X
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

সরকার মজুরি ঘোষণার প্রশ্নে মালিকদের পক্ষেই অবস্থান নিয়েছে

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৪ নভেম্বর ২০২৩, ২১:০৫আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০২৩, ২১:০৫

‘শ্রমিক বান্ধব সরকার’ মজুরি ঘোষণার প্রশ্নে মালিকদের পক্ষেই অবস্থান নিয়েছে। মজুরি ঘোষণায় তালবাহনা করে দেরি করা, অন্যায়ভাবে ১০ হাজার ৪০০ টাকা মজুরি প্রস্তাব করে মালিকরা শ্রমিকদের রাস্তায় নামতে উসকানি দিয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শ্রমিক হত্যার বিচারের দাবিতে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

মজুরি বৃদ্ধির আন্দোলনে পোশাকশ্রমিক রাসেল, আঞ্জুয়ারা, জালালুদ্দিন ও ইমরান হত্যার জন্য দায়ীদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা, ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক পরিবারপ্রতি আজীবন আয়ের সমান ক্ষতিপূরণ প্রদান, শ্রমিকদের ওপর হামলা-মামলা-হয়রানি বন্ধ, শ্রম আইনের শ্রমিক বিরোধী ১৩(১) ধারার ব্যবহার বন্ধ এবং গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য ঘোষিত অগ্রহণযোগ্য ও ত্রুটিপূর্ণ মজুরি পুনর্নির্ধারণের দাবিতে ওই সমাবেশ আয়োজন করে বাসদ।

বাসদ ঢাকা মহানগর শাখার ইনচার্জ নিখিল দাসের সভাপতিত্বে ও কমিটির সদস্য খালেকুজ্জামান লিপনের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশীদ  ফিরোজ, সহকারী সাধারণ সম্পাদক রাজেকুজজামান রতন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব বুলবুল।

সমাবেশে নেতারা বলেন, শ্রমিক বান্ধব সরকার মজুরি ঘোষণার প্রশ্নে মালিকদের পক্ষেই অবস্থান নিয়েছে। মজুরি ঘোষণায় তালবাহনা করে দেরি করা, অন্যায়ভাবে ১০ হাজার ৪০০ টাকা মজুরি প্রস্তাব করে মালিকরা শ্রমিকদের রাস্তায় নামতে উসকানি দিয়েছে। শ্রমিকরা রাস্তায় নামায় সরকার তাদের গুলি করে হত্যা করে শ্রমিক নয় মালিকেরই পক্ষ নিয়েছে।

তারা আরও বলেন, আন্দোলনের এক পর্যায়ে মজুরি সাড়ে ১২ হাজার টাকা মজুরি ঘোষণা করা হয়, যেটি শ্রমিকদের প্রত্যাশিত নয়। বাজারদর, উচ্চ দ্রব্যমূল্য, মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় শ্রমিকরা ২৩ হাজার টাকা মজুরি দাবি করেছিল। এই অযৌক্তিক সাড়ে ১২ হাজার টাকা মজুরি ঘোষণা শ্রমিকদের আরও ক্ষুব্ধ করেছে।

শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে পুলিশ গুলি চালিয়েছে দাবি করে তারা বলেন, রাসেল, ইমরান, আঞ্জুয়ারা, জালালসহ চার শ্রমিককে হত্যা করেছে। যেসব ভাঙচুরের কথা শ্রমিকরা করেছে বলে বলা হচ্ছে, সেটিও সঠিক নয়। স্থানীয় সরকারি দলের গুন্ডা, জুট ব্যবসায়ী ও মালিকদের লাঠিয়াল বাহিনী এসব ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ ঘটিয়ে শ্রমিকদের ওপর দোষ চাপিয়ে দিয়েছে। বাস্তবে মজুরি পুনর্নির্ধারণের দাবিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য পরিকল্পিতভাবে হত্যাকাণ্ড ঘটানো ও শ্রমিকদের কারখানা ভাঙচুরের গল্প তৈরি করা হয়েছে।

এ সময় তারা অবিলম্বে দমন-পীড়ন বন্ধ, শ্রমিক হত্যার জন্য দায়ীদের বিচার এবং ক্ষতিগ্রস্তদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ প্রদানের আহ্বান জানান। একই সঙ্গে শ্রমিকদের নামে করা হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সেগুনবাগিচায় দলের অস্থায়ী কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।

/এএজে/এনএআর/
সম্পর্কিত
শ্রমিকনেতা শহিদুল হত্যায় পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্রে কী আছে?
রাজনৈতিক দলগুলোকে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে নামতে হবে: মান্না
সিরাজগঞ্জের আলোচিত মা ও দুই ছেলে হত্যায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড
সর্বশেষ খবর
রাষ্ট্রপতির কাছে যে পরিকল্পনা তুলে ধরতে চায় দুদক
রাষ্ট্রপতির কাছে যে পরিকল্পনা তুলে ধরতে চায় দুদক
গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে নিজের শরীরে আগুন দিলেন এক মার্কিনী
গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে নিজের শরীরে আগুন দিলেন এক মার্কিনী
১৫ মামলা মাথায় নিয়ে নির্বাচনের মাঠে কায়সার, কখনও আসামি হননি সূচনা
কুমিল্লা সিটির উপনির্বাচন১৫ মামলা মাথায় নিয়ে নির্বাচনের মাঠে কায়সার, কখনও আসামি হননি সূচনা
শ্রমিকনেতা শহিদুল হত্যায় পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্রে কী আছে?
শ্রমিকনেতা শহিদুল হত্যায় পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্রে কী আছে?
সর্বাধিক পঠিত
১০ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত
১০ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত
অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল বন্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘না’
অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল বন্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘না’
আইন অনুযায়ী ট্রান্সকমের মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় পুলিশ
সম্পত্তি নিয়ে বিরোধআইন অনুযায়ী ট্রান্সকমের মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় পুলিশ
এজলাসে বসে বাংলাদেশের বিচারকাজ পর্যবেক্ষণ করলেন ভারতের প্রধান বিচারপতি
এজলাসে বসে বাংলাদেশের বিচারকাজ পর্যবেক্ষণ করলেন ভারতের প্রধান বিচারপতি
গণিত পরীক্ষায় নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করায় শিক্ষক গ্রেফতার
গণিত পরীক্ষায় নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করায় শিক্ষক গ্রেফতার