X
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

এদিন ভারতের স্বীকৃতি পেয়েছিল বাংলাদেশ

আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:০০

(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ১৯৭৩ সালের ৬ ডিসেম্বরের ঘটনা।)

১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর সীমাহীন যাতনা আর রক্তের নদী পেরিয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ পেয়েছিল রাষ্ট্রীয় মর্যাদা। কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা সংগ্রামে বন্ধু ভারত স্বাধীন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছিল। বিপ্লবী বাংলার সাড়ে সাত কোটি মুক্তিপাগল মানুষের জন্য ৬ ডিসেম্বর পরম গৌরবের দিন। যেন হাজার বছরের সুপ্ত বাসনার এই সংগ্রামে সার্থক রূপকার বাংলার বিপ্লবী জনগণ। ঠিক এই দিনে ভারতের লোকসভায় শ্রীমতি ইন্দিরার কণ্ঠে বাংলাদেশকে স্বীকৃতিদানকারী প্রথম ঐতিহাসিক ঘোষণা উচ্চারিত হয়। তিনি বলেন, ‘দারুণ প্রতিকূলতার মুখেও বাংলাদেশের জনগণ দুর্বার সংগ্রামের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার ইতিহাসে বীরত্বের অধ্যায়ের সূচনা করেছে।’ অধিকৃত বাংলায় সেদিন বহু প্রত্যাশিত এই ঘোষণাটি কোটি কোটি মানুষের মনে এক আনন্দ অনুভব সৃষ্টি করে। অশ্রু বেদনা আনন্দের মধ্যে নতুন উপলব্ধি তৈরি হয়—স্বাধীনতা আমাদের দ্বারপ্রান্তে, মুক্তি আসছে। আমরা শান্তির প্রত্যাশী শান্তির সপক্ষে, তাই আমাদের সংগ্রাম। বাংলার মানুষ সেদিন শান্তির জন্য যুদ্ধ চেয়েছিল।

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের নাম ঠিকানা আহ্বান

পাকিস্তানি সেনা ও তাদের সহযোগীদের হাতে যেসব বুদ্ধিজীবী শহীদ হয়েছেন বাংলাদেশ গণঐক্যপরিষদ তাদের নাম-ঠিকানা প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে বিশেষ করে যুদ্ধের শেষ পর্যায়ে হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসরদের হাতে যেসব বুদ্ধিজীবী শহীদ হয়েছেন, তাদের নাম-ঠিকানা পাঠানোর জন্য এই দিন গণঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে জনসাধারণের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

খাদ্যশস্য সংগ্রহ অভিযান জোরদার করার আহ্বান

খাদ্যশস্য সংগ্রহ অভিযানের ২০তম দিনে এক লাখ ১০ হাজার টন খাদ্যশস্য সংগ্রহ করা হয়েছে। এই পরিমাণ হচ্ছে, মোট সংগ্রহের লক্ষ্য ৪ লাখ টনের এক-চতুর্থাংশের কিছু বেশি। মন্ত্রণালয়ের মতে, চলতি অগ্রহায়ণ মাসে হচ্ছে ধান কাটার মৌসুম। ইতোমধ্যে অগ্রহায়ণের ২০ দিন পার হয়ে গেছে। সংগ্রহ অভিযান এভাবে চলতে থাকলে নির্ধারিত লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব নাও হতে পারে। সংগ্রহের পরিমাণ আশানুরূপ নয়। খাদ্য মন্ত্রণালয় বলছে, কারণ তাদের হাতে বেশ কিছু সময় রয়েছে, যা সঠিকভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে। খাদ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা বলছেন, ২০ দিনের সংগ্রহ খুব কম নয়। তবে আরও বেশি সংগ্রহ করা যেতো। নানা কারণে তা হয়নি। অভিযান যাতে আরও জোরদার হয়, সেজন্য সরকার নতুন নির্দেশ দিয়েছে। নির্দেশে সীমান্তে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে।

দৈনিক ইত্তেফাক, ৭ ডিসেম্বর ১৯৭৩

আরও দুজন মন্ত্রীর শপথগ্রহণ

১৯৭৩ সালের এই দিন আরও দু’জন নতুন মন্ত্রী শপথ নেন। এ দু'জন মন্ত্রীর একজন হচ্ছেন—মোল্লা জালাল উদ্দিন, অপর জন হচ্ছেন শামসুল হক। বঙ্গভবনে এক সাধারণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তারা শপথগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাষ্ট্রপতি আবু সাঈদ চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রিসভায় সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। যে দুজন নতুন মন্ত্রী শপথগ্রহণ করেন, তারা দু’জনেই সাধারণ নির্বাচনের আগে বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন।

সাধারণ ক্ষমার কারণে পাকিস্তানের অভিনন্দন

গত সপ্তাহে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক দালালদের প্রতি সাধারণ ক্ষমার ঘোষণাকে পাকিস্তান বলিষ্ঠ পদক্ষেপ বলে অভিনন্দন জানায়। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে এই অভিনন্দনের খবর দেয় রেডিও পাকিস্তান। এদিকে পোল্যান্ড বাংলাদেশ থেকে পাট নেবে বলে এদিন একটি চুক্তি সই হয়। ক্রয়কৃত পাটের পরিমাণ ধরে মূল্য নির্ধারিত হয় ৭২ লাখ ৬৮ হাজার টাকা।

টেক্সটাইলের ঘটনা তদন্তে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

এদিন বঙ্গবন্ধু চাঁদ টেক্সটাইল মিলের ঘটনা সম্পর্কে তদন্তের নির্দেশ দেন। বিপিআইয়ের খবরে বলা হয়েছে, এদিন বিকালে মিলের শ্রমিকরা মিছিল করে গণভবনে যান। বঙ্গবন্ধুকে মিলের ঘটনা সম্পর্কে তারা জানান যে কলকারখানায় নানা ধরনের অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলা চলছে। মিলের কোনও কোনও কর্মকর্তা দায়িত্ব পালনে অবহেলা করছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই অভিযোগ শুনে মিলের ব্যাপারে তদন্তের নির্দেশ দেন। শ্রমিকরা যখন মিছিল নিয়ে গণভবনে আসেন, তখন বাংলাদেশ বস্ত্রমিল শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম সেখানে ছিলেন।

/এপিএইচ/এমওএফ/
সম্পর্কিত
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির
‘পৃথিবীর কোনও শক্তিধর রাষ্ট্রই এ দেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের ক্ষমতা রাখে না’
‘পৃথিবীর কোনও শক্তিধর রাষ্ট্রই এ দেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের ক্ষমতা রাখে না’
© 2022 Bangla Tribune