কোয়ারেন্টিন কার্যকর কিছু ছিল না, যেটা করোনার শুরুর সময় গতবছরেও বোঝা গিয়েছিল। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিভাগ ও প্রশাসন হোম কোয়ারেন্টিনের সিদ্ধান্ত নিয়ে আবারও দেশকে ওমিক্রনের ঝুঁকিতে ফেলছেন। তাদের মতে, রোগীদের বাড়ি চিহ্নিত না করে দেশের পোর্ট অব এন্ট্রিগুলোতে স্ক্রিনিং জোরদার করাই হবে উপযুক্ত কাজ।

ওমিক্রন এ পর্যন্ত ২২ দেশে ছড়িয়েছে। সিএনএন-এর খবরে বলা হয়েছে, সর্বশেষ এ ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে সৌদি আরবে।

বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী নেচারের তথ্যানুসারে, ওমিক্রন প্রথম শনাক্ত হয় আফ্রিকার বতসোয়ানায়। এরপর একযোগে আরও কয়েকটি দেশে ছড়ায়। তালিকায় আছে দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইসরায়েল, ইতালি, জাপান, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, স্পেন, সুইডেন, যুক্তরাজ্য ও নাইজেরিয়া।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা মানুষের বাড়ি চিহ্নিত করে লাল পতাকা টানানোকে ‘ইনহিউম্যান’ তথা অমানবিক বলেছেন রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর উপদেষ্টা ডা. মুশতাক হোসেন।

এর তীব্র নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মানুষকে আহ্বান জানাতে হবে। তারা যদি আফ্রিকা থেকে আসে, তবে সেটা যেন স্বাস্থ্যকর্মীসহ প্রশাসনকে জানায়। স্বাস্থ্যকর্মীরা কিন্তু পুলিশ বা প্রশাসনকে লাল পতাকা টানানোর জন্য বলেনি। স্বাস্থ্যবিভাগ থেকে আপত্তি করলে নিশ্চয়ই এমনটা বন্ধ হবে। স্বাস্থ্য বিভাগকে জোর কণ্ঠে বলতে হবে যে এ ধরনের লাল পতাকা জনস্বাস্থ্যের বিপরীতে যায়।’

তিনি বলেন, ‘রোগীর গোপনীয়তা রক্ষা করা সবারই দায়িত্ব। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা তো কোনও অপরাধ নয়। তারপরও এমন অভব্য আচরণ করতে হবে কেন? বরং লাল পতাকার অপমানজনক এই শাস্তির ভয়ে এখন কেউ বাইরে থেকে এলেও তা প্রকাশ করবে না। টেস্ট করতেও বের হবে না।’

একই মন্তব্য করেন জনস্বাস্থ্যবিদ চিন্ময় দাস। বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, ‘এক্ষেত্রে লাল পতাকা পুরোপুরি অনৈতিক। এ চর্চা দ্রুত বন্ধ করা দরকার। আইনগতভাবেও এটি ভিত্তিহীন।’

চিন্ময় দাস আরও বলেন, ‘পোর্ট অব এন্ট্রিতে ট্রাভেল ডকুমেন্ট দেখে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে। তার ভেতর লক্ষণ-উপসর্গ থাকলে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে যাবে। লক্ষণ না থাকলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে যাবে। কিন্তু বাড়িতে লাল পতাকা টানানোর অধিকার প্রশাসনকে কে দিয়েছে? এটা নিন্দাজনক কাজ।’

‘হোম কোয়ারেন্টিন বা আইসোলেশন যে কোনও কাজ দেয় না, সেটা করোনার শুরুতে ইতালি থেকে আসা মানুষদের বেলায় দেখেছিলাম। বাংলাদেশের মতো দেশে এটা সম্ভব নয়।’ যোগ করেন চিন্ময় দাস।

কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘একটা সভ্য সমাজে কারও বাড়িতে অসুখ থাকা বা অসুখের আশঙ্কার জন্য লাল পতাকা উড়তে পারে না। এটা মধ্যযুগীয় কাজ।’

তিনি বলেন, ‘কত কিছুই নিয়েইতো উচ্চ আদালতে ভুক্তভোগীরা রিট করেন। আমিতো মনে করি, যাদের বাড়িতে পতাকা টানানো হয়েছে, তাদের রিট করা উচিত। উচ্চ আদালত তাদেরকে (লাল পতাকা যারা টানিয়েছেন) ক্ষমা চাইতে বাধ্য করুক।’

অধ্যাপক নজরুল ইসলাম আরও বলেন, ‘এতে ঝুঁকি বাড়বে। লাল পতাকার ভয়ে মানুষ লুকিয়ে থাকবে। এটা শুধু অনৈতিক নয়, বেআইনিও।’

/এফএ/
সম্পর্কিত
সার উৎপাদনে বিদেশে বিনিয়োগ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা
সার উৎপাদনে বিদেশে বিনিয়োগ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা
সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন একনেকে
সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন একনেকে
মানবাধিকার সংস্থাগুলোর চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
মানবাধিকার সংস্থাগুলোর চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বিএনপি দেশের ক্ষতি করার জন্য লবিস্ট নিয়োগ করেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বিএনপি দেশের ক্ষতি করার জন্য লবিস্ট নিয়োগ করেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সার উৎপাদনে বিদেশে বিনিয়োগ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা
সার উৎপাদনে বিদেশে বিনিয়োগ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা
সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন একনেকে
সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন একনেকে
মানবাধিকার সংস্থাগুলোর চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
মানবাধিকার সংস্থাগুলোর চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বিএনপি দেশের ক্ষতি করার জন্য লবিস্ট নিয়োগ করেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বিএনপি দেশের ক্ষতি করার জন্য লবিস্ট নিয়োগ করেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কোভিড পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় উন্নত বিশ্বের সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ
কোভিড পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় উন্নত বিশ্বের সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ
© 2022 Bangla Tribune