X
বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২
২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

আট পেরিয়ে ৯ বছরে বাংলা ট্রিবিউন

উদিসা ইসলাম
১৩ মে ২০২২, ০০:০১আপডেট : ১৩ মে ২০২২, ১৯:১১

সুষ্ঠু ও দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার চলার পথে আট বছর পেরিয়ে ৯ বছরে পা রাখলো অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন। আজ  ১৩ মে, বাংলা ট্রিবিউনের জন্মদিন। বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার অঙ্গীকারে বাংলা ট্রিবিউনের সবচেয়ে বড় শক্তি তার পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীরা। এই বিশেষ দিনে বাংলা ট্রিবিউন জানাচ্ছে পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

অনলাইনের এই সময়ে বাংলা ট্রিবিউন শুরু থেকেই প্রচলিত অনলাইন পোর্টালের বাইরে নতুন কিছু করতে চেয়েছে। ২০২২ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে সামনে রেখে ৫০ মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকের সাক্ষাৎকারভিত্তিক বই ‘জয় বাংলা’ প্রকাশের মধ্য দিয়ে আরও নতুন দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছে। আগামীতে আরও বই পাঠকদের সামনে হাজির করবে প্রতিষ্ঠানটি।

এ সময়ের সাংবাদিকতা মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার দাবি করে। পাঠক সংবাদ পড়ার পাশাপাশি একইসঙ্গে দেখতে চান ঘটনার ছবিও। এমনকি পাঠক নিজেও তার মত-মন্তব্য দিয়ে এই সংবাদের অংশ হয়ে উঠতে চান। তার সব চাহিদা পূরণ করতেই বাংলা ট্রিবিউন প্রয়োজনীয় অডিও-ভিডিও উপস্থাপনের পাশাপাশি নিয়মিত তিনটি টকশো, সংবাদের বিশ্লেষণধর্মী লেখা ও অনুষ্ঠান উপস্থাপন করে থাকে।

বাংলা ট্রিবিউনের কাছে প্রত্যাশা জানাতে গিয়ে ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসির মামুন বলেন, ‘অনেক অনলাইন, কিন্তু দায়িত্বশীলতার জায়গায় যে কয়টি আছে, তার মধ্যে অগ্রগণ্য হিসেবে দেখি বাংলা ট্রিবিউনকে। সবাই তো সবসময় সংবাদের মধ্যে আছে। মতামত বিভাগটা আগামী বছর আরেকটু বৈচিত্র্যময় হবে, সেই প্রত্যাশা করি।’

কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, ‘অনলাইন সংবাদপত্রের মধ্যে আমি যেগুলো সবচেয়ে বেশি বিশ্বাস করি, তার মধ্যে প্রথম সারির হচ্ছে বাংলা ট্রিবিউন। বাংলা ট্রিবিউনে যেসব সংবাদ পরিবেশন করা হয়, তার পেছনে একটা নিষ্ঠা আছে সত্যতা প্রকাশ করার। আমাদের সাংবাদিকতায় এটি একটি বড় অবদান। দ্বিতীয়ত হচ্ছে, সংবাদের মূলে যাওয়ার চেষ্টা করে বাংলা ট্রিবিউন। উৎসে গিয়ে যখন খবর বের করে আনা হয়, তখন খবরের পেছনেও অনেক খবর থাকে। সেগুলো বাংলা ট্রিবিউন সামনে নিয়ে আসে। যার ফলে বিশ্বস্ততা তো আছেই এবং সাধারণ পাঠকের আগ্রহ সৃষ্টি হয়। আমরা সাধারণত আজকের খবর পড়ে কালকে ভুলে যাই। কিন্তু আমি দেখেছি, বাংলা ট্রিবিউনে যেসব সংবাদ প্রকাশ হয়, সেগুলোর সঙ্গে আমাদের লেগে থাকতে হয়। পত্রিকাটি যেমন লেগে থাকে, মাঝে মধ্যেই ফলোআপ করে, পাঠক হিসেবে আমাদেরও লেগে থাকতে হয়। এটিও একটি সংবাদপত্রের বড় অবদান।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটি সংবাদের সামনে একটি চমক থাকে। চমকটি সরিয়ে যদি ভেতরে উঁকি দেওয়া যায়, তাহলে অনেক অজানা বিষয় উঠে আসে, যেগুলো মানুষের দৃষ্টিসীমানার বাইরে থাকে। সেগুলো উঠে আসা উচিত। আমার কাছে বাংলা ট্রিবিউনের প্রতিদিনের সংবাদ, অনুসন্ধানী সংবাদ প্রত্যেকটি আকর্ষণীয় মনে হয়। পত্রিকাটির কলামগুলো খুব চমৎকার হয়।’

গ্লোবাল টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও এডিটর ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বাংলা ট্রিবিউনকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ‘একটা অসাধারণ টিম-ওয়ার্ক দেখতে পাই পুরো পোর্টাল জুড়ে। রিপোর্টিং-এ সত্য জানানোর চেষ্টা যেমন আছে, আছে বিভিন্ন মত তুলে ধরার উদ্যোগ। বিভিন্ন বিষয়ে গভীরে গিয়ে অনুসন্ধানের প্রচেষ্টা যেমন আছে, আছে নানা প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা দেওয়ার উদ্যম। অনলাইন পোর্টাল হলো সবচেয়ে বেশি গণতান্ত্রিক মাধ্যম এবং আমি বিশ্বাস করি বাংলা ট্রিবিউন আগামী দিনগুলোতে আরও বেশি শুদ্ধতার চর্চা করবে, আরও বেশি মানুষের কণ্ঠস্বর হয়ে উঠবে। গণমাধ্যমের সবচেয়ে বেশি যা প্রয়োজন সেটি হলো সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠানের সক্রিয়তা। বাংলা ট্রিবিউনে সেই প্রতিষ্ঠান দৃশ্যমান। আগামী পথচলা আরও বেশি সফল হোক।’

দৈনিক আমাদের নতুন সময় এবং দৈনিক দ্য আওয়ার টাইমসের সম্পাদক নাইমুল ইসলাম খান বলেন, ‘বাংলা ট্রিবিউনকে অভিনন্দন। অভিনন্দন নবম বর্ষে পদার্পণের জন্য। আরও অভিনন্দন এই জন্য যে, বাংলা ট্রিবিউন আমার প্রিয় ও ঘনিষ্ঠজনদের প্রতিষ্ঠান। এর উদ্যোক্তা, এর সম্পাদক, সাংবাদিকদের অনেকের সঙ্গে আমার দশকের পর দশক ধরে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। আমি মনে করি, বাংলা ট্রিবিউন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা মর্যাদাপূর্ণ জনপ্রিয় পোর্টাল। এটা কোনও প্রথাগত শুভ কামনা নয়, অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে প্রতিষ্ঠানটির উদ্যোক্তা, সম্পাদক ও সাংবাদিকদের শুভ কামনা। আশা করি বাংলা ট্রিবিউন দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।’

চ্যানেল আই অনলাইনের চিফ নিউজ এডিটর (সিএনই) জাহিদ নেওয়াজ খান বলেন, ‘যখন কোনও এক পক্ষ কোনও একটি গণমাধ্যমের কখনও সমালোচনা করে, কখনও প্রশংসা করে তখন ধরে নিতে হবে সে ঠিক পথে আছে। সে বিবেচনায় সাংবাদিকতায় বাংলা ট্রিবিউন সঠিক পথে আছে, কোয়ালিটি জার্নালিজম করছে বাংলা ট্রিবিউন। আট থেকে নয়ে পদার্পণের এ সময়ে বাংলা ট্রিবিউনের সকল কর্মীকে অভিনন্দন জানাই। সত্য প্রকাশের সাংবাদিকতাকে স্যালুট জানাই।’

দৈনিক আমাদের অর্থনীতির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাসুদা ভাট্টি বলেন, বাংলা ট্রিবিউনের গ্রহণযোগ্যতা এবং পাঠকপ্রিয়তা ঈর্ষা করার মতো। এই অনলাইন প্ল্যাটফর্মটিতে যখনই কোনও লেখা প্রকাশিত হয়, তখনই এটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এবং পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রতিক্রিয়া আসতে থাকে। এই অনলাইনটির যে পাঠকশ্রেণি রয়েছে বিস্তর, সেটি এ থেকেই প্রমাণিত হয়।

মাসুদা ভাট্টি আরও বলেন, ‘বাংলা ট্রিবিউন পাঠে আমি ঋদ্ধ হই। অনেক সময় এর রেফারেন্স বিভিন্ন লেখায় ব্যবহার করি এবং সবচেয়ে বড় কথা হলো—এই প্ল্যাটফর্মে আমি লিখতে আগ্রহ বোধ করি। জন্মদিনে বাংলা ট্রিবিউনের সম্পাদক ও সাংবাদিক বন্ধুদের সবার জন্য শুভেচ্ছা এবং আমি এর উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করি।’

বাংলা ট্রিবিউনের জন্মদিনের মুহূর্তে পত্রিকাটির সম্পাদক জুলফিকার রাসেল বলেন, ‘এই আট বছরে দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সাংবাদিকতা করাটাকেই আমরা গুরুত্ব দিয়েছি। আগামীতেও সেই পথে এগিয়ে যাবো। আমাদের যত কর্মী কাজ করে গেছেন, তাদের সবার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তাদের ছাড়া এই পথচলা কখনও সম্ভব হতো না। সবচেয়ে বেশি কৃতজ্ঞ পাঠকদের প্রতি। তাদের ছাড়া বাংলা ট্রিবিউন অসম্পূর্ণ। বাংলা ট্রিবিউনের প্রকাশক কাজী আনিস আহমেদ আমাদের সমৃদ্ধ করতে সবসময় পাশে থেকে উৎসাহ দিয়ে গেছেন। তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা।’

/এসও/এপিএইচ/এমওএফ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
রুশ পর্যটকদের নিষিদ্ধ করুন, পশ্চিমাদের জেলেনস্কি
রুশ পর্যটকদের নিষিদ্ধ করুন, পশ্চিমাদের জেলেনস্কি
কুমিরের সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে ফিরলেন যুবক
কুমিরের সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে ফিরলেন যুবক
নারী উদ্যোক্তাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও শিক্ষিকা গ্রেফতার
নারী উদ্যোক্তাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও শিক্ষিকা গ্রেফতার
নিষিদ্ধ আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের আবু তাল্লাহর খোঁজে আসাম পুলিশ
নিষিদ্ধ আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের আবু তাল্লাহর খোঁজে আসাম পুলিশ
এ বিভাগের সর্বশেষ
বাংলা ট্রিবিউন স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের পক্ষে ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে: মির্জা ফখরুল
বাংলা ট্রিবিউন স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের পক্ষে ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে: মির্জা ফখরুল
বিশ্বস্ত গণমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন: বাংলাদেশ ন্যাপ
বিশ্বস্ত গণমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন: বাংলাদেশ ন্যাপ
বাংলা ট্রিবিউন গণমানুষের আস্থা অর্জন করেছে: জিএম কাদের
বাংলা ট্রিবিউন গণমানুষের আস্থা অর্জন করেছে: জিএম কাদের
স্বতন্ত্র জায়গা তৈরি করেছে বাংলা ট্রিবিউন: শিক্ষামন্ত্রী
স্বতন্ত্র জায়গা তৈরি করেছে বাংলা ট্রিবিউন: শিক্ষামন্ত্রী
ফিরে আসবে সুন্দর দিন
ফিরে আসবে সুন্দর দিন