X
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২
১৩ আষাঢ় ১৪২৯

আগস্টে মানুষের আয় কমেছে ২৩ শতাংশ: জরিপ

আপডেট : ০৪ নভেম্বর ২০২১, ১৭:১৬

২০২০ সালের এপ্রিলে দেওয়া প্রথম লক ডাউনের ধাক্কা ধীরগতিতে হলেও সামলে উঠছিল শহরের বস্তিবাসী এবং গ্রামবাসী। তবে জীবন ও জীবিকা নিয়ে ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিআইজিডি) এবং পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টারের (পিপিআরসি) জরিপের চতুর্থ ধাপে উঠে এসেছে কিছুটা ভিন্ন চিত্র। চলতি বছরের আগস্টে শহুরে বস্তি এবং গ্রাম মিলিয়ে মোট ৪ হাজার ৮৭২টি পরিবারের ওপরে করা জরিপে দেখা গেছে, সর্বশেষ লক ডাউনের ফলে মানুষের স্বাভাবিক জীবনে ফেরার হার বাধাগ্রস্ত হয়েছে এবং গত আগস্টে মানুষের আয় করোনার আগের তুলনায় ২৩ শতাংশ কমেছে।

এর আগের ধাপের জরিপগুলো যথাক্রমে ২০২০ সালের এপ্রিল, জুন এবং চলতি বছরের মার্চ মাসে করা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার ( ৪ নভেম্বর) বিআইজিডি- পিপিআরসি আয়োজিত এক ওয়েবিনারে জরিপের ফল তুলে ধরা হয়।

জরিপে দেখা গেছে, চলতি বছরের মার্চের তুলনায় শহরের বস্তিবাসী এবং গ্রামবাসীর আয় যথাক্রমে ১৮ এবং ১৫ শতাংশ পর্যন্ত কমেছে, যা পুনরুদ্ধারের ধারার বিপরীত। অধিকাংশের মতে, সর্বশেষ লক ডাউনের সিদ্ধান্ত ভালো হলেও জরিপে অংশগ্রহণকারীদের প্রায় অর্ধেকই জানিয়েছেন— তাদের জীবিকার সংকটের কথা। স্বল্পশিক্ষিত ও দরিদ্রদের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ জানিয়েছেন, তারা প্রত্যাশিত কাজ পাননি। প্রথম লক ডাউনে ৪৫ শতাংশ পরিবার সামান্য ত্রাণ পেলেও দ্বিতীয় লকডাউনে সেটি নেমে এসেছে ২৩ শতাংশে।

ফলে জীবিকার যে পুনরুদ্ধার প্রক্রিয়া চলমান ছিল, তা কিছুটা ঘুরে গেছে এবং আগস্টে মানুষের আয় করোনার আগের তুলনায় ২৩ শতাংশ কমেছে।

জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়, এই আয় কমার হার শহুরে বস্তির তুলনায় গ্রামে কিছুটা কম ছিল— কোভিড-পূর্ব সময়ের তুলনায় তা গ্রামে ১২ শতাংশ কম এবং শহুরে বস্তিতে ৩০ শতাংশ কম। মহামারির আগে কাজে নিয়োজিত ছিলেন এমন ১০ শতাংশ মানুষ এখনও কোনও কাজ পাননি।

বিআইজিডি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইমরান মতিন বলেন, ‘আমাদের এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে এবং স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যেতে হবে। আমরা ইতোমধ্যেই দেখতে পেয়েছি, অনেকেই বিভিন্নভাবে পুনরুদ্ধার করেছে এবং মানিয়েও নিয়েছে। এক্ষেত্রে বিশেষত নতুন দরিদ্ররাই রয়েছে— যাদের দীর্ঘমেয়াদী দারিদ্র্যের কবলে পড়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। আমাদের অবশ্যই পুনরুদ্ধারে পিছিয়ে পড়ার দিকে এখনই নজর দিতে হবে।’

পিপিআরসি’র নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. হোসেন জিল্লুর রহমান জানান, নতুনভাবে সংক্রমণের ঢেউ আসার হুমকি এখনও বিদ্যমান। স্বাস্থ্যসেবা, প্রশাসনিক এবং অর্থনৈতিক নীতিমালার সমন্বয়ে একটি সার্বিক পদক্ষেপ না নেওয়া হলে কিছুতেই এ ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব নয়। কোভিডে ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্যে সামাজিক ন্যায়বিচার একটি মৌলিক প্রশ্ন।

তিনি বলেন, ‘কোনও ধরনের নীতি তৈরি না করেই, বা সামান্য কিছু সাহায্য করেই সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণির মানুষদের এ অবস্থায় রাখা যাবে না। শহরে বড় আকারের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী, সিএসএমই পুনরুদ্ধারে বাজেটসমৃদ্ধ পরিকল্পনাকে গুরত্ব দিতে হবে। একইসঙ্গে, স্বাস্থ্যসেবায়, শিক্ষায়, যাতায়াতে ও দৈনন্দিন জীবনে ব্যয়বৃদ্ধিকে মাথায় রেখে সামষ্টিক নীতিমালা তৈরির দিকে নজর দিতে হবে। শুধু তাই নয়, এর সঙ্গে সঙ্গে টিকাদানের কার্যকারিতা ও সচেতনতা বাড়ানোকেও সমানভাবে গুরুত্ব দিতে হবে।’

/এসও/এপিএইচ/  
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
স্কুলে শিক্ষার্থীকে হত্যা, জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বিক্ষোভ
স্কুলে শিক্ষার্থীকে হত্যা, জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বিক্ষোভ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
‘জনশুমারিতে হিজড়াদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে কি?‘
‘জনশুমারিতে হিজড়াদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে কি?‘
ক্যাডেটদের উচিত সমৃদ্ধ দেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখা: সেনাপ্রধান
ক্যাডেটদের উচিত সমৃদ্ধ দেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখা: সেনাপ্রধান
এ বিভাগের সর্বশেষ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
‘জনশুমারিতে হিজড়াদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে কি?‘
‘জনশুমারিতে হিজড়াদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে কি?‘
মগবাজারে চার তলা ভবনে আগুন
মগবাজারে চার তলা ভবনে আগুন
বাণিজ্যমন্ত্রীর নামে ফেসবুক আইডি খুলে প্রতারণা
বাণিজ্যমন্ত্রীর নামে ফেসবুক আইডি খুলে প্রতারণা
ময়নাতদন্ত ছাড়াই পদ্মা সেতুতে নিহত ২ যুবকের লাশ হস্তান্তর
ময়নাতদন্ত ছাড়াই পদ্মা সেতুতে নিহত ২ যুবকের লাশ হস্তান্তর