স্বাস্থ্যসেবা ও আর্থিক খাতে সহযোগিতা বাড়াতে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের ঐক্যমত

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০২:০২, অক্টোবর ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০৬, অক্টোবর ০১, ২০২০

বাংলাদেশ- যুক্তরাষ্ট্রস্বাস্থ্যসেবা ও আর্থিক খাতে সহযোগিতা বাড়াতে একমত হয়েছে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র। একইসঙ্গে বাড়াবে অর্থনৈতিক কূটনীতি বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়াতে দুদেশের উচ্চ পর্যায়ের এক বৈঠকে এ বিষয়ে একমত হয় দু’দেশের নেতৃবৃন্দরা। যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি কেইথ ক্রাচ ও প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান নিজ নিজ দেশের পক্ষে এ বৈঠকে অংশ নেন।

এ সময় প্রতিবেশি ও আঞ্চলিক রাষ্ট্রের পাশপাশি গুরুত্বপূর্ণ দেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক কূটনীতি বাড়ানোর ওপর জোর দেন সালমান এফ রহমান।

ভিশন ফর অ্যাডভান্সিং ইউএস-বাংলাদেশ পার্টনারশিপ শীর্ষক এই আলোচনায় বাংলাদেশের পক্ষে সভাপিতত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। আর কো চেয়ার হিসেবে অনলাইনে যুক্ত হন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি কেইথ ক্রাচ।

এসময় বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগের প্রশংসা করেন মার্কিন আন্ডার সেক্রেটরি। আর দেশে মার্কিন বিনিয়োগের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা। বৈঠকে ব্লু-ইকোনমি, কৃষি, জনস্বাস্থ্য, জ্বালানি, যোগাযোগ ও অবকাঠামোগত সহযোগিতার বিষয়ে দু’দেশের প্রতিনিধি একমত পোষণ করেন।

আলোচনায় প্রতিবেশি ও আঞ্চলিক রাষ্ট্রের পাশপাশি গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর সঙ্গে অর্থনৈতিক কূটনীতি বাড়ানোর ওপর জোর দেন সালমান এফ রহমান। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক বাড়াতে দুই দেশের শিল্পখাতে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়ানোর তাগিদও দেন তিনি। তিনি সাংবাদিকদের বলেন,  প্রতিবেশি, আঞ্চলিক এবং গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্র বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চমৎকার অর্থনৈতিক কূটনীতি রয়েছে বাংলাদেশের। আমরা আশা করছি, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিকভাবে দু'দেশের সুসম্পর্ক আরও উচ্চ পর্যায়ে পৌঁছাবে। আর এই সম্পর্কের প্রতিফল দুদেশের প্রতিটি নাগরিকের মধ্যেও পড়বে। 

ইউএস ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এবং সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশের মধ্যে ইতিবাচক যোগাযোগ আরও বাড়বে বলেও বৈঠকে আশা প্রকাশ করা হয়।

 

/এমএইচবি/এফএএন/

লাইভ

টপ
X