পহেলা বৈশাখের ঘটনায় চিহ্নিত ৮, অভিযুক্ত মাত্র একজন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১০:৫৬, ডিসেম্বর ২০, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪৪, ডিসেম্বর ২০, ২০১৬

পহেলা বৈশাখে শ্লীলতাহানি

২০১৫ সালের পহেলা বৈশাখে শ্লীলতাহানির ঘটনায় শাহবাগ থানায় দায়ের করা মামলায় মো. কামাল হোসেনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। যদিও ওই ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে ৮ জনকে শনাক্ত করা হয়। আর এ মামলায় মাত্র একজন গ্রেফতার হয়েছে। আর তাকেই অভিযুক্ত করে আজ চার্জশিট দেওয়া হলো।

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতের সংশ্লিষ্ট শাখায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই-এর পরিদর্শক আবদুর রাজ্জাক অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এর আগে চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি এ মামলায় কামাল হোসেনকে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করে। এরপর ১৮ জুলাই হাইকোর্ট থেকে ছয় মাসের জামিন পায় কামাল। বর্তমানে তিনি জামিনে রয়েছেন।

ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপপরিদর্শক পার্থ চট্টোপাধ্যায় অভিযোগপত্র দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের ৩৪ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।  

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ১৪ এপ্রিল বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যায় এলাকায় নারীদের  লাঞ্ছনার ঘটনায় শাহবাগ থানায় শ্লীলতাহানির এক মামলা দায়ের করে পুলিশ। এ ঘটনায় ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে ৮ জনকে শনাক্ত করে গণমাধ্যমে ছবি প্রকাশ করে পুলিশ। এরপর এই ঘটনায় ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক দীপক কুমার দাশ আদালতে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, শনাক্ত করা আসামিদের খুঁজে না পাওয়ায় ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চিহ্নিত ৮ জনকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। যদিও বর্ষবরণে শ্লীলতাহানির ঘটনা গোপন ও প্রকাশ্যে প্রমাণিত হয়েছে।

তদন্তে সাক্ষ্য প্রমাণ ও ঘটনার পারিপার্শ্বিকতায় মামলার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে সত্য প্রমাণিত হয়। পরবর্তীতে ঢাকার ৩ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জয়শ্রী সমাপদ্দার ওই প্রতিবেদনটি গ্রহণ না করে পুনঃতদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন।

/এসআইটি/এমডিপি/এসটি/

লাইভ

টপ