ঢাকা ও গাইবান্ধার উপনির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে: জানিপপ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৯:২০, মার্চ ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:২৭, মার্চ ২২, ২০২০

জানিপপঢাকা ও গাইবান্ধায় উপনির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষণ পরিষদ (জানিপপ)। শনিবার (২১ মার্চ) রাতে পাঠানো বিবৃতিতে তারা একথা জানিয়েছে।

এতে বলা হয়, জানিপপ’র ৫ জন স্বল্পমেয়াদি পর্যবেক্ষক ঢাকা-১০ আসনের ২০টি ইভিএম ভোটকেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করেন। এবারের এ উপনির্বাচনে ১১৭টি ভোটকেন্দ্র ছিল এবং সব ভোটকেন্দ্রে ইভিএমে ভোট হয়েছে। পর্যবেক্ষণ কার্যক্রমে নেতৃত্ব দেন জানিপপ’র প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ।

আর গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী উপজেলা) আসনের উপনির্বাচনে ১৩২টি ভোটকেন্দ্রে ব্যালট পেপারের ভোটগ্রহণ করা হয়েছে। জানিপপ’র চার জন স্বল্পমেয়াদি পর্যবেক্ষক গাইবান্ধা-৩ আসনের উপনির্বাচনে ৮টি ভোটকেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করেন। এ নির্বাচন পর্যবেক্ষণ কার্যক্রমে নেতৃত্ব দেন জানিপপ’র ন্যাশনাল ভলেনটিয়ার খালিদ হাসান রিয়েল।

ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচন পর্যবেক্ষণে পরিলক্ষিত হয় যে, সকাল ৯টা থেকে ইভিএম ব্যবহারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। করোনা আতঙ্ক ও জনস্বাস্থ্য সচেতনতায় ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। ভোটাররা ইভিএম ব্যবহার করে ভোট দিতে কোন অসুবিধা হয়নি বলে জানিয়েছেন। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার যেমন হ্যান্ডওয়াশ ও টিস্যু সরবরাহ করা হলেও মাস্ক সরবরাহ করা হয়নি।

গাইবান্ধা-৩ আসনের উপনির্বাচনে সকাল ৯টা থেকে ব্যালট পেপার ব্যবহারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। করোনা আতঙ্কে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। সামগ্রিক বিচারে এ নির্বাচন দু’টি শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানিপপ মনে করে।

 

 

 

/এসও/এসটি/

লাইভ

টপ